করোনাকালে ১ লাখ ১১ হাজার ১১১জন বাংলাদেশী কর্মী দেশে ফিরেছে : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

473

ঢাকা, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ (বাসস) : বৈশ্বিক মহামারী করোনাকালে এ পর্যন্ত ১ লাখ ১১ হাজার ১১১জন প্রবাসে কর্মরত বাংলাদেশী কর্মী দেশে ফিরে এসেছেন।
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ আজ সংসদে ৩০০ বিধিতে দেয়া বিবৃতিতে এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, ফেরত কর্মীদের মধ্যে প্রায় সবাই কর্মকালের মেয়াদ শেষে অথবা সেখানে কাজ না থাকায় দেশে এসেছেন। ফলে করোনাকালে এ ফেরত আসার হার এখন পর্যন্ত আশংকাজনক নয়। আর ফেরত আসা কর্মীদের সামাজিক ও আর্থিকভাবে পুর্নবাসনে কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো ৫শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। এছাড়া বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় ৪শ’ কোটি টাকার একটি প্রকল্প বাস্তবায়নেরও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, এর বাইরে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক বিদেশ ফেরত কর্মী ও তার পরিবারকে শতকরা ৪ ভাগ সুদে ৫লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ প্রদান করছে। আর করোনাকলে বিদেশে বাংলাদেশী কর্মীদের বিভিন্ন সহযোগিতায় এ পর্যন্ত ১৩ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে।
মন্ত্রী বলেন, চলতি অর্থ বছরের জুন থেকে এ আগস্ট পর্যন্ত প্রবাসী কর্মীর ৪.৫৬ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। গত অর্থ বছরের তুলনায় এটা শতকরা ১.৫ ভাগ বেশী। প্রধানমন্ত্রীর শতকরা ২ ভাগ ইনসেনটিভ ঘোষণার কারণে এটা সম্ভব হয়েছে।
তিনি জানান ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে রেমিট্যান্স পাঠানো হয় ১৬.৪ বিলিয়ন ডলার। আর ২০১৯-২০ অর্থ বছরে ১৮.২ বিলিয়ন ডলার, যা পূর্ববর্তী অর্থ বছরের তুলনায় শতকরা ১১ ভাগ বেশী।
মন্ত্রী বলেন, করোনাকাল এবং পরবর্তীতে বিদেশে বিদ্যমান শ্রম বাজার ধরে রাখা এবং নতুন বাজার খোজার উদ্যোগ অব্যাহত রয়েছে। এ বিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক সাথে কাজ করছে।