বাসস
  ২১ জুন ২০২৪, ১৮:৩৬

গাইবান্ধায় তিস্তা নদীর পানি বেড়েছে : তীরে ভাঙন শুরু

গাইবান্ধা, ২১ জুন, ২০২৪ (বাসস) : বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের কারণে আজ সকাল ৯টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার অন্যতম নদী তিস্তার পানির উচ্চতা বেড়েছে। 
বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয় সূত্র জানায়, এ সময়ে নদীর পানির উচ্চতা ৩৩ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে এবং আজ সকালে কাউনিয়া পয়েন্টে নদী বিপদসীমার ৫৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। 
নদীর পানি জেলার সুন্দরগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমা স্পর্শ করছে। উপজেলার নদী অববাহিকা এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে পাট ও গ্রীষ্মকালীন সবজিসহ স্থায়ী ফসলের জমি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। নদীর ডান ও বাম তীরসহ বিভিন্ন স্থানে ভাঙনে তীরের বাসিন্দাদের উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। 
সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়নের ভাটিকাপাসিয়া গ্রামের বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানা, তার অন্তত ৩ বিঘা ফসলি জমি ইতোমধ্যে নদীগর্ভে তলিয়ে গেছে। 
ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জু মিয়া বলেন, ভাঙন কবলিত অনেক মানুষ তাদের বসতভিটা ছেড়ে পার্শ্ববর্তী বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও অন্যান্য নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। 
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ওয়ালিফ মন্ডল জানান, উপজেলার তারাপুর, বেলকা, চন্ডিপুর, হরিপুর, শ্রীপুর ও কাপাসিয়া ইউনিয়নের নিচু এলাকা প্লাবিত হওয়ায় একগ্রাম থেকে অন্যগ্রামে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম এখন নৌকা। 
সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের পাঠানো তথ্যে জানা গেছে, বন্যায় ইউনিয়নের ১ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। 
বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির লিখিত তালিকা এখন পর্যন্ত ইউপি চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে পাওয়া যায়নি, তাদের কাছ থেকে তালিকা পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
ইউএনও তরিকুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বন্যা দুর্গতদের দুর্ভোগ কমাতে উপজেলা প্রশাসন বন্যা মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছে।
এ সময় জেলার অন্যান্য প্রধান নদ-নদীর পানির উচ্চতাও বৃদ্ধি পেয়েছে বলে সূত্র জানায়। 

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়