বিশ্বকাপ শিরোপা জয় ইংলিশ ক্রিকেটের পুনর্জাগরনে সাহায্য করবে : মরগান

2950

লন্ডন, ১৫ জুলাই ২০১৯ (বাসস) : ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়োইন মরগান আশা করেন বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ে দলের ‘অসাধারণ যাত্রা’ ইংলিশ ক্রিকেটের নতুন প্রজন্মের সমর্থকদের অনুপ্রানীত করবে।
ক্রিকেটের জন্মভূমি হলেও দীর্ঘদিন ধরেই একটি বিষয় নিয়ে ইংলিশরা বিচলিত ছিল, ইংলিশ ক্রিকেটে দর্শকের সংখ্যা সে হারে বাড়ছে না। ২০০৫ সালের ইংল্যান্ডের ঐতিহাসিক এ্যাশেজ সিরিজ জয়ের পর থেকে ব্রিটেনের টেলিভিশনেও ক্রিকেটের পিছনে অলিখিত একটি ব্যয় ক্রমশই এই খেলাটির প্রতি সাধারণ দর্শকের বিমুখতা বাড়িয়ে তোলে। তবে রোববার লর্ডসে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব যে অসাধারণ, অবিশ্বাস্য, শ্বাসরুদ্ধকর একটি ফাইনাল উপভোগ করেছে তাতে এই পরিস্থিতির পরিবর্তন হবে বলে মরগানের বিশ্বাস। পুরো ইংল্যান্ডে ফাইনাল ম্যাচটি টেলিভিশনে বিনামূল্যে দেখানো হয়। ১২টি বিশ্বকাপ ফাইনালে এই প্রথম টাই ও সুপার ওভারের টানটান উত্তেজনা দেখেছে ক্রিকেট বিশ্ব।
চার বছর আগে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে ইংল্যান্ডের হতাশাজনক বিদায়ের পর থেকে যেভাবে তিলে তিলে ইংলিশরা নিজেদের প্রস্তুত করে তুলেছে তার পুরোটারই সাক্ষ্মী মরগান। তিনি বলেন, ‘আমি নিশ্চিত অংশগ্রহণের পর্যায় অবশ্যই উন্নত হবে। অবশ্যই এখানে অনেক কিছুই জড়িত। আজ এখানে উইম্বলডনের ফাইনালের সাথে সাথে সিলভারস্টোন জিপিও চলেছে। রোববার সন্ধ্যাটি এখানকার মানুষ সাধারণত সিনেমা কিংবা থিয়েটার দেখে কাটায়। কিন্তু আমি নিশ্চিত আজ তারা সেই সময়টুকু ক্রিকেটকে দিয়েছে।’
২৪২ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ইংল্যান্ড ২৪১ রানেই থেমে যায়। বেন স্টোকসের অপারজিত ৮৪ রানের ইনিংসটি ছিল ফাইনাল সেরা। মার্ক উড শেষ বলে রান আউট হলে ম্যাচটি সুপার ওভারে গড়ায়। এরপর ট্রেন্ট বোল্টের সুপার ওভারে ইংল্যান্ড ১৫ রান সংগ্রহ করার পর নিউজিল্যান্ড জোফরা আর্চারের বলে ঐ ১৫ রানই সংগ্রহ করে। নিউজিল্যান্ডের ১৭টির বিপরীতে ইংল্যান্ড ২৬টি হাঁকিয়ে বাউন্ডারি বিবেচনায় ইংল্যান্ডকে বিজয়ী ঘোষনা করা হয়। শেষ ওভারে গাপটিলের ডিফ্লেকটেড থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি হলে সেখানেই মূলত ইংল্যান্ডের সৌভাগ্য রচিত হয়েছিল।
ইংলিশ অধিনায়ক মরগান প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড ও কেন উইলিয়ামসনের প্রশংসা করতেও ভুল করেননি।

image_printPrint