রাজধানীতে কোরবানিকৃত পশুর বর্জ্য অপসারণ চলছে

186

ঢাকা, ১২ আগস্ট, ২০১৯ (বাসস) : রাজধানীতে কোরবানিকৃত পশুর বর্জ্য অপসারণ চলছে।
সোমবার সকাল ১০ টা থেকে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা মহানগরীর বিভিন্ন স্থান থেকে বিচ্ছিন্নভাবে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের কাজ করতে থাকে। তবে দুপুরের পর আনুষ্ঠানিকভাবে কোরবানির বর্জ্য অপসারণের কাজ শুরু হয়।
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ, উভয় সিটি কর্পোরেশন মিলিয়ে প্রায় ১৪ হাজার পরিচ্ছন্নকর্মী সোমবার দুপুর থেকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে কাজ করে যাচ্ছে।
এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পেরেশনের (ডিএনসিসি) পরিচ্ছন্ন কর্মী রয়েছে ৯ হাজার ৪ শ’ ৩৫ জন। বাকী সাড়ে ৪ হাজারের অধিক পরিচ্ছন্ন কর্মী দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি)।
এবার ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ উভয় সিটি কর্পোরেশনই প্রথম দিনে অর্থাৎ আজ সোমবার জবাইকৃত কোরবানির পশুর বর্জ্য ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপসারণ করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।
এ লক্ষ্যে উত্তর ও দক্ষিণ উভয় সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসহ বর্জ্যবহনের পর্যাপ্ত সংখ্যক যান নিয়ে বর্জ্য অপসারণের কাজে নেমেছে। এছাড়াও পবিত্র ঈদুল আজহার আগেই নগরীর সকল ওয়ার্ডে ময়লা-আবর্জনা রাখার ব্যাগ বিতরণ করা হয়।
এদিকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো.আতিকুল ইসলাম সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর উত্তরায় বর্জ্য অপসারণ কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
অপরদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পেরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে পুরান ঢাকার ধোলাইখালে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।
ডিএনসিসি’র মেয়র জানান, ঈদুল আজহা উপলক্ষে বর্জ্য পরিবহন সক্ষমতা কমপক্ষে ১০ হাজার টনে উন্নীতকরণে ইতোমধ্যেই প্রয়োজনীয় যান এবং যন্ত্রপাতি নিয়োজিত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ঈদের আগের দিন থেকে ঈদ-পরবর্তী ২ দিন ৪৩৮টি যান্ত্রিক যান নিরবচ্ছিন্নভাবে বর্জ্য অপসারণে নিয়োজত করা হয়েছে। এরমধ্যে বর্জ্যবাহী ড্রাম্প ট্রাক ও খোলা ট্রাক ১৬৯টি, প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসহ ভারী যান ২৮টি, পানির গাড়ি ১১টি, ২৩০টি পিকআপ ভ্যান রয়েছে। এসব পিকআপভ্যানের ১৪৮টি দিন-ভিত্তিতে ভাড়ায় চালিত বলে মেয়র উল্লেখ করেন।
এদিকে রাজধানীর বিভিন্ন মহল্লায় স্ব-উদ্যোগেও কোরবানির বর্জ্য পরিষ্কার করতে দেখা গেছে।

image_printPrint