বাসস দেশ-৩৪ : সিলেটে রিজেন্ট হাসপাতালের সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

118

বাসস দেশ-৩৪
সাহেদ-গ্রেফতারি পরোয়ানা
সিলেটে রিজেন্ট হাসপাতালের সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
সিলেট, ৮ নভেম্বর, ২০২০ (বাসস) : রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের বিরুদ্ধে চেক ডিজঅনারের ৩ মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন সিলেটের একটি আদালত।
আজ রোববার সিলেট জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট-১ আদালতের বিচারক হারুনুর রশীদ তার বিরুদ্ধে এ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের এপিপি ও বাদিপক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মো. আবদুস সাত্তার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ।
এরআগে গত ৩ এপ্রিল সাহেদের দেওয়া ১০ লাখ টাকা করে ২ টি চেকে ২০ লাখ টাকা ও আরও একটি চেকে ৫০ হাজার টাকা নির্ধারিত সময়ে না পাওয়ায় ৩টি মামলা করেন সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত এলাকার পাথর ব্যবসায়ি শামসুল মৌলা নামের এক ব্যক্তি। তার করা এ তিন মামলায় সাহেদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট জারি করেন আদালত।
সিলেট জৈন্তাপুরের পাথর ব্যবসায়ি, ‘মাওলা স্টোন ক্রাশার মিল’র স্বত্বাধিকারী শামসুল মৌলা জানান, সাহেদ আমার কাছ থেকে পাথর নিয়েছিলেন। পাথর নেওয়ার পর তিনি চেকগুলো দিয়েছিলেন। তাঁর নিজের স্বাক্ষর করা এ ৩ চেকে ২০ লাখ ৫০ হাজার টাকা। তিনি আরও একটি চেক দিয়েছিলেন। ওই চেক অন্যজনের নামে। পরবর্তিতে আমি টাকার জন্য তাঁর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি আমাকে হুমকিধামকি দিতেন। ক্ষমতা দেখাতেন। আমি গত ৩ এপ্রিল তার বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতির ৩ টি মামলা করেছি। আজ রোববার এসব মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুনানিকালে বিবাদিপক্ষের আইনজীবি সাহেদের জামিনের আবেদন করলে সিলেট চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (১ম) আদালতের বিচারক হারুনুর রশিদ জামিনের আবেদন নাকচ করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।
করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট প্রদান, অর্থ আত্মসাতসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতারণার অভিযোগে গত ১৫ জুলাই সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত এলাকা থেকে রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে মো. সাহেদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।
এরআগে ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুর শাখায় অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে ভুয়া করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট, করোনা চিকিৎসার নামে রোগীদের কাছ থেকে অর্থ আদায়সহ নানা অনিয়ম উঠে আসে। পরে রিজেন্টের উত্তরা ও মিরপুর শাখা সিলগালা করে দেয়া হয়।
বাসস/সংবাদদাতা/এফএইচ/২২২১/আরজি