ইংল্যান্ডে ‘দ্য হান্ড্রেড ক্রিকেটে’ ওয়েলস ফায়ারের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ

80

লন্ডন, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ (বাসস) : বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি নেতৃত্ব হারানোর দুই বছর পর ফের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ান তারকা স্টিভ স্মিথ। তবে সেটা অস্ট্রেলিয়া দলের নয়, ইংল্যান্ডে শুরু হতে যাওযা নতুন ভার্সন ‘হান্ড্রেড ক্রিকেট (একশ বলের)’ টুর্নামেন্টে ওয়েলস ফায়ারের অধিনায়ক করা হয়েছে তাকে।
স্মিথের নেতৃত্বাধীন দলে থাকবেন সতীর্থ অস্ট্রেলীয় ফাস্ট বোলার মিচের স্টার্ক। সেই সঙ্গে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য জনি বারেস্টো, লিয়াম প্লাঙ্কেট এবং উদীয়মান তারকা টম ব্যাটনের সঙ্গে থাকছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসার রাবি রামপাল।
২০১৮ সালে দক্ষিন আফ্রিকার কেপ টাউন টেস্টে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে নেতৃত্ব হারানোর পাশাপাশি স্মিথকে এক বছরের জন্য ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)।
টেম্পারিং কেলেঙ্কারির সময় স্মিথের সহকারী হিসেবে অসি দলের নেতৃত্ব দেয়া ডেভিড ওয়ার্নার হয়েছিলেন ১২ মাসের জন্য নিষিদ্ধ। তবে দুইজনই প্রোটিয়াদের বিপক্ষে চলমান টি-২০ সিরিজ নির্ধারনী তৃতীয় ম্যাচে অস্টে্িরলয়ার হয়ে ্য নিউল্যান্ডসে পৌঁছানোর পরপরই বুধবার এই ঘোষনাটি আসল।
প্রতিক্রিয়ায় স্মিথ বলেন,‘ হান্ড্রেড ক্রিকেটের প্রথম বছরেই ওয়েলস ফায়ারের নেতৃত্ব পাওয়াটা দারুন সম্মানের বিষয়। বেশ ক’জন নামী-দামী খেলোয়াড়কে নিয়ে এই দলটি গঠিত হয়েছে, যারা বিগত কয়েক বছর ধরে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দারুন ফর্মে রয়েছেন।’
ওয়েলস ফায়ারের কোচ দক্ষিণ আফ্রিকারগ্যারি কার্স্টেন বলেন,‘ হান্ড্রেডের প্রথম মৌসুমে স্মিথের অভিজ্ঞতা এবং চাপের মধ্যে নেতৃত্ব দেয়ার দক্ষতা অবশ্যই দলকে সহায়তা করবে। স্মিথের নেতৃত্বাধীন ওয়েলস ফায়ারে এখনো পর্যন্ত ওয়েলসের কোন খেলোয়াড়কে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১৭ জুলাই তারা মুখোমুখি হবে ওভাল ইনভিনসিবলসের।
কাউন্টি ক্রিকেটের ঐতিহ্যকে ভেঙ্গে আটটি শহরকে ভিত্তি করে নতুন ফ্য্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট হিসেবে ‘হান্ড্রেড ক্রিকেট’ প্রবর্তন করেছে ইংল্যান্ড। ইনিংস হবে একশ বলের, যেখানে শেষ ওভারটি হবে ১০ বলের।

image_printPrint