BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২২:৪২

মেট্রো রেলের সবগুলো ভায়াডাক্ট স্থাপন করা হয়েছে

ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি, ২০২২ (বাসস): উত্তরা ও মতিঝিলের মধ্যে দেশের প্রথম ২০.১০ কিলোমিটার দীর্ঘ ওভারহেড মেট্রো রেলটি আজ শেষ ভায়াডাক্ট স্থাপনের ফলে দৃশ্যমান হয়েছে।
ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন সিদ্দিক বলেন, সকাল ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পিয়ার নং-৫৮২ এবং পিয়ার নং-৫৮৩-এর মধ্যে শেষটি স্থাপনের মাধ্যমে বহুল প্রতীক্ষিত মেট্রো রেলের সবগুলো ভায়াডাক্ট স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হয়।
এক ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লাইন ৬ প্রকল্পের আওতায় বর্তমানে উত্তরা ফেইজ-৩ থেকে মতিঝিলের বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যে পল্লবী, রোকেয়া সরণী, খামারবাড়ি, ফার্মগেট, কারওয়ানবাজার, শাহবাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, দোয়েল চত্বর ও তোপখানা রোড সম্পূর্ণ দৃশ্যমান হয়েছে।
ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লাইন ৬ বা এমআরটি লাইন-৬ নামে পরিচিত এলিভেটেড রেললাইনটি ঢাকার উত্তরা সেক্টর-৩ এবং মতিঝিলের মধ্যে নির্মিত হচ্ছে।
সিদ্দিক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নগরবাসীর সহজ যোগাযোগ নিশ্চিত করতে এই প্রকল্প হাতে নিয়েছেন।
এর আগে ২০১৭ সালের ১ আগস্ট বাস্তবায়ন সংস্থা রেল প্রকল্পের জন্য ভায়াডাক্ট স্থাপন করা শুরু করে।
চলতি বছরের এপ্রিলের মধ্যেই প্রকল্প এলাকায় নির্মান কাজে ব্যবহৃত সকল রাস্তার অংশ ছেড়ে দেয়ার কথা ছিল বলেও জানান তিনি।
প্রকল্পের বিবরণ অনুযায়ী, সার্বিক নির্মাণ অগ্রগতি দাঁড়িয়েছে ৭০.০৪ শতাংশ, উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রো রেল নির্মাণের প্রথম পর্যায়ের ভৌত অগ্রগতি ৯০.০৮ শতাংশ।
আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত দ্বিতীয় পর্যায়ের ভৌত নির্মাণ কাজ ৭৩.০৮ শতাংশে  পৌঁছেছে, বৈদ্যুতিক ও যান্ত্রিক ব্যবস্থার সম্মিলিত অগ্রগতি এবং রোলিং স্টক (রেল কোচ) এবং ডিপো সরঞ্জাম সংগ্রহ ৭০.৯১ শতাংশ হয়েছে।
ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, কঠোর স্বাস্থ্য নির্দেশনা বজায় রেখে করোনাভাইরাস মহামারী চলাকালীন সবগুলো মেট্রো স্টেশনের নির্মাণ পুরোদমে চলেছে।
তিনি বলেন, চলমান করোনা পরিস্থিতিতে নিরাপত্তা বিধি মেনে চলমান কাজের গতি অব্যাহত থাকলে সময়মতো রেল প্রকল্পের কাজ শেষ হতে পারে।
কর্মক্ষমতা এবং সমন্বিত পরীক্ষার সফল সমাপ্তির পর মেট্রো রেলের প্রথম সেটটি ভায়াডাক্টে ট্রায়াল বা পরীক্ষামূল চালানো হবে।
প্রাথমিকভাবে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল রুটের দৈর্ঘ্য ছিল ২০.১০ কিলোমিটার। পরে এটি কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত সম্প্রসারিত হয় এবং ১.১৬ কি.মি. যোগ করা হয়। ফলস্বরূপ, স্টেশনের সংখ্যাও ১৬-এ উন্নীত হয়েছে। 
উত্তরা থেকে মতিঝিল-কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত ২১.২৬ কিলোমিটারের পুরো রুটটি ৪০ মিনিটেরও কম সময়ে ভ্রমণ করে মেট্রো রেল প্রতি ঘণ্টায় ৬০ হাজার যাত্রী বহন করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 
এছাড়া বহুল প্রতীক্ষিত মেট্রোরেলের বাণিজ্যিক কার্যক্রমের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী প্রবেশ ও বহির্গমন কাঠামো নির্মাণের কাজ চলছে।

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন