ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে কমনওয়েলথের দৃঢ় অবস্থান   |    জাতীয় সংবাদ : প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরই মহার্ঘ্য ভাতা সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন : ইনু * বিসিএসআইআর মডেল রাস্তা নির্মাণে জাপানের টুইস্টার টেকনোলজি ব্যবহার করবে * জাতিসংঘের ৫৪টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩২৮ জন শান্তিরক্ষীর অংশ গ্রহণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : ইংল্যান্ডের নির্বাচক হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাবেক ব্যাটসম্যান স্মিথ *ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে না ভারত * ওয়েঙ্গারের উত্তরসূরী হিসেবে পাঁচজনকে বিবেচনা করা হচ্ছে * ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে জয়ের ধারায় ফিরলো চেন্নাই   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : মেহেরপুরের মোমিনুলের আর্সেনিকমুক্ত প্লান্ট আবিস্কার *পিরোজপুর আধুনিক কারাগারের নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে    |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় জাপান *সিনেট প্যানেলে প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন পম্পেও * অশালীন ভিডিও : সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হলো নারী শরীরচর্চা কেন্দ্র *পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে ইতিবাচক পদক্ষেপ উ.কোরিয়ার   |   

২০১৭ সালে ব্যাংকিং সেক্টর ভাল ছিল

ঢাকা, ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : বাংলাদেশ ব্যাংক কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং তদারকি বৃদ্ধি করায় বিদায়ী অর্থ বছর ২০১৭ সালে ব্যাংকিং সেক্টরে সার্বিক পরিস্থিতি ভাল ছিল।
বিদায়ী বছরে কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যাংক লোনে বিশৃঙ্খলার কারণে খেলাপি ব্যাংক লোনের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফার্মাস ব্যাংক লিমিটেড এবং এনআরবি বাণিজ্যিক ব্যাংকসহ কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে। ব্যাংকের পরিচালনা বোর্ডের শীর্ষ নির্বাহীদের অপসারণ করা হয়েছে।
বাংলদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গর্ভনর আবু হেনা মোহাম্মদ রাজী হাসান আজ বাসসকে জানান, বাংলাদেশ ব্যাংক এ সকল পদক্ষেপের মাধ্যমে ব্যাংক সেক্টরে সুশাসন প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে এবং এ ক্ষেত্রে সফলতাও অর্জিত হয়েছে।
তিনি বলেন, বিদায়ী বছরে ডিপোজিট, এ্যাডভান্স, বৈদেশিক মূদ্রার রিজার্ভ, মূদ্রা বিনিময় হার, আমদানি ও রফতানি, মূদ্রাস্ফীতিসহ অধিকাংশ সূচক স্থিতিশিল ছিল এবং বেসরকারি ব্যাংক লোনও সন্তোষজনক।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যমতে ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৭ সালের অক্টোবর পর্যন্ত সময়ে ডিপোজিট ও লোনের পরিমাণ ১০.৪৮ শতাংশ থেকে ১৩.৫৫ শতাংশে বৃদ্ধি পেয়ে ডিপোজিট ৯.০৬ লাখ কোটি টাকা থেকে ৯.৭৭ লাখ কোটি টাকা হয়েছে। ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ক্লাসিফাইড লোন ছিল ১০.৩৪ শতাংশ। তবে সেপ্টেম্বরে ক্লাসিফাইড লোন ছিল ১০.৬৭ শতাংশ।
হাসান বলেন, ক্লাসিফাইড লোনের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এ জন্য ব্যাংক পুন:তফসিলীকৃত লোন আদায় করতে পারেনি।
২০১৭ সালের জুলাই থেকে অক্টোবর পযর্ন্ত আমদানি ২৮.৭১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১৮,৫২৬.৬০ মিলিয়ন ডলার হয়েছে। এ বছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পযর্ন্ত রফতানি ৬.৮৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ১৪,৫৬২.৯১ মিলিয়ন ডলার হয়েছে। ২০১৭ সালে রিজার্ভের পরিমাণ হয়েছে ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। দেশের ৯ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানোর জন্য এটি যথেষ্ট। বিগত কয়েক মাসে রেমিটেন্স প্রবাহ বেড়ে জুলাই থেকে নভেম্বর পযর্ন্ত সময়ে হয়েছে ৫৭৬৮.৫৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। বিগত বছরের এই সময়ের চেয়ে ১০.৭৬ শতাংশ বেশি। আগের বছরের এ সময়ে ছিল ৫,২০৮.১২ মলিয়ন মার্কিন ডলার।
রাজী হাসান আরো বলেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কিছু পদক্ষেপের কারণে প্রবাসী বাংলাদেশীরা বৈধ চ্যানেলে দেশে টাকা পাঠানোর কারণে বিগত কয়েক বছরে রেমিটেন্স প্রবাহ বেড়েছে। তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই কৃষি লোন বিতরণের লক্ষ্যমাত্রার ৪০.৩৫ শতাংশ বিতরণ করা হয়েছে। চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রথম পাঁচ মাসে ২০,৪০০ কোটি টাকার মধ্যে ৮,২৩০.৮৮ কোটি টাকা কৃষি লোন বিতরণ করা হয়েছে।
রাজী হাসান আরো বলেন, মধ্য আয়ের দেশের মর্যাদা অর্জনে সহায়তা করতে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে এজেন্ট ব্যাংকিং ও গ্রীন ব্যাংকিং বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এখন কাজ করে যাচ্ছে। স্কুল ব্যাংকিংয়ে সারা দেশে ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। গত সেপ্টেম্বর মাসের শেষ নাগাদ ডিপোজিটের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১,২০০ কোটি টাকা। এ সময় পর্যন্ত স্কুল ব্যাংক হিসাবের সংখ্যা দাঁড়িয়ে ১৩ লাখের বেশি।

সম্পর্কিত সংবাদ