BSS-BNhrch_cat_news-24-5
বাসস
  ০৩ আগস্ট ২০২১, ২২:২৭

দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রাণীসম্পদ চাষীদের সহায়তার জন্য এডিবি ও নিউ হোপের চুক্তি স্বাক্ষর

ঢাকা, ৩ আগস্ট, ২০২১ (বাসস) : এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) এবং নিউ হোপ সিঙ্গাপুর প্রাইভেট লিমিটেড (এনএইচএস) বাংলাদেশসহ দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আটটি দেশের হাঁস-মুরুগি, জলজ চাষাবাদ এবং অন্যান্য প্রাণীসম্পদ চাষীদের কোভিড-১৯ মহামারিকালে তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সহায়তা করতে ২ কোটি ডলারের ঋণ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।
এডিবির বেসরকারী খাতের কার্যক্রম বিভাগের কৃষি ব্যবসা বিনিয়োগ ইউনিটের প্রধান মার্টিন লেমোইন বলেন, “কোভিড-১৯ এর বিরূপ অর্থনৈতিক প্রভাবে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোতে যদি মহামারির বিধি-নিষেধ জারি থাকে তাহলে পশু খাদ্যের মতো কৃষি উপাদানের ঘাটতির কারণে খাদ্যের প্রাপ্যতা, দাম এবং দারিদ্রের ওপর মারাত্মক প্রভাব পড়বে।”
মার্টিন বলেন, “খাদ্য নিরাপত্তায় গবাদি পশু একটি প্রধান ভূমিকা পালন করে। কারণ ক্ষুদ্র চাষীরা খাদ্য ও আয়ের জন্য এটির ওপর নির্ভর করে। এডিবির ঋণ সাশ্রয়ী মূল্যে প্রোটিনের সরবরাহ, সেইসাথে ক্ষুদ্র চাষীদের জীবিকা সংরক্ষণে সহায়তা করবে।”
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই অর্থায়ন বাংলাদেশ, কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, লাও পিপলস ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক, নেপাল, ফিলিপাইন, শ্রীলঙ্কা এবং ভিয়েতনামে এনএইচএসের বর্ধিত কার্যকরী মূলধনের চাহিদা এবং পরিচালন ব্যয় নির্বাহে সহায়ক হবে।
এই তহবিল পশুখাদ্য উৎপাদনের জন্য কাঁচামাল ক্রয়, সুবিধাদির সম্প্রসারণ এবং পশুখাদ্য বিতরণকারী ও পশুসম্পদচাষীদের পাওনা পরিশোধের মেয়াদ বৃদ্ধি এবং কর্মীদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম সরবরাহে ব্যবহৃত হবে।
এনএইচএস দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার হাঁস-মুরগি, জলজচাষাবাদ এবং অন্যান্য পশুপালনকারী প্রায় ২ লাখ কৃষকের জন্য পশুখাদ্য এবং প্রযুক্তি পরিষেবা সরবরাহ করবে।
ঋণের পরিপূরক হিসাবে এডিবি এনএইচএসকে জলবায়ু পরিবর্তনে সহিষ্ণু সর্বোত্তম কৃষি অনুশীলন এবং ঋণ সুবিধা কাজে লাগানো ও আর্থিক সাক্ষরতার উপর বাংলাদেশ এবং ফিলিপাইনের ৭ হাজার ২০০ মহিলাকে হাঁস-মুরগি এবং মাছচাষীকে প্রশিক্ষণে কারিগরি সহায়তা দেবে।
চীনের বৃহত্তম কৃষি ব্যবসা উধ্যোগ নিউ হোপ লিউহে কোম্পানি লিমিটেডের সিঙ্গাপুরে নিবন্ধিত কোম্পানি এনএইচএস (নিউ হোপ সিঙ্গাপুর প্রাইভেট লিমিটেড)।

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
বেটা ভার্সন