ঢাকা, সোমবার, জানুয়ারী ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে ২৫জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ   |   জাতীয় সংসদ : কৃষি কাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা বিল-২০১৮ সংসদে পাস * সরকার ১৭৮টি নদী খনন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : শাজাহান খান * প্রত্যেক বিভাগীয় শহরে বিশেষায়িত হৃদরোগ হাসপাতাল স্থাপন করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা * ঢাকা ইউএইকে আরো বাংলাদেশী শ্রমিক নিয়োগের আহ্বান জানাবে * বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এডিবি বৃহৎ অংশীদার : খন্দকার মোশাররফ * আগামীকাল সরস্বতী পূজা   |    অর্থনীতি : দাম বেড়েছে ১৬৮টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত ৫৪ কোম্পানির শেয়ার * রাশিয়ায় তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ডিউটি ও কোটা ফ্রি সুবিধা চাইলেন বাণিজ্যমন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : জ্ঞানার্জনে ব্রতী হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * এস এম আতিউর রহমানের ইন্তেকালে প্রধানমন্ত্রীর শোক * ভূমির মালিকানা পার্বত্য চট্টগ্রামবাসীরই থাকবে : প্রধানমন্ত্রী    |    বিভাগীয় সংবাদ : সরস্বতী পূজা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট * মাগুরায় অস্বচ্ছল ও অসুস্থ ব্যক্তির মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ * রংপুরকে আধুনিক সিটি কর্পোরেশন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : নবনির্বাচিত মেয়র   |   রাষ্ট্রপতি : শিক্ষাবিদ নুরুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক * সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে সুদৃঢ় করতে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি * বঙ্গভবন থেকে রাষ্ট্রপতির আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ    |    জাতীয় সংবাদ : নির্বাচন নিয়ে বিএনপি কী রূপরেখা দেয় সেটার অপেক্ষায় আছি : ওবায়দুল কাদের * সহায়ক সরকারের প্রস্তাব বিএনপির চক্রান্তের রাজনীতির অংশ : তথ্যমন্ত্রী * আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : আফগানিস্তানে অতর্কিত হামলায় সরকারপন্থী ১৮ মিলিশিয়া নিহত *যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে সোমবার ভোট *প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের এক বছর ॥ হাজারো নারীর বিক্ষোভ   |   খেলাধুলার সংবাদ : জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা * জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা *আইপিএলে এলিট তালিকায় সাকিব *অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে রাফায়েল নাদাল   |   

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা : পলাতক আসামীদের পক্ষে যুক্তিতর্ক শুরু

ঢাকা, ২ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে হতাহতের ঘটনায় আনা মামলায় পলাতক আসামীদের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন আজ শুরু হয়েছে।
রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে এ মামলার বিচার চলছে। আজ পলাতক আসামী হানিফ পরিবহনের মালিক মো. হানিফের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী চৈতন্য হালদার যুক্তিতর্ক পেশ শুরু করেন। আজ সাক্ষ্যের আলোকে তিনি যুক্তিতর্ক পেশ করেন। কাল বুধবারও এ মামলার তারিখ ধার্য রয়েছে।
এডভোকেট চৈতন্য হালদার বলেন, আসামী হানিফের নাম মামলার মূল এজাহার, এ মামলা সংক্রান্তে জিডি, প্রথম অভিযোগপত্রে ছিলো না। কোন সাক্ষি ফৌজদারী কার্যবিধির ১৬১ ধারায়ও তার নাম বলেনননি। এ মামলার অধিকতর তদন্তকালীন আসামী মুফতি হান্নান তার দ্বিতীয় দফায় দেয়া জবানবন্দিতে হানিফকে সম্পৃক্ত করে জবানবন্দি দিয়েছেন।
আজ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা আদালতে শুনানির জন্য উত্থাপিত হলে রাষ্ট্রপক্ষে মোশররফ হোসেন কাজল আইনি পয়েন্টে বক্তব্য পেশ করেন। তিনি বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা, ষড়যন্ত্র তথ্য ফৌজদারি ষড়যন্ত্র (ক্রিমিনাল অফেন্স) কিভাবে হয়েছে তা আইনি পয়েন্ট এবং বিভিন্ন ঐতিহাসিক মামলার নজিরের আলোকে আদালতে পেশ করা হবে। এসময় তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার ঐতিহাসিক রায়ের কিছু অংশ আদালতে দাখিল করেন।
তিনি বলেন, ৭১এর পরাজিত শক্তি ষড়যন্ত্র করে ১৯৭৫ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবার হত্যা করে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়। এরপর দীর্ঘ ২১ বছর মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় ছিলো না। ১৯৯৬ সালে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর আবারো দেশকে নেতৃত্ব শুন্য করতে হামলা শুরু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়া হত্যা, বিভিন্ন সভা-সমাবেশ লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা, সিলেটে বৃটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীকে হত্যা চেষ্টা এবং দেশ ও আওয়ামী লীগকে নেতৃত্ব শুন্য করতে শেখ হাসিনা সহ শীর্ষ নেতাদের হত্যার লক্ষ্যে গ্রেনেড হামলা চালনো হয়। কাজল বলেন, ১৯৭১ সালে ২৫ মার্চ রাতে নিরস্ত্র বাঙ্গালীদের ওপর যেমনি পাক হানাদার বাহিনী নির্বিচার হামলা চালিয়েছে তেমনি ২১ আগষ্ট আওয়ামী লীগের শান্তিপ্রিয় সমাবেশে হামলা চালানো হয়। এ হামলার সঙ্গে ষড়যন্ত্রে যারা জড়িত তাদের স্বরূপ আদোলতে উন্মোচন করা হবে। তার বক্তব্য অসমাপ্ত রয়েছে। আদালত বলেন, আসামী পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রাষ্ট্রপক্ষ আইনি পয়েণ্টে আরো ব্কব্য পেশ করার সূযোগ পাবে।
গতকাল যুক্তিতর্কের ২৫ তম দিনে মামলার আসামীদের আইন অনুযায়ি সর্বোচ্চ সাজা দাবি করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সিনিয়র এডভোকেট সৈয়দ রেজাউর রহমান আইনি পয়েন্টে গতকাল যুক্তি পেশ করেন। মামলার সকল আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অপরাধ স্বতন্ত্র, নিঃস্বার্থ, দালিলিক ও পারিপার্শ্বিক সাক্ষীদের দেয়া সাক্ষ্যে সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করেন প্রধান কৌঁসুলি। তিনি আদালতে বলেন, ন্যায়বিচারের স্বার্থে বিচার প্রার্থী মানুষের প্রত্যাশা পূরণের লক্ষ্যে আইনের বিধানের আলোকে আসামীদের প্রত্যেককে সর্বোচ্চ সাজা প্রার্থনা করছি। এর আগে মামলায় সাক্ষিদের দেয়া জবানবন্দির আলোকে (ফ্যাক্ট) যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করে রাষ্ট্রপক্ষ। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় গত ২৩ অক্টোবর থেকে রাষ্ট্রপক্ষে যুক্তিতর্ক শুরু হয়। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের ২২৫ জন সাক্ষি (পিডব্লিউ) ও আসামীপক্ষে ২০ জনের সাফাই সাক্ষ্য (ডিডব্লিউ) পর্যালোচনা করে আদালতে যুক্তিতর্কে পেশ শেষ করা হয়।
আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রধান কোঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান, পিপি খন্দকার আবদুল মান্নান, স্পেশাল পিপি মো. আবু আব্দুল্লাহ ভুঞা, আবুল কালাম আজাদ, আইনজীবী আকরাম উদ্দিন শ্যামল, ফারহানা রেজা, মো. আমিনুর রহমান, আবুল হাসনাত, কাজী ইলিয়াসুর রহমান, আশরাফ হোসেন তিতাস প্রমুখ।
অপরদিকে আসামিপক্ষে বিভিন্ন আইনজীবী আদালতে আজ উপস্থিত ছিলেন। ২১ আগস্টের ওই নৃশংস হামলায় পৃথক দুটি মামলায় মোট আসামী ৫২ জন। মামলার আসামী বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, বিএনপি নেতা সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুসহ ২৩ জন কারাগারে রয়েছে। এ মামলায় পুলিশের সাবেক আইজি আশরাফুল হুদা, শহুদুল হক ও খোদাবক্স চৌধুরী, লে.কমান্ডার (অব.) সাইফুল ইসলাম ডিউক এবং মামলার সাবেক তিন তদন্ত কর্মকর্তা- সিআইডির সাবেক এসপি রুহুল আমিন, সিআইডির সাবেক এএসপি আতিকুর রহমান ও আবদুর রশিদসহ মোট ৮ জন জামিনে রয়েছেন।
তারেক রহমান, বিএনপি নেতা হারিছ চৌধুরী, শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ, মেজর জেনারেল (এলপিআর) এটিএম আমিন, লে. কর্নেল (অব.) সাইফুল ইসলাম জোয়ার্দারসহ ১৮ জন এখনো পলাতক।
এ ছাড়া ৩ জন আসামী জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মুফতি হান্নান ও শরীফ সাইদুল আলম বিপুলের অন্য মামলায় মৃত্যুদন্ড কার্যকর হওয়ায় এ মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।
বিএনপি-জামায়াতের জোট সরকারের আমলে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের এক সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ঘটনা ঘটে। ওই নৃশংস হামলায় ২২ জন নিহত ও নেতকর্মী-আইনজীবী-সাংবাদিকসহ পাঁচ শতাধিক লোক আহত হয়। নিহতদের মধ্যে ছিলেন তৎকালীন মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিলুর রহমানের পতী আইভি রহমান। তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগের প্রথম সারির অন্যান্য নেতা এই গ্রেনেড হামলা থেকে বেঁচে যান। এতে অল্পের জন্য শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে গেলেও গ্রেনেডের প্রচন্ড শব্দে তার শ্রবণশক্তিতে আঘাতপ্রাপ্ত হয়।