ঢাকা, রবিবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

আবহাওয়া : আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : মেক্সিকোয় ভূমিকম্প অঞ্চলে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : নিহত ১৩   |    বিভাগীয় সংবাদ : লোহাগড়ায় ইউপি চেয়ারম্যান হত্যা ঘটনায় মামলা দায়ের : গ্রেফতার ২ * হবিগঞ্জে হাওরের উন্নয়নে ৫০ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ   |   

২০১৮ সালের মধ্যে দেশের কোন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জরাজীর্ণ পাওয়া যাবে না : গণশিক্ষা মন্ত্রী

শেরপুর, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার বলেছেন, ২০১৮ সালের মধ্যে দেশের কোন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আর জরাজীর্ণ পাওয়া যাবে না।
শনিবার শেরপুরে নালিতাবাড়ী উপজেলার রূপনারায়ণকুড়া ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকায় নবনির্মিত বেগম রওশন-ডা. আমজাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী নবনির্মিত ভবনের ফলক উন্মোচন করে বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা এখন জাতীয়করণ করা হয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ উপবৃত্তি চালু করা হয়েছে। বিনামূল্যে বই দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষকদের বেতন বাড়ানো হয়েছে। এখন দরকার মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা। এজন্য তিনি শিক্ষকদের আন্তরিকতার সাথে বিদ্যালয়ে পাঠদান নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।
বিদ্যালয়ের জমিদাতা বিএফইউজে সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুলের সভাপতিত্বে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. জিয়াউল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, ১৯৯১ সালে এ এলাকার মানুষ কাজ না দেখে শুধু আমাকে বিশ^াস করেছিলেন। সে বিশ^াসের মর্যাদাও আমি রেখেছি। দুই হাত, দুই পা নিয়ে পৃথিবীতে এসেছি, আবার সেভাবে খালি হাত-পা নিয়েই একদিন চলে যাবো। এজন্য কোথাও নামফলকে নিজের নাম খোদাই করে রাখার পক্ষে আমি নই। মানুষের ভালোবাসা থাকলে হৃদয়েই তারা ধারণ করবেন।
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের বিদ্যালয়বিহীন এলাকায় ১৫০০ প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ৬৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪ তলা বিশিষ্ট এ প্রাথমিক বিদ্যালয়টি নির্মাণ করা হয়। মনজুরুল আহসান বুলবুলের পরিবার এজন্য ৫০ শতক জমি দান করেন।
অনুষ্ঠানে নবনির্মিত বিদ্যালয়ের ১৩৫ জন শিক্ষার্থীর হাতে জমিদাতার পরিবারের পক্ষ থেকে স্কুলব্যাগ, খেলাধুলার জন্য ফুটবল ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন অতিথিরা।

সম্পর্কিত সংবাদ