বাসস দেশ-৪৮ : সুনামগঞ্জের শাল্লার ঘটনায় ২৯ আসামীর রিমান্ড মঞ্জুর

50

বাসস দেশ-৪৮
শাল্লা- আসামী – রিমান্ড
সুনামগঞ্জের শাল্লার ঘটনায় ২৯ আসামীর রিমান্ড মঞ্জুর
সিলেট, ২৩ মার্চ, ২০২১ (বাসস) : সুনামগঞ্জের শাল্লায় ঘটনায় মূল আসামী স্বাধীন মেম্বারসহ মোট ২৯ জনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
আজ মঙ্গলবার সুনামগঞ্জের জ্যেষ্ঠ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শ্যাম কান্ত সিংহ এ আদেশ দেন। সুনামগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. সেলিম নেওয়াজ জানান, মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া প্রধান আসামি শহিদুল ইসলাম ওরফে স্বাধীন (৫০)কে ৫ দিন ও বাকি অন্য ২৮ জন আসামিকে ২ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
শাল্লা থানা পুলিশ জানায়, শহিদুল ইসলাম ওরফে স্বাধীন (৫০) দিরাই উপজেলার সরমঙ্গল ইউনিয়নের নাসনি গ্রামের বাসিন্দা ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। ঘটনার দুইদিনের মাথায় গত শুক্রবার রাতে মৌলভীবাজারেরর কুলাউড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাল্লা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আবুল বাশার গত রোববার এ মামলার প্রধান আসামী স্বাধীনকে ১০ দিন এবং গ্রেফতার হওয়া আরও ২৯ জনকে ৫ দিন করে রিমান্ডের জন্য আদালতে আবেদন করেন। আজ মঙ্গলবার আদালতে রিমান্ড শুনানি শেষে মোট ২৯ জনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। ১ জনের রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করা হয়।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ মার্চ সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা সদরে শানে রিসালাত সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র করে ওই দিন রাতে শাল্লা উপজেলার হবিবপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের গোপেন্দ্র দাসের ছেলে ঝুমন দাস আপনের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেইসবুকে) ভাইরাল হয়। এ নিয়ে ওই এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়, প্রচন্ড সমালোচনার মুখে ঝুমন দাসকে পরদিন রাতে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পুলিশ আটক করে। পরে পুলিশ ঝুৃমন দাস এর বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমাজে শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট করার অপচেষ্টায় লিপ্ত থাকার অভিযোগ এনে ৫৪ ধারায় আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। ঝুমন দাস এখনো জেল হাজতে রয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা রুজু করা হয়। এ দুটি মামলায়, ৩৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত উক্ত গ্রামে পুলিশ ও র‌্যাবের পৃথকভাবে অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এ ঘটনার পর সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, পুলিশের সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও গত ১৮ মার্চ র‌্যাবের মহাপরিচালক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বর্তামনে নোওয়াগাঁও গ্রামে সার্বিক পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জোরালো তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।
বাসস/সবি/এমএআর/২০২৩/অমি