ঢাকা, সোমবার, নভেম্বর ২০, ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংসদ : সংসদে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিল পাস   |   বিনোদন ও শিল্পকলা : কাল শুরু হচ্ছে ৩ দিনব্যাপী নবম যাত্রা উৎসব-২০১৭   |   রাষ্ট্রপতি : নেতৃত্বের প্রতি অনুগত থেকে সশস্ত্র বাহিনীকে তাদের গৌরব সমুন্নত রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি   |   জাতীয় সংসদ : দুগ্ধে স্বয়ং সম্পূর্ণতা অর্জনে ডেইরি বোর্ড প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে : ছায়েদুল হক * গত বছর ভিআইপিদের সফরে জ্বালানি বাবদ ৩৯ কোটি ৯৩ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : গাজীপুর ও রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ আইনের অনুমোদন মন্ত্রিসভায় * সরকার সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে সর্বাত্মক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী * প্রধানমন্ত্রীর এএসওসিআইও-২০১৭ ডিজিটাল গভর্নমেন্ট এ্যাওয়ার্ড গ্রহণ    |    অর্থনীতি : ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৯ শতাংশ   |   খেলাধুলার সংবাদ : হাসানের বিধ্বংসী বোলিং আর মালিকের দায়িত্বশীল ব্যাটিং জেতালো কুমিল্লাকে * ইউএসএইডের শুভেচ্ছা দূত হলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ *শেষদিনের উত্তেজনার পর ড্র হলো কোলকাতা টেস্ট   |   আবহাওয়া : আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশে আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে   |   শিক্ষা : জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বর্র্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তির ২য় রিলিজ স্লিপের আবেদন ২২ নভেম্বর শুরু * বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ২৪ ও ২৫ নভেম্বর   |    জাতীয় সংবাদ : ভারতের কংগ্রেস নেতা প্রিয় রঞ্জন দাসমুন্সির পরলোকগমন * আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভা আগামী বুধবার * বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে স্পেনের সহযোগিতার প্রশংসা স্পিকারের * ৭ মার্চ কেন ঐতিহাসিক জাতীয় দিবস নয় : জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট   |    বিভাগীয় সংবাদ : সুনামগঞ্জে রোপা আমনের বাম্পার ফলন * মতলব উত্তরে সৌর সোলার বিদ্যুতের আলোতে জ্বলছে গ্রামীণ সড়ক বাতি *নাটোরে মা ও ছেলেকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে যুবক গ্রেফতার * শাবির ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : পাকিস্তানে ভ্যানের ওপর ট্রাক উল্টে নিহত ২০ * কলম্বিয়ায় বাস দুর্ঘটনায় নিহত ১৪ * নিউ ক্যালেডোনিয়া উপকূলে শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা জারি *জার্মানীতে জোট গঠনের আলোচনা ভেস্তে যাওয়ায় মার্কেলের দুঃখ প্রকাশ   |    জাতীয় সংবাদ : নারীর প্রতি সহিংসতার সব অভিযোগ লিপিবদ্ধ হয় না : তথ্যমন্ত্রী * শাহজালালে কম্বলের ভেতর থেকে প্রায় ৭ কেজি স্বর্ণ জব্দ, আটক ১ * রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় তারেক রহমানসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন * ২১ আগস্ট হামলায় ব্যবহৃত গ্রেনেড সরবরাহের হোতা জঙ্গি মাজেদ ভাট   |   

মানব অঙ্গ প্রতিস্থাপন আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৭ (বাসস) : মানব দেহের অঙ্গ প্রতঙ্গ প্রতিস্থাপন আইন ২০১৭র খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। চিকিৎসা বিজ্ঞানের উৎকর্ষের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চিকিৎসা সেবার উন্নয়ন এবং মানব অঙ্গ পাচার বন্ধ ও এর অবৈধ ব্যবসা রোধের লক্ষ্যে খসড়া আইনটি প্রণীত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল বাংলাদেশ সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদের অতিরিক্ত সচিব আশরাফ শামীম সাংবাদিকদের ব্রিফকালে বলেন, সরকার চিকিৎসা বিজ্ঞানের উৎকর্ষের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চিকিৎসা সেবার উন্নয়ন এবং মানব অঙ্গ পাচার বন্ধ ও এর অবৈধ ব্যবসা রোধে আইন প্রণয়নের লক্ষ্যে এই উদ্যোগ নিয়েছে। তিনি বলেন, প্রস্তাবিত আইনে কোন ব্যক্তি অঙ্গদাতা ও গ্রহিতা সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য দিলে বা এতে কাউকে উৎসাহিত বা প্ররোচিত বা ভীতি প্রদর্শন করলে তার সর্বোচ্চ ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড বা সর্বাধিক ৫ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডই হতে পারে। এছাড়া এ আইনের অন্যান্য ধারা অমান্যে বা এ ব্যাপারে কাউকে সহায়তার অপরাধে সর্বোচ্চ ৩ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও সর্বাধিক ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডই হতে পারে। কোন চিকিৎসক এই আইনে অপরাধী সাব্যস্ত হলে তার বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের নিবন্ধন বাতিল হয়ে যাবে।
অতিরিক্ত সচিব বলেন, কোন হাসপাতাল বা ক্লিনিকে এই আইন লংঘিত হলে এর মালিক, পরিচালক ও ম্যানেজার বা অন্য কোন পদবীধারী যদি প্রমাণ করতে না পারেন যে তাদের জ্ঞাতসারে এ অপরাধ হয়নি এবং তারা এটা রোধে যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন, তবে তারাও এই আইনে অপরাধী হিসেবে গণ্য হবেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ সম্পর্কিত ১৯৯৯ সালের বিদ্যমান আইনে এর কোন ধারা লংঘনে সর্বোচ্চ ৭ বছর কারাদন্ড বা সর্বাধিক ৩ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডের বিধান রয়েছে। আইনটি কার্যকরভারে যাত্রা শুরু করলে অঙ্গ সংস্থাপনের জন্য কাউকে আর দেশের বাইরে যেতে হবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আইনে ঘনিষ্ট আত্মীয়-স্বজন বলতে বাবা মা, সন্তান, ভাই, বোন, নাতি নাতনি, স্বামী স্ত্রী এবং রক্তের সম্পর্কীয় দাদা, নানা, মামা, চাচা, খালু, ফুফা, মামি, চাচি ও ফুপুর মতো আত্বীয়-স্বজনদেরকে সঙ্গায়িত করা হয়েছে।
প্রস্তাবিত খসড়া আইন অনুযায়ী প্রতিস্থাপনের জন্য লাইফ সাপোর্টে থাকা কোন মানব দেহ থেকে সংগৃহীত কিডনি, লিভার, হাড়, চক্ষু, হার্ট, লাং এবং টিস্যুসহ মানব দেহের যে কোন অঙ্গপ্রতঙ্গ মানব দেহে প্রতি স্থাপন করা যাবে। কোন হাসপাতাল সরকারের অনুমোদন ব্যাতিত মানবদেহের কোন অঙ্গপ্রতঙ্গ প্রতিস্থাপন করতে পারবে না। তবে সরকারি হাসপাতালগুলো সরকারের কোন অনুমোদন ছাড়াই মানব দেহের অঙ্গপ্রতঙ্গ প্রতিস্থাপন করতে পারবে।
মন্ত্রিপরিষদের অতিরিক্ত সচিব বলেন, একজন নিউরোলজিস্ট, এনেস্থেসিয়োলজিস্ট এবং একজন মেডিসিন অথবা ক্রিটিক্যাল বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে প্রতিটি হাসপাতালে তিন সদস্যের একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করা হবে এবং তারা অধ্যাপক অথবা কমপক্ষে সহযোগী অধ্যাপক হবেন।
তিনি বলেন, প্রস্তাবিত আইনে অঙ্গপ্রতঙ্গ প্রতিস্থাপনের ঘোষণাদানকারি কোন ব্যাক্তির কোন আত্মীয়-স্বজনের এই কমিটির অন্তর্ভুক্ত হবাব ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। প্রস্তাবিত আইন অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালযের উপাচার্যের নেতৃত্বে একটি কারডিয়াক কমিটি গঠন করতে হবে। এই কমিটি মানব অঙ্গ প্রতিস্থাপনের গোটা বিষয়টি দেখভাল করবেন এবং পরামর্শ দেবেন।
অতিরিক্ত সচিব বলেন, প্রতিটি হাসপাতালে সার্জারী বিভাগের একজন অধ্যাপকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠিত হবে। বোর্ডে সদস্য হিসেবে এক বা একাধিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসককে কো-অপট করা যাবে। বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে আইনটি কার্যকরের ৬০ দিনের মধ্যে বোর্ডের সার্টিফিকেটের জন্য আবেদন করতে হবে।
সভায় মন্ত্রীবর্গ ও সংশ্লিষ্ট প্রতিমন্ত্রীগণ ও সংশ্লিষ্ট সচিবগণ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।