BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ২৫ নভেম্বর ২০২২, ০৯:৩৬
আপডেট  : ২৫ নভেম্বর ২০২২, ০৯:৩৮

হাওরে আমনের ফলনে স্বস্তি : কার্তিকের আকাল মেটাবে অগ্রহায়ণের ধান 

॥ আল-হেলাল মো. ইকবাল মাহমুদ ॥
সুনামগঞ্জ, ২৫ নভেম্বর, ২০২২ (বাসস): ভাটির জনপদ সুনামগঞ্জ জেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা আমনের ফলনে এখন স্বস্তিতে রয়েছেন। তারা মনে করছেন- হাওরে কার্তিকের আকাল মেটাবে অগ্রহায়ণের আমন ধান।
বোরো প্রধান সুনামগঞ্জ জেলায় উল্লেখ করার মত জমিতে এখন আমন চাষাবাদও হয়। এ বছর জেলায় আমন চাষাবাদ হয়েছে ৮২ হাজার ২১৫ হেক্টর জমিতে। অগ্রহায়ণে শুরু হয়েছে বিভিন্ন অঞ্চলে আমন ধান কাটার উৎসব। 
জেলার অপেক্ষাকৃত উঁচু এলাকা দোয়ারাবাজারে ১৪ হাজার ৬২৫, ছাতকে ১২ হাজার ৯৫৫, সুনামগঞ্জ সদরে ১১ হাজার ৬১০, জগন্নাথপুরে নয় হাজার ৫৫৫, বিশ্বম্ভরপুরে ৮ হাজার ৭৫৫, তাহিরপুরে ৬ হাজার ৩৩৫, ধর্মপাশায় ৪ হাজার ৫৭০, শান্তিগঞ্জে ৪ হাজার ২১০, দিরাইয়ে ২ হাজার ৭২৫, শাল্লায় ২ হাজার ১৩০ এবং জামালগঞ্জে ৪ হাজার ৫৪৫ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ হয়েছে। 
জেলায় এবার সবচেয়ে বেশি চাষাবাদ হয়েছে ব্রি-৪৯ এবং বিআর ২২ জাতের ধান। ব্রি-৪৯ ধানের ফলন প্রতি একরে (তিন কেয়ারে এক একর) ৫০ থেকে ৫৫ মণ এবং বিআর হয়েছে প্রতি একরে ৪০ থেকে ৪৫ মণ। 
কৃষকরা বলেন, বন্যায় সবকিছু ল-ভ- হয়ে বিপন্ন ছিলেন, আমনের ফলনে ঘুরে দাঁড়ানোর সাহস খুঁজছেন তারা।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক বিমল চন্দ্র সোম জানালেন, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ২০ হাজার ১০০ হেক্টর আমন জমির ধান কর্তন শেষ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে বেশি উৎপাদন হয়েছে। সব মিলিয়ে মোট উৎপাদন হবে ৩ লাখ টন ধান। ভালোয়-ভালোয় ধান কাটা শেষ হলে হাওরে কার্তিকের আকাল মেঠাবে অগ্রহায়ণের ধান বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।
 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়