BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১৪:৪০

মেসির দুর্দান্ত গোল সত্বেও বেনফিকার কাছে পয়েন্ট হারালো পিএসজি

লিসবন, ৬ অক্টোবর ২০২২ (বাসস) :  লিওনেল মেসির অসাধারণ কার্লিং শটে এগিয়ে গিয়েও বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পর্তুগীজ জায়ান্ট বেনফিকার সাথে ১-১ গোলে ড্র করতে বাধ্য হয়েছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই(পিএসজি)। 
লিসবনে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার ২২ মিনিটে দুর্দান্ত গোলটি করেন। কিন্তু ডানিলো পেরেইরার আত্মঘাতি গোলে বিরতির আগে বেনফিকা সমতায় ফিরে। আর এতেই ১-১ গোলের ড্র নিশ্চিত হয়। পিএসজি ও বেনফিকা উভয় দলই তিন ম্যাচে সাত পয়েন্ট করে অর্জন করে গ্রুপ-এইচ’র শীর্ষ দুটি স্থানে রয়েছে। 
সব ধরনের প্রতিযোগিতায় দুটি দলই এনিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে জয় বঞ্চিত হলো। কাল ম্যাচ শেষে ক্যানাল প্লাসকে পিএসজি অধিনায়ক মারকুইনহোস বলেছেন, ‘আমরা জানতাম এই মাঠে খেলাটা কঠিন। এই ধরনের পরিবেশে ফর্মে থাকা বেনফিকা স্বাভাবিক ভাবেই শক্ত প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখা দিয়েছিল।’
গত মৌসুমে পিএসজির হয়ে মেসি ৩৪ ম্যাচে ১১ গোল করেছিলেন। এবার ইতোমধ্যেই ১৩ ম্যাচে তিনি আট গোল করে ফেলেছেন। মারকুইনহোস বলেন, ‘এটাই স্বাভাবিক, যদিও এই অর্জনে মেসি কিছুটা সময়ই নিয়েছে। এখন সে পিএসজিতে অনেকটাই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছে। আশা করছি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা না পাওয়া পর্যন্ত মেসি একটি দুর্দান্ত মৌসুম কাটাবে।’
গত সপ্তাহের প্রথম পয়েন্ট হারালেও পর্তুগীজ লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে বেনফিকা। গ্রীষ্মকালীন দলবদলের সময় পিএসজির নজড়ে থাকা ২১ বছর বয়সী পর্তুগীজ এ্যাটাকার গনসালো রামোসের শট রুখে দেন গোলরক্ষক গিয়ানলুইগি ডোনারুমা। এরপর রামোসের আরো একটি দুরপাল্লার শট আটকে দিয়ে পিএসজিকে রক্ষা করেন ডোনারুমা। ডেভিস নেরেসের ডিফ্লেকটেড শটটি দুর্দান্ত ভাবে সেভ করেন ইতালিয়ান গোলরক্ষক। কিন্তু হঠাৎ করেই জ্বলে ওঠে মেসি, নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পেকে নিয়ে সাজানো পিএসজির আক্রমনভাগ। তারই ধারাবাহিকতায় দারুন এক ফিনিশিংয়ে পিএসজিকে এগিয়ে দেন মেসি। মেসির পাস থেকে এমবাপ্পে-নেইমার হয়ে আবারো আর্জেন্টাইন সুপারস্টারের কাছে বল আসে। আর তা থেকে প্রথম সুযোগেই কার্লিং শটে বল জালে জড়ান মেসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটি মেসির ১২৭তম গোল। এন্টোনিও সিলভার স্ট্রাইক রুখে দিয়ে ডোনারুমা আবারো বেনফিকাকে হতাশ করেন। কিন্তু বিরতির আগে আর শেষ রক্ষা হয়নি। ৪১ মিনিটে বামদিক থেকে এনজো ফার্নান্দেজের ক্রসে ডানিলো ক্লিয়ার করতে গিয়ে জালে জড়ালে আত্মঘাতি গোলের লজ্জা পায় পিএসজি। 
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে নেইমার দুইবার পিএসজিকে এগিয়ে দিতে ব্যর্থ হন। তার ওভারহেড কিক বারের উপর দিয়ে চলে যায়। এরপর আর্জেন্টাইন তারকার ফ্রি-কিক কর্ণারের মাধ্যমে রক্ষা করেন বেনফিকার গোলরক্ষক ওডিসিস ভøাকোডিমোস। মেসির এ্যাসিস্টে আচরাফ হাকিমি গোলের সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেননি। বেনফিকার ডিফেন্ডার নিকোলাস ওটামেন্ডির  ফ্রি-কিক অল্পের জন্য পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। উভয় দলই শেষ পর্যন্ত গোলের চেষ্টা করে গেছে। এমবাপ্পের কার্লি শট রুখে দেন ভøাকোডিমোস। অন্যদিকে রাফা সিলভাকে হতাশ করেন ডোনারুমা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এবারের মৌসুমে অপরাজিত থাকা দল দুটিকে আলাদা করা যাযনি। ছয়দিন পর আবারো প্যারিসের পার্ক ডি প্রিন্সেসে ফিরতি ম্যাচে একে অপরের মোকাবেলা করবে দল দুটো।
 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়