BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৮:০১
আপডেট  : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৮:০৪

সৌধের আয়োজনে বিশ্বব্যাপী নজরুলের বিদ্রোহী, এলিয়টের ওয়েস্টল্যান্ড কবিতার শতবর্ষ উদযাপন

ঢাকা, ৩০ নভেম্বর, ২০২১ (বাসস) : জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের অমর কবিতা ‘বিদ্রোহী’ এবং ইংরেজ কবি টি এস এলিয়টের যুগান্তকারী কবিতা ‘ওয়েস্টল্যান্ড’-এর গৌরবময় শতবর্ষ এবার উদযাপিত হচ্ছে বাংলাদেশ এবং ভারতের বিভিন্ন ভেন্যুতে।
এতে বিংশ শতকের এই দুই মহান কবিতা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি চলছে ‘দ্য রেবেল এন্ড দ্য ওয়েস্টল্যান্ড’ শীর্ষক কাব্যনাট্য পরিবেশনাও। ইতিমধ্য্যে সিলেটে চোখ ফিল্ম সোসাইটির ব্যবস্থাপনায় এটি শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মিনি অডিটোরিয়ামে মঞ্চস্থ হয়। এছাড়া, এটি যুক্তরাজ্যের লিডস শহরের সেভেন আর্টস থিয়েটারে ২ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে গত ১৪ নভেম্বর ইস্ট-লন্ডনের রিচমিক্স থিয়েটারে মঞ্চস্থ হয়।
আগামী ৮ ডিসেম্বর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবনানন্দ অডিটরিয়াম, ৯ ডিসেম্বর ঢাকায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত এবং নৃত্যকলা মিলনায়তন, ১০ ডিসেম্বর ঢাকার তেজগাঁও কলেজ অডিটরিয়ামে এটি প্রদর্শিত হবে। এর পর এই বিশেষ কাব্যনাট্য মঞ্চস্থ হবে কলকাতার নজরুল তীর্থ অডিটরিয়ামে ১৩ ডিসেম্বর। আগামী বছর এটি ইউরোপের বিভিন্ন শহরে মঞ্চস্থ হবার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সৌধের প্রতিষ্ঠাতা এবং থিয়েটার পরিবেশনার পরিচালক টি এম আহমেদ কায়সার।
ভারতীয় মার্গসঙ্গীত ও দক্ষিণ এশীয় শিল্প, সাহিত্য, সঙ্গীতের শীর্ষ সংস্থা সৌধ সোসাইটি অব পোয়েট্রি এন্ড ইন্ডিয়ান মিউজিকের প্রযোজনায় অনুষ্ঠিত এই বিশ্বব্যাপী শতবর্ষ উদযাপনে বাংলাদেশে সার্বিক সহযোগিতা ও ব্যবস্থাপনায় থাকছে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চোখ ফিল্ম সোসাইটি, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবনানন্দ গবেষণা কেন্দ্র, ঢাকাস্থ নজরুল সেন্টার এবং রাধারমন চর্চা কেন্দ্র।
দ্য রেবেল এন্ড দ্য ওয়েস্টল্যান্ডের পরিচালক টি এম আহমেদ কায়সার জানিয়েছেন, দ্য রেবেল এন্ড ওয়েস্টল্যান্ড শীর্ষক কাব্যালেখ্যে থাকছে দুই কবিতার নির্বাচিত অংশ থেকে পাঠ, আনুষঙ্গিক সঙ্গীত এবং এলিয়ট ও নজরুলের চরিত্রের নাট্য-দৃশ্যায়ন।
এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে টি এম আহমেদ কায়সার আরো জানান, এলিয়ট এবং নজরুলের মত মহান কবির অনন্য সাহিত্যকর্ম ওয়েস্ট ল্যান্ড ও বিদ্রোহী নিঃসন্দেহে বিংশ শতকের আধুনিক কাব্য-ইতিহাসে এক উল্লেখযোগ্য ঘটনা। দ্য রেবেল এন্ড দ্য ওয়েস্টল্যান্ডের মঞ্চায়নে আমরা বেছে নিয়েছি কিছু সাংকেতিক মিল বা সাদৃশ্যের জায়গা; যেখানে এলিয়ট শেষ করছেন ভারতীয় মহামন্ত্র শান্তি! শান্তি! শান্তি উদ্ধৃত করে, সেখানে, অন্যদিকে, উপনিবেশবাদ-বিরোধী বাঙালি কবি নজরুল গাইছেন তার সর্বপ্লাবী বিদ্রোহের ইশতেহার! স্ফুলিঙ্গ জ্বলে উঠছে কবিতার ছত্রে ছত্রে - এতেও কি প্রকারান্তরে নিহিত আছে শান্তি অন্বেষণ বা অবগাহনের ইঙ্গিত?
আহমেদ কায়সার জানান, এই উদযাপনের মধ্য দিয়ে তারা বিশ্বের দুই প্রধান কবিতার শক্তি, সৌকর্য ও সুষমা আরও বিপুলভাবে পৌঁছে দিতে চান বিবিধ সংস্কৃতি ও বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর মানুষের কাছে। এই অভিনব কাব্য-আলেখ্যে অভিনয়, আবৃত্তি, অথবা নাটকীয় দৃশ্য-পরিক্রমার সঙ্গে রয়েছে হৃদয়স্পর্শী সঙ্গীতও। ফলে, দর্শকেরা নাটক বা কবিতার সৌন্দর্য্যরে পাশাপাশি সঙ্গীতের ঘোর নিয়েই বাড়ি ফিরবেন বলে আশা তার।
এই পরিবেশনায় টি এস এলিয়টের ভূমিকায় থাকছেন বৃটিশ লেখক মাইক শরীফ, নজরুলের ভুমিকায় সৈয়দ আঞ্জম সাইমুম ইভান এবং অধ্যাপক শিব কুমার হিসাবে থাকছেন টি এম আহমেদ কায়সার। কবিতা থেকে পাঠ করবেন তামিরা মিজান চৌধুরি, ড. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, ড. শর্মি হোসেন এবং এক বিশেষ চরিত্রে থাকছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ।
 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন