বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের পর্যটন খাতের বিকাশে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির উপর রাষ্ট্রপতির গুরুত্বারোপ

373

ঢাকা, ২৯ অক্টোবর, ২০২০ (বাসস) : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের পর্যটন খাতের বিকাশে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেছেন।
বাংলাদেশে নিযুক্ত মালদ্বীপের হাইকমিশনার আয়শাথ শাহন শাকির আজ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সাথে বিদায়ী সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি একথা বলেন।
জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে বাংলাদেশ এবং মালদ্বীপের অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থানের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি এ ইস্যুতে সমন্বিতভাবে আরো জোরালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।
সাক্ষাৎ শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন বাসসকে জানান, মালদ্বীপ বাংলাদেশের খুবই ভালো বন্ধু বলে আবদুল হামিদ উল্লেখ করেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, বাংলাদেশ মালদ্বীপের সাথে সম্পর্ককে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয়।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ এবং মালদ্বীপ আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ফোরামে বিভিন্ন ইস্যুতে অভিন্ন মনোভাব পোষণ এবং একে অপরকে সমর্থন ও সহযোগিতা করে থাকে।
রাষ্ট্রপতি বলেন, মালদ্বীপে প্রায় এক লাখ বাংলাদেশী কর্মরত আছে। তারা উভয় দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।
রাষ্ট্রপতি সফলভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য মালদ্বীপের বিদায়ী হাইকমিশনারকে ধন্যবাদ জানান।
মালদ্বীপের বিদায়ী হাইকমিশনার বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনকালে সার্বিক সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ থেকে খাদ্য, ওষুধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী পাঠানের জন্য তিনি মালদ্বীপ সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের জনগণ ও সরকারকে ধন্যবাদ জানান।
রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম শামীম উজ জামান, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন এবং রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব (সংযুক্ত) মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।