BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১১:৪৪

ব্যাটিং ব্যর্থতায় লজ্জার হারে শুরু বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের

সেন্ট কিটস, ১৭ জানুয়ারি ২০২২ (বাসস) : ব্যাটারদের চরম ব্যর্থতায় লজ্জার হার দিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ ওয়ানডে বিশ^কাপে যাত্রা শুরু করলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। 
গতরাতে সেন্ট কিটসে ‘এ’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ৭ উইকেটে হেরেছে ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কাছে। 
সেন্ট কিটসে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। রান তোলার গতি কম থাকলেও ৪ ওভার পর্যন্ত কোন উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। শুরুতে ইংল্যান্ডের বোলারদের লাইন-লেন্থ বোলিংকে দক্ষতার সাথেই সামাল দেয়ার চেষ্টায় ছিলেন দুই ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম ও আরিফুল ইসলাম। 
তবে পঞ্চম ওভারে দলীয় ৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম ৩ রান করে ফিরেন। এরপর ২ রানের  ব্যবধানে আরও ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। আরিফুল ইসলাম ৪, প্রান্তিক নওরোজ নাবিল ০ ও এমডি ফাহিম ১ রান করে আউট হন। 
দলের  শুরুর ধাক্কা সামলে উঠার চেষ্টা করেন আইচ মোল্লা ও আশিকুর জামান। পঞ্চম উইকেটে ১৮ রানের জুটি গড়েন তারা।  কিন্তু ৫ রানের ব্যবধানে দু’জনই বিদায় নিলে মহাবিপদেই পড়ে বাংলাদেশ। এ সময়  ১৭ ওভারে ৩১ রানে ৬ উইকেট হারায় শিরোপা ধরে রাখার মিশনে থাকা বাংলাদেশ। মোল্লা ১৩ ও আশিকুর ৯ রান করেন। 
জুটি গড়ার চেষ্টা করে মোল্লা ও আশিকুর ব্যর্থ হলে আবারও তেমনই চেষ্টা করেন আব্দুল্লাহ আল মামুন ও এসএম মেহরব। এরাও ইঙ্গিত দিয়ে বেশি দূর যেতে পারেননি। ১৯ রানের জুটি গড়েন মামুন-মেহরব। দলীয় ৫০ রানে থামেন মামুন। করেন ৪ রান। 
দলীয় ৫১ রানে নামের পাশে ১৪ রান রেখে আউট হন মেহরব। ঐ ৫১ রানেই নবম ব্যাটার হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফিরেন অধিনায়ক রাকিবুল হাসান। খালি হাতে ফিরতে হয়েছে অধিনায়ককে। ১ রানে সপ্তম থেকে নবম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।
বাংলাদেশ অধিনায়ক যখন প্যাভিলিয়নে ফিরেন, তখন স্কোর বলছে- ২৪ দশমিক ২ ওভারে ৯ উইকেটে ৫১ রান বাংলাদেশের। এমন অবস্থায় ইনিংস গুটিয়ে যাওয়া সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় । কিন্তু সেটি হতে দেননি শেষ দুই ব্যাটার নাইমুর রহমান ও রিপন মন্ডল। 
শেষ উইকেটে ইংল্যান্ডের বোলারদের ঘাম ঝড়িয়েছেন নাইমুর ও রিপন। রিপন রানের চাকা ঘুড়িয়েছেন। ধীরে ধীরে বড় হচ্ছিলো দলের স্কোর। একসময় স্কোর তিন অংকে পৌঁছানোর পথেই ছিলো। কিন্তু ৩৬তম ওভারে দলীয় ৯৭ রানে আউট হন নাইমুর। ১টি চারে ২৭ বলে ১১ রান করেন তিনি। ৫টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪১ বলে  ৩৩ রানে অপরাজিত  রিপন। শেষ উইকেটে ৪৬ রানের জুটি গড়ে বাংলাদেশকে অল্প রানে গুটিয়ে যাবার লজ্জা থেকে রক্ষা করেন নাইমুর ও রিপন। ইংল্যান্ডের জসুয়া বয়ডেন ৪ উইকেট নেন। 
জয়ের জন্য ৯৮ রানের সহজ টার্গেট স্পর্শ করতে বেগ পেতে হয়নি ইংল্যান্ডকে। ২৬ রানে ২ উইকেট পতনের পরও ১৪৯ বল বাকী রেখে জয় নিশ্চিত করে ইংলিশরা। ওপেনার জ্যাকব বিথেল সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন। বাংলাদেশের রাকিবুল-রিপন ১টি করে উইকেট নেন।
আগামী ২০ জানুয়ারি গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের যুবারা।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন