বাসস
  ২৩ জুন ২০২৪, ১৪:৩১

তুরষ্ককে উড়িয়ে দিয়ে শেষ ষোলতে পর্তুগাল, লড়াইয়ে ফিরেছে বেলজিয়াম

ডর্টমুন্ড, ২৩ জুন ২০২৪ (বাসস/এএফপি) : ডর্টমুন্ডে শনিবার তুরষ্ককে ৩-০ গোলে বিধস্ত করে ইউরো চ্যাম্পিয়নশীপের নক আউট পর্ব নিশ্চিত করেছে পর্তুগাল। দিনের আরেক ম্যাচে উজ্জীবিত রোমানিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে ইউরোর আশা টিকিয়ে রেখেছে বেলজিয়াম।
২০১৬ ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়ন ক্রস্টিয়ানো রোনাল্ডোর পর্তুগাল অন্য আরো কয়েকটি দলের সাথে জার্মানিতে ফেবারিট হিসেবেই মাঠে নেমেছে। ফেবারিটের তকমা গায়ে লাগিয়ে গ্রুপ-এফ’র শীর্ষ দল হিসেবে এক ম্যাচ হাতে রেখে পরের রাউন্ডে উঠেছে পর্তুগীজরা। গ্রুপের শেষ ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ এবারের আসরে প্রথমবারের মত খেলতে আসা জর্জিয়া।
ম্যানচেস্টার সিটি বার্নার্ডো সিলভা ২১ মিনিটে প্রথম গোল করে পর্তুগালকে এগিয়ে দেন। নুনো মেনডেসের লো ক্রস ডিফ্লেকটেড হয়ে তার কাছে আসলে প্রথম সুযোগেই সিলভা বল জালে জড়ান। সাত মিনিট পর হাস্যকর এক আত্মঘাতি গোলে ব্যবধান দ্বিগুন হয়। হুয়াও ক্যান্সেলো রোনাল্ডোকে লক্ষ্য করে বল বাড়িয়ে দেন। কিন্তু সামেট আকাইডিন সেই বল নিয়ে গোলরক্ষক অল্ডে বেইন্ডিরের দিকে ব্যাক পাস করেন। কিন্তু বেইন্ডি তার স্থান ছেড়ে অনেকটাই বাইরে বেরিয়ে আসলে সেই বল ধরার তার সাধ্য ছিলনা। ডিফেন্ডার জেকি সেলিক অনেকটা দৌড়ে গিয়ে বল ক্লিয়ার করার চেষ্টা করলেও তার আগেই বল গোল লাইন ক্রস করে।
এরপর তুরষ্ককে কখনই ম্যাচে ফিরে আসতে দেখা যায়নি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে রোনাল্ডো গোলের সুযোগ পেলেও নি:স্বার্থ ভাবে ব্রুনো ফার্নান্দেসের দিকে বল বাড়িয়ে দেন। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এই এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার সহজ গোলে দলের বড় জয় নিশ্চিত করেন।
এর আগে প্রথম ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রকে ২-১ গোলে পরাজিত করে ইউরো যাত্রা শুরু করেছি পর্তুগাল। এবারের আসরে এ পর্যন্ত তিনটি দল তাদের প্রথম দুই ম্যাচে শতভাগ জয় নিশ্চিত করে পূর্ণ ছয় পয়েন্ট তুলে নিয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম পর্তুগাল।
আগামী ১ জুলাই ফ্রাঙ্কফুর্টে সেরা তৃতীয় স্থান পাওয়া যেকোন একটি দলের বিপক্ষে শেষ ষোলতে মুখোমুখি হবে রোনাল্ডোর দল।  
কাল ম্যাচ শেষে পর্তুগীজ কোচ রবার্তো মার্টিনেজ বলেছেন, ‘আমরা গ্রুপে প্রথম হয়েছি, আগামী ম্যাচে আমি দলে পরিবর্তন আনার চেষ্টা করবো। এটা আমার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারন ড্রেসিং রুমে এখনো আমার অনেক খেলোয়াড় ম্যাচের জন্য অপেক্ষায় রয়েছে, যারা খেলার যোগ্য।’
৩৯ বছর বয়সে রোনাল্ডো ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপ খেলতে মাঠে নেমেছেন। জার্মানিতে গোল করতে পারলে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বেশী বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোলের নতুন রেকর্ড গড়বেন রোনাল্ডো। কিন্তু এখনো নিজের করা সর্বোচ্চ ১৪ গোলের রেকর্ডকে সমৃদ্ধ করতে পারেননি সিআর সেভেন। সুপারস্টার এই ফরোয়ার্ডকে নিয়ে এখনো সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে। দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকজন ভক্ত মাঠের মধ্যে নেমে রোনাল্ডোর সাথে সেলফি তোলার চেষ্টা করেছেন। রোনাল্ডো এতে ভালই সাড়া দিয়েছেন।
মার্টিনেজ অবশ্য স্বীকার করেছেন মাঠের ভিতর এভাবে এত ভক্তের উপস্থিতি শঙ্কাও তৈরী করছে। তিনি বলেন তাদের মধ্যে সবাই যে ভাল ব্যবহার করেছে এটাই সৌভাগ্যের বিষয়।
এর আগে দিনের শুরুতে চেক প্রজাতন্ত্রের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে বড় কোন টুর্নামেন্টে প্রথম পয়েন্টের দেখা পেয়েছে জর্জিয়া। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে পেনাল্টি থেকে জর্জেস মিকাওটাজের গোলে এগিয়ে যায় জর্জিয়া। কিন্তু বিরতির পরপরই প্যাট্রিক শিক চেকদের সমতায় ফেরান। এই এক পয়েন্টে দুই দলের কারোরই পরের রাউন্ডে যাবার জন্য কার্যত কোন সহযোগিতা হয়নি।
চেক প্রজাতন্ত্র ও জর্জিয়ার থেকে দুই পয়েন্ট এগিয়ে তিন পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তুরষ্ক।
কোলন স্টেডিয়ামে দারুন এক জয়ে টুর্নামেন্টে ফিরে এসেছে বেলজিয়াম। স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের হতাশাজনক পরাজয় দিয়ে আসর শুরু করা বেলজিয়ামের টিকে থাকার জন্য এই ম্যাচে জয় ভিন্ন কোন পথ খোলা ছিলনা। ম্যাচ শুরুর ২ মিনিটের মধ্যে রোমেলু লুকাকুর পাসে ইউরি টিয়েলেমানস বেলজিয়ামকে এগিয়ে দেন।
ইউক্রেনকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে দুর্দান্তভাবে আসর শুরু করা রোমানিয়া এই ম্যাচে অন্তত এক পয়েন্ট পেলেই পরের রাউন্ড নিশ্চিত করতে পারতো। স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে লুকাকুর দুটি গোল অফসাইডের কারনে বাতিল হয়ে গিয়েছিল। কালও দ্বিতীয়ার্ধে তার একটি গোল একই কারনে বাতিল হলে হতাশ হতে হয় বেলজিয়ামকে। ভ্যালেন্টিন মিহাইলা ও ডেনিস ম্যান রোমানিয়ার পক্ষে সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু বেলজিয়াম অধিনায়ক কেভিন ডি ব্রুইনা ম্যাচ শেষের ১০ মিনিট আগে দারুন এক একক প্রচেষ্টা ব্যবধান দ্বিগুনের পাশাপাশি স্বস্তিদায়ক জয় নিশ্চিত করেন।
বেলজিয়াম কোচ ডোমেনিকো টেডেসকো বলেছেন, ‘এই ম্যাচে জয়ী হতে পেরে আমি দারুনভাবে স্বস্তিবোধ করছি। আজ তিন, চার, পাঁচ গোল হবার সম্ভাবনা ছিল। এতগুলো সুযোগ তৈরী করাও ইতিবাচক দিক। আমাদের আরো ধৈর্য্য ধরতে হবে।’
শুক্রবার স্লোভাকিয়াকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছিল ইউক্রেন। যে কারনে তিন দলেরই সমান তিন পয়েন্ট করে অর্জিত হয়েছে। যে কারনে পুরো গ্রুপই এখন উন্মুক্ত হয়ে গেছে। গ্রুপের শেষ ম্যাচে বেলজিয়ামের প্রতিপক্ষ ইউক্রেন, রোমানিয়া লড়বে স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে।
 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়