BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:২২

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে নতুন ১১ জন আক্রান্ত

চট্টগ্রাম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ (বাসস) : চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১১ জনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণ হার ৮ দশমিক ৯৪ শতাংশ।
করোনা সংক্রান্ত হালনাগাদ পরিস্থিতি নিয়ে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে আজ পাঠানো রিপোর্টে বলা হয়, ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি ও নগরীর দশ ল্যাবরেটরি এবং এন্টিজেন টেস্টে গতকাল চট্টগ্রামের ১২৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করলে নতুন ১১ জন পজিটিভ শনাক্ত হন। এর মধ্যে শহরের বাসিন্দা ৯ জন ও দুই উপজেলার ২ জন। উপজেলায় আক্রান্তদের মধ্যে আনোয়ারা ও সাতকানিয়ায় একজন করে রয়েছেন। জেলায় করোনাভাইরাসে মোট শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা এখন ১ লক্ষ ২৮ হাজার ৮৭৩ জন। এর মধ্যে শহরের বাসিন্দা ৯৩ হাজার ৯৫৭ ও গ্রামের ৩৪ হাজার ৯১৬ জন। করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ হাজার ৩৬৭ জন রয়েছে। এতে শহরের বাসিন্দা ৭৩৭ ও গ্রামের ৬৩০ জন।
ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (চমেকহা) ল্যাবে ১৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে শহরের ৩ জন জীবাণুবাহক পাওয়া যায়। আন্দরকিল্লা জেনারেল হাসপাতালের আরটিআরএলে পরীক্ষিত ২ নমুনার শধ্যে শহরের একটির পজিটিভ রেজাল্ট আসে। নমুনা সংগ্রহের বিভিন্ন কেন্দ্রে ৩ জনের এন্টিজেন টেস্ট করা হয়। এতে গ্রামের একজন সংক্রমিত বলে জানানো হয়।
বেসরকারি ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরি শেভরনে ২৩ জনের নমুনার মধ্যে শহর ও গ্রামের একজন করে আক্রান্ত শনাক্ত হন। মেডিকেল সেন্টার হাসপাতাল ল্যাবে ২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে দু’টিরই রেজাল্ট পজিটিভ আসে। এপিক হেলথ কেয়ারে ৮ টি নমুনা পরীক্ষায় শহরের একটিতে সংক্রমণ চিহ্নিত হয়। এভারকেয়ার হসপিটাল ল্যাবে ৫ টি নমুনা পরীক্ষা করলে শহরের একটিতে জীবাণুর অস্তিত্ব ধরা পড়ে।
এছাড়া, ফৌজদারহাটস্থ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ১৪, বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ১৫, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ৪, মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ৫ ও এশিয়ান স্পেশালাইজড হাসপাতাল ল্যাবে ২১ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পাঁচ ল্যাবে পরীক্ষিত ৫৯ নমুনার সবগুলোরই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।
এদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ও ল্যাব এইডে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি।
ল্যাবভিত্তিক রিপোর্ট বিশ্লেষণে সংক্রমণ হার নির্ণিত হয়, চমেকহা’য় ১৪ দশমিক ২৮ শতাংশ, আরটিআরএলে ৫০, শেভরনে ৮ দশমিক ৬৯, মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে শতভাগ, এপিক হেলথ কেয়ারে ১২ দশমিক ৫০, এভারকেয়ার হসপিটাল ল্যাবে ২০ ও এন্টিজেন টেস্টে ৩৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ এবং বিআইটিআইডি, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতাল, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, মেট্রোপলিটন হাসপাতাল ও এশিয়ান সেপশালাইজড হাসপাতাল ল্যাবে ০ শতাংশ।

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়