এখনো অলিম্পিক বাতিলের মত কিছু হয়নি

69

টোকিও, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ (বাসস) : পরিকল্পনা মতই অলিম্পিকের প্রস্তুতি এগিয়ে যাচ্ছে এবং এখনো এই আয়োজন বাতিলের মত কোন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি বলে জানিয়েছে টোকিও অলিম্পিক আয়োজকরা। যদিও করোনাভাইরাসের কারনে ইতোমধ্যেই জাপানের সর্বোচ্চ পেশাদার ফুটবর লিগ জে-লিগ বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
টোকিওতে গ্রীষ্মকালীণ অলিম্পিক শুরু হতে আর মাত্র পাঁচ মাস বাকি রয়েছে। যদিও এখনই এ ব্যপারে কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিচ্ছেনা আয়োজক কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ইতোমধ্যেই বিশ্বব্যপী ছড়িয়ে পড়া ভয়াবহ করোনাভাইরাসের কারনে জাপানও আক্রান্ত হয়েছে। যে কারনে ঘরোয়া ফুটবল লিগ আপাতত মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
আগামী ২৪ জুলাই থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য অলিম্পিকে হাজার হাজার সমর্থক ও পর্যটকের ভিড় আশা করছে জাপান আয়োজক কমিটি। এছাড়াও এখানে হাজারো ক্রীড়াবিদ ও কর্মকর্তাদের অংশগ্রহনের বিষয়টিও সকলকে ভাবিয়ে তুলেছে। এক বিবৃতিতে টোকিও ২০২০’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘আমরা এখনো গেমস বাতিলের বিষয়ে কোন ধরনের আলোচনা করিনি। পরিকল্পনা মাফিকই গেমস আয়োজনের প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে।’
চায়নায় ইতোমধ্যেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রায় ২৭০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। চাইনিজ সুপার লিগের পাশাপাশি দক্ষিণ কোরিয়ার কে-লিগও স্থগিত হয়ে গেছে। ইতোমধ্যেই এই ভাইরাসের কারনে এশিয়ার ক্রীড়া ক্যালেন্ডার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। যে কারনে অলিম্পিককে সামনে রেখে পুরো বিষয়টি বেশ নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। যদিও সাত বছর ধরে প্রস্তুতি নেয়া অলিম্পিকের দিনক্ষণ এত তাড়াতাড়ি পরিবর্তনে নারাজ জাপান।
জে-লিগ চেয়ারম্যান মিটসুরু মুরাই এ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন সাময়িক ভাবে জাপানীজ ফুটবল লিগ বন্ধ করাটা সত্যিই অনেক বড় সিদ্ধান্ত। সোমবার একটি মেডিকেল প্যানেল জাপান সরকারকে সতর্ক করে বলেছে আগামী কয়েক সপ্তাহ বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়ে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ব্যপারে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।
ইতোমধ্যেই জাপানে ১৫৬ জনের দেহে এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

image_printPrint