বাসস দেশ-৩৪ : অবকাঠামোর সমন্বিত মাস্টার প্ল্যান সময়ের দাবি : নসরুল

351

বাসস দেশ-৩৪
পরিকল্পনা-বিদ্যুৎ-উন্নয়ন
অবকাঠামোর সমন্বিত মাস্টার প্ল্যান সময়ের দাবি : নসরুল
ঢাকা, ২ মার্চ, ২০১৯ (বাসস) : বিদুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ আজ অবকাঠামোগত ও টেকসই উন্নয়নের জন্য সমন্বিত মাস্টার প্ল্যাানের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। প্রতিমন্ত্রী আজ ফোরাম ফর এনার্জি রিপোর্টার্স বাংলাদেশ (এফইআরবি) আয়োজিত ঢাকা-চাঁদপুরে এক নৌবিহারে ‘মিট দ্য এনার্জি রিপোর্টার্স’-শীর্ষক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘দেশের টেকসই উন্নয়নে অবকাঠামোর সমন্বিত মাস্টার প্ল্যান এখন সময়ের দাবি।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাপী বৈদ্যুতিক গাড়ির চাহিদা বাড়ছে। ভবিষ্যতে নগরবাসী এসব গাড়ি ব্যবহার করবে। কিন্তু তা ব্যবহারের জন্য একটি নীতিমালা তৈরির প্রয়োজন রয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে নসরুল বলেন, সময়ের প্রয়োজনে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়লেও তা সাধারণ মানুষের বোঝা হবে না। ‘আমরা সহনীয় মূল্যে জ্বালানি ও বিদুৎ সরবরাহ করা হবে’ উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইইউই) ও সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। ‘পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপন, তেল শোধানাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রির জন্য বাংলাদেশে নতুন বৈদেশিক বিনিয়োগ আসছে। তিনি বলেন, দীর্ঘকালব্যাপী এলএনজি সরবরাহ ও ভূমি-ভিত্তিক এলএনজি সংগ্র্েরহর টারমিনাল গড়ে তোলার জন্য বাংলাদেশ ও আমিরাত এক সমঝোতা স্মারক (এম ওইউ) স্বাক্ষর করেছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক আবুধাবি, আমিরাত সফরের বর্ণনা দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, দুইটি ফেসে ৮০০ থেকে ১০০ মেগাওয়াট এলএনজি পাওয়ার প্ল্যান্ট নির্মাণ সেই সঙ্গে ১০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য আরো একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৬০,০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য বাংলাদেশের ৭০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ প্রয়োজন ও ২০৪১ সাল নাগাদ জ্বালানি খাতের অপর উন্নয়নের জন্য আরো ৩০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের প্রয়োজন।
কয়লা উত্তোলন প্রসঙ্গে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যথাযথভাবে পরিবেশ সংরক্ষণ করে স্থানীয়দের মতামতের ভিত্তিতে আধুনিক প্রযুক্তিতে কয়লা উত্তোলন করার উদ্যোগ নেয়া হবে। এফইআরবি-এর চেয়ারম্যান অরুণ কর্মকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগহঠনের নির্বাহী পরিচালক সদরুল হাসান।
পরে প্রতিমন্ত্রী সংগঠনটির নতুন ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার নিরবচ্ছিন্ন মানসম্মত বিদ্যুতের যোগান দেয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। আমরা শহরাঞ্চলে নেট ম্যাটারিং সিস্টেম এগিয়ে নেয়ার জন্য ছাদের ওপর সোলার প্যানেল বসানোয় জনসাধারণকে উৎসাহিত করছি।
বাসস/অনু-জেজেড/২১১০/-কেএমকে