বাসস দেশ-৩৪ : নৌপথের উন্নয়নে প্রয়োজনীয় করণীয় নির্ধারণপূর্বক কর্ম-পরিকল্পনা নিতে হবে : চিফ হুইপ

317

বাসস দেশ-৩৪
চীফ হুইপ-আলোচনা
নৌপথের উন্নয়নে প্রয়োজনীয় করণীয় নির্ধারণপূর্বক কর্ম-পরিকল্পনা নিতে হবে : চিফ হুইপ
ঢাকা, ৩ এপ্রিল, ২০১৯ (বাসস) : চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী নৌযান ও নৌপথের উন্নয়নে খোলামেলা আলোচনা করে প্রয়োজনীয় করণীয় নির্ধারণ করতে স্বল্প ও দীর্ঘকালীন কর্ম-পরিকল্পনা গ্রহণের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।
তিনি বলেন, ‘নৌযান ও নৌপথের উন্নয়নে আরো মুক্ত আলোচনা করে প্রয়োজনীয় করণীয় নির্ধারণ করতে স্বল্প ও দীর্ঘকালীন কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। নৌযান চলাচল গতিশীল করতে নদী দূষণের পথগুলো বন্ধ, নৌযানের সংখ্যা অনুযায়ী পাইলট ও সার্ভেয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং নৌযান ও যাত্রীদের নিরাপত্তার স্বার্থে বীমার ব্যবস্থা করতে হবে।’
নূর-ই-আলম চৌধুরী আজ বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
‘দূষণ, দখল মুক্ত করি, নৌযাত্রা নিরাপদ করি, বিশ্বমানের নৌ-ব্যবস্থার স্বপ্নকে সফল করি’-এ প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ- ২০১৯ উপলক্ষে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।
নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন।
চিফ হুইপ বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা আসত না আর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্ম না হলে এদেশের অর্থনৈতিক মুক্তি আসত না। বর্তমান সরকারের গতিশীল ও যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে ‘উন্নয়নের রোল মডেলে’ পরিণত হয়েছে।
তিনি বলেন, সরকার নদীর সীমানা রক্ষায় অবৈধ দখল ও স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম জোরালোভাবে পরিচালনা করছে।
চীফ হুইপ নৌপরিবহন খাতকে উন্নত ও লাভজনক খাতে পরিণত করতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় ও এর অধীন সকল দপ্তর , নৌপরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের একযোগে দক্ষতার সাথে কাজ করার আহবান জানান।
নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে সভায় নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম, আভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর মাহবুব উল ইসলাম, মিলিটারী ইন্সটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজির (এম আই এস টি) অধ্যাপক মো. রিযাজ হাসান খন্দকার প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
বাসস/সবি/জেডআরএম/২০১০/এএএ