ঢাকা, রবিবার, মে ২০, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : ওলামা, মুক্তিযোদ্ধা ও এতিমদের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির ইফতার   |   প্রধানমন্ত্রী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা `মুক্তিযোদ্ধা' চিত্রকর্ম এঁকেছেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে খুলনার মেয়রের সাক্ষাত   |    জাতীয় সংবাদ : বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে : সেতুমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : শ্রমবাজারের চাহিদা বিবেচনায় সরকার কারিগরি শিক্ষা প্রসারে বদ্ধপরিকর : শিক্ষামন্ত্রী * বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ৭১ তম সম্মেলন শুরু হচ্ছে আগামীকাল * বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে আস্থার সম্পর্ক আরো দৃঢ় হয়েছে : টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ফ্রান্সে বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদিসহ ১ চেচেন গ্রেফতার * চীনে অগ্নিকাণ্ডে ৫ জনের মৃত্যু * বসনিয়ায় বসবাসরত তুর্কীদের সমাবেশে যোগ দেবেন এরদোগান   |   

সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্টের সাথে স্পিকারের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ (বাসস) : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বুধবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশে সফররত সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আঁলান বারসের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।
সাক্ষাৎকালে তাঁরা রোহিঙ্গা ইস্যু, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন, নারীরক্ষমতায়ন, দারিদ্র্য মোচন এবং সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীসহ দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ে সীমান্ত খুলে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার নবদিগন্তের সূচনা করেছেন। জাতিসংঘে তাঁর প্রস্তাবিত পাঁচদফার আলোকেই রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানের প্রক্রিয়া চলমান। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের শান্তিপূর্ণ প্রত্যাবর্তন ও পুনর্বাসনে মিয়ানমারকে এগিয়ে আসতে হবে। এসময় তিনি রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য আর্ন্তজাতিক জনমত তৈরি ও মানবতা লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে সুইজারল্যান্ড সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন। কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গাদের মানবেতর জীবনযাপন সরজমিনে পরিদর্শন করায় তিনি সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্টকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
স্পিকার বলেন, নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ সময়ে তিনি নারীর প্রশিক্ষণ, দক্ষতা বৃদ্ধি ও তরুণ প্রজন্মকে মানবসম্পদে পরিণত করতে সুইজারল্যান্ডকে পাশে থাকার অনুরোধ জানান।
আঁলান বারসে বাংলাদেশের জনগণকে অতিথিপরায়ন ও আন্তরিক উল্লেখ করে বলেন, নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ অনুকরণীয় এবং অর্থনৈতিক বিভিন্ন সূচকে ও দারিদ্র্য মোচনে এদেশের অগ্রগতি লক্ষ্যণীয়। এছাড়া ১৩৬তম আইপিইউ এবং ৬৩তম সিপিসি সম্মেলন সফলভাবে আয়োজন করে বাংলাদেশ তার সক্ষমতা প্রমাণ করেছে। উভয় সম্মেলন কৃতিত্বের সাথে নেতৃত্ব দেওয়ায় তিনি স্পিকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এসময়ে তিনি দুই দেশের সংসদ সদস্যদের সফর বিনিময়ের মাধ্যমে বিদ্যমান সম্পর্ক আরো জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্ববাসীর নজর কেড়েছে-যা প্রশংসনীয়। রোহিঙ্গাদের স্থায়ী প্রত্যাবর্তনে সুইজারল্যান্ড বাংলাদেশের পাশে থাকবে মর্মে তিনি আশ্বস্ত করেন।
সাক্ষাৎকালে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, সিনিয়র সচিব ড. আব্দুর রব হাওলাদার, সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত রেনে হোলেস্টাইন ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত সংবাদ