জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার : পরিবেশ মন্ত্রী

155

ঢাকা, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ (বাসস) : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সামুদ্রিক পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, এজন্য দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ডের ১ হাজার ৭৩৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা মেরিন প্রটেকটেড এরিয়া হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এতে বিভিন্ন প্রজাতির বিপন্ন সামুদ্রিক ডলফিন, তিমি ও হাঙ্গরের সংরক্ষণ ও বংশ বৃদ্ধিতে সহায়ক হচ্ছে।
মন্ত্রী আরো বলেন, এছাড়াও সেন্টমার্টিন দ্বীপ সংলগ্ন ১ হাজার ৭৪৩ বর্গ কিলোমিটার জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করার জন্য মেরিন প্রটেকটেড এরিয়া হিসেবে ঘোষণা করার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। বঙ্গোপসাগরে জলজ জীববৈচিত্র্য বিশেষ করে ডলফিন সংরক্ষণের টেকসই ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
শাহাব উদ্দিন আজ সকালে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে সাগরে জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিকারী সংগঠন সেভ আওয়ার সি’র উদ্যোগে আয়োজিত ‘‘আন্ডারওয়াটার ন্যাচার এক্সিবিশন এন্ড ডিসকাশন’’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে অনলাইনে দেয়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওয়েবিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিসারি, অ্যাকুয়াকালচার এবং মেরিন সায়েন্স বিভাগের ডিন প্রফেসর ড. কাজী আহসান হাবিব, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মুসলেম উদ্দিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক রাকিব আহমদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ড. দীনেশ চন্দ্র সাহা এবং ব্লু ইকোনমি গবেষক ড. দিলরুবা চৌধুরী।
ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন সেভ আওয়ার সি’র সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক।
জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী বলেন, দেশের সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকায় পরিবেশ সুরক্ষার জন্য সেন্টমার্টিন দ্বীপ, কক্সবাজার-টেকনাফ সমুদ্র সৈকত এবং সুন্দরবনকে পরিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা (ইসিএ) হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, এ সকল এলাকায় পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমসহ পরিবেশ সংরক্ষণে বিভিন্ন ধরণের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। আর সরকার ঘোষিত ইসিএ যথাযথভাবে কার্যকরের মাধ্যমে এ সকল এলাকার জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে।
বন মন্ত্রী বলেন, এছাড়াও উপকূলের দূষণ প্রতিরোধে ৫২টি স্থানকে হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে, যেখানে দূষণ প্রতিরোধে কাজ করা হচ্ছে।
সমুদ্রের বায়োডাইভার্সিটি এসেসমেন্টের জন্যও প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে উল্লেখ করে পরিবেশ মন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ভবিষ্যতে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ গড়ার লক্ষ্যে যুগান্তকারী ১০০ বছরের ডেল্টা প্লান বাস্তবায়ন করছে।
ওয়েবিনারে দেশে ও বিদেশে বসবাসকারী ডুবুরীদের পানির নিচের সৌন্দর্যের স্থির ও ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

image_printPrint