বাসস বিদেশ-৯ : অভ্যুত্থানের গুজব উড়িয়ে দিল জিম্বাবুয়ে সরকার

196

বাসস বিদেশ-৯
জিম্বাবুয়ে -অভ্যুত্থান
অভ্যুত্থানের গুজব উড়িয়ে দিল জিম্বাবুয়ে সরকার
হারারে, ১১ জুন, ২০২০(বাসস ডেস্ক) : জিম্বাবুয়ের শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তারা দেশটিতে অভ্যুত্থান আসন্ন এ ধরণের খবরকে গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছে।
দেশটির অভিজ্ঞ ও প্রবীণ নেতা রবার্ট মুগাবেকে সেনাবাহিনীর সমর্থনে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়ার দু’বছর পর নতুন করে সেনা অভ্যুত্থানের পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে খবর ছড়ানো হয়েছে।
সেনাবাহিনী ও পুলিশ প্রধানের সমন্বয়ে গঠিত একটি বিশেষ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ গুজব ছড়ানোর জন্যে বিরোধী রাজনীতিবিদ, সাবেক ক্ষমতাসীন দল জানু পিএফ পার্টির সদস্য, মিডিয়া, পশ্চিমা কূটনীতিক, ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজকে দায়ী করেছে।
বুধবার এক বিবৃতিতে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ বলেছে, জিম্বাবুয়ে সরকার গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছে সম্প্রতি সেনা অভ্যুত্থান আসন্ন বলে ব্যাপক গুজব ছড়ানো হচ্ছে।
সরকার দ্ব্যর্থহীনভাবে এসব গুজব উড়িয়ে দিচ্ছে উল্লেখ করে পরিষদ বলছে, কোন অভ্যুত্থান সংঘটিত হচ্ছে না।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী কাজেমবে কাজেমবে বিবৃতিটি পড়ে শোনান।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের নভেম্বরে সেনা অভ্যুত্থানে মুগাবে পদত্যাগে বাধ্য হয়েছিলেন।
এর তিন দিন পর মুগাবের ভাইস প্রেসিডেন্টদের একজন এমার্সন মাংগাগাবা প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।
পরিষদ বলছে, মাংগাগাবা তার অপর দুই ভাইস প্রেসিডেন্ট ও কেবিনেটের সাথে সৌহার্দময় ও পারষ্পরিক সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন।
জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ আরো বলছে, অভ্যুত্থান পরিকল্পনার এই গুজব ছড়ানোর উদ্দেশ্য প্রেসিডেন্টের ইমেজ নষ্ট, সরকারের বৈধতাকে খাটো এবং দেশকে কর্তৃত্ব শূণ্য করা।
বাসস/জুনা/১৯১৭/জেহক