BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:২৩

ফেনী সরকারি কলেজ বধ্যভূমিতে নির্মিত হচ্ছে স্মৃতিস্তম্ভ

॥ আরিফ রিজভী ॥
ফেনী, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ (বাসস) : ফেনী সরকারি কলেজ বধ্যভূমিতে নির্মাণ করা হবে স্মৃতিস্তম্ভ। এ লক্ষ্যে কলেজ ক্যাম্পাসের নির্ধারিত স্থানে বালি ভরাটের কাজ শেষ পর্যায়ে, প্রায় দেড় একর জায়গা জুড়ে নির্মিত হবে দৃষ্টিনন্দন কমপ্লেক্স।
উন্নয়ন প্রকল্পটি প্রসঙ্গে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মাসুদুর রহমান জানান, প্রকল্পটিতে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল বধ্যভূমি সংলগ্ন খানাখন্দ ভরাট করা। যা শেষ পর্যায়ে রয়েছে। কমপ্লেক্সটির নকশা প্রণয়নে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে নিযুক্ত করা হয়েছে। বালু ভরাটের কাজ শেষ হলে পরবর্তী কাজগুলো পর্যায়ক্রমে শেষ করা হবে। সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হয়েছে পৌনে ২ কোটি টাকা।
ফেনী কলেজ বধ্যভূমি প্রসঙ্গে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মোতালেব বলেন, ১৯৭১ সালে এখানে পাকিস্তানি আর্মির বৃহৎ ক্যাম্প ছিল। অসংখ্য মানুষকে আশপাশের জেলা, থানা  থেকে ধরে এনে মাঠে গোলপোস্টে ঝুলিয়ে হত্যা করত হানাদাররা। বহু মা বোনকে এখানে নির্যাতন করেছে তারা। দেশ স্বাধীনের পরপর বহু মানুষ স্বজনের খোঁজে কলেজ ক্যাম্পাসে ভিড় করত।
ফেনী জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ-উল হাসান এ প্রসঙ্গে বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে ফেনী কলেজ বধ্যভূমি আলোচিত স্থান, যেখান বহু বাঙালিকে নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করে মাটিচাপা দেয়া হয়েছিল। বাঙালির আত্মত্যাগের কথা স্মরণীয় করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে ফেনী-২ আসনের এমপি নিজাম উদ্দিন হাজারী ইতোপূর্বে বলেছেন, এখানে নির্বিচারে হত্যা করা হয় সাধারণ মানুষ, বুদ্ধিজীবী, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের। স্মৃতিস্তম্ভ কমপ্লেক্সটি বাস্তবায়ন হলে কলেজ শিক্ষার্থীদের মনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালিত হতে সহায়ক হবে। এটি বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে সবরকম পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। দ্রুততর সময়ে কাজটি সম্পন্ন করার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।
প্রকল্প প্রসঙ্গে নকশা প্রণয়নকারী প্রতিষ্ঠান ভেক্টর প্লিন্থ এর পক্ষে স্থপতি জাবেদ ইকবাল রূপম জানান, প্রায় ৬৪ হাজার বর্গফুট জায়গাজুড়ে স্মৃতিসৌধ কমপ্লেক্স তৈরি হবে। এতে মূল স্মৃতিস্তম্ভ ছাড়াও প্রাসঙ্গিক স্থাপনা রয়েছে।
উল্লেখ্য, বধ্যভূমির পবিত্রতা ও স্মৃতি রক্ষায় চলতি বছরের শুরুর দিকে উদ্যোগ নেয় জেলা প্রশাসন। প্রাথমিক কাজ সম্পন্নে একটি উপ-কমিটি গঠিত হয়েছিল।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়