BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৭:৫৮

সরকারি চাকুরির প্রলোভন : চট্রগ্রামে প্রতারক চক্রের মূল হোতা আলম গ্রেপ্তার 

চট্টগ্রাম, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ (বাসস) : সরকারি বিভিন্ন সংস্থায় চাকুরি দেওয়ার কথা বলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়া একটি প্রতারক চক্রের মূল হোতা সোহেল আলমকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম। 
গতকাল দুপুরে হাটহাজারী পৌরসভার পশ্চিম দেওয়ান নগর বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের পাশে একটি দোকান থেকে তাকে আটক করা হয়। 
র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আজ জানানো হয়, মিঠুন চক্রবর্তী নামে এক গাড়িচালককে সরকারি চাকুরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৬ লক্ষ টাকা দাবি করে সোহেল ও তার সহযোগী জসিম। হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ড্রাইভার পদে চাকুরির দেয়ার মিথ্যা আশ^াসে মিঠুন তাদেরকে গত ১৫ জুলাই সকাল ১০ টায় আড়াই লক্ষ টাকা এবং পরে আরো আড়াই লক্ষ টাকা দেয়। এরপর তাকে একটি নিয়োগপত্র দেয়া হয়। নিয়োগপত্রটি যাচাই-বাছাই করে মিঠুন জানতে পারেন, এটা একটা ভুয়া নিয়োগপত্র। বিষয়টি নিয়ে প্রতারক সোহেল ও তার সহযোগী জসীম উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বিভিন্ন ধরণের তাল-বাহানা শুরু করে ও হুমকি ধমকি  দেয়। মিঠুনের অনুনয়-বিনয় ও কান্নাকাটির পর সোহেল ১ লক্ষ টাকা ফেরত দেয় এবং বাকি টাকা পরে দেবে বলে আশ্বস্ত করে। কয়েকদিন পর আবার যোগাযোগ করলে সোহেল আলম জানায় তার কাছে টাকা নেই, সকল টাকা তার সহযোগী জসীম উদ্দিনকে দিয়ে দিয়েছে। এ নিয়ে প্রতারক সোহেল আলমের সাথে মিঠুন চক্রবর্তীর কথা কাটাকাটি হয়। এরপর টাকার জন্য খোঁজ নিতে গিয়ে দেখা যায়, দুই প্রতারকেরই মোবাইল ফোন বন্ধ। বিষয়টি হাটহাজারী বাজার সমিতিকে অবহিত করলে তারাও স্থানীয়ভাবে বিষয়টি সমাধান করতে ব্যর্থ হয়।
পরবর্তীতে ভুক্তভোগী মিঠুন চক্রবর্তী র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আবেদনের বিষয়টি আমলে নিয়ে র‌্যাব ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রাখে। র‌্যাব-৭ জানতে পারে, প্রতারক চক্রের মূল হোতা সোহেল আলম হাটহাজারী পশ্চিম দেওয়ান নগর পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের পাশে একটি দোকানে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল ২২ সেপ্টেম্বর দুপুর সাড়ে ১২ টায় র‌্যাব হাটহাজারী চারিয়া শিকদার পাড়ার মৃত ফয়েজ আহমদের পুত্র সোহেল আলম (৩৬)-কে  গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে সোহেল উল্লিখিত প্রতারণার কথা অকপটে স্বীকার করে।  সোহেল জানায়, সে ও তার সহযোগী জসীম উদ্দিন পরিকল্পিতভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ সাধারণ মানুষকে বিভিন্নভাবে প্রলোভন দেখিয়ে সরকারি বিভিন্ন সংস্থায় চাকুরি দেওয়ার কথা বলে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করে আসছে। আটক সোহেলকে হাটহাজারী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন