ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে : রাষ্ট্রপতি   |    বিভাগীয় সংবাদ : দিনাজপুরে নাশকতার মামলায় ৪ জেএমবি সদস্যের জামিন আবেদন নামঞ্জুর   |   জাতীয় সংসদ : বঙ্গবন্ধু সেতুতে ডুয়েলগেজ রেললাইনসহ পৃথক রেল সেতু নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী * আগামী বাজেটে বেসরকারি বিদ্যালয়ের এমপিও অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিবে : প্রধানমন্ত্রী *সকল জেলায় হাইটেক পার্ক স্থাপন করা হবে : প্রধানমন্ত্রী   |   জাতীয় সংসদ : সরকার প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষার প্রতি অত্যন্ত যত্নশীল : প্রধানমন্ত্রী * ২০০৯ সাল থেকে অদ্যাবধি রেলওয়ের বিভিন্ন পদে ১০ হাজার ৩৯১ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে : রেলপথ মন্ত্রী * কিছু রাজনীতিবিদ নির্বাচন এলে বক্রপথে ক্ষমতায় যাবার স্বপ্ন দেখে : প্রধানমন্ত্রী   |   শিক্ষা : শর্ত পূরণ না করা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে : শিক্ষামন্ত্রী   |   বিনোদন ও শিল্পকলা : প্রাচ্যনাটের অ্যাকটিং স্কুলের নতুন নাটক নৈশভোজ মঞ্চস্থ হলো   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ট্রাম্পের স্বাস্থ্যগত জটিলতা নেই : চিকিৎসক   |   প্রধানমন্ত্রী : উন্নত দেশগুলোকে বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ানোর আহবান প্রধানমন্ত্রীর   |   আবহাওয়া : দেশের কিছু স্থানে শৈত্যপ্রবাহ কমবে   |   খেলাধুলার সংবাদ : মিরপুর স্টেডিয়ামের শততম ওয়ানডে ম্যাচে শ্রীলংকাকে ২৯১ রানের টার্গেট দিলো জিম্বাবুয়ে *আমাদের পেস বোলাররাই সেরা : রুবেল   |    জাতীয় সংবাদ : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বন্ধে সরকারের কোন হাত নেই : ওবায়দুল কাদের *ঢাকা উত্তর সিটির উপ-নির্বাচন স্থগিত * নবম ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিকদের স্বার্থ গুরুত্ব পাবে: তারানা হালিম * আপিল শুনানির কার্যতালিকায় যুদ্ধাপরাধী আজহার-কায়সার-সুবহানের মামলা   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ফিলিস্তিনের জন্য জাতিসংঘ সংস্থা থেকে বরাদ্দকৃত অর্থ প্রত্যাহার যুক্তরাষ্ট্রের * মিয়ানমারে রাখাইন বৌদ্ধদের ওপর পুলিশের হামলা ॥ নিহত ৭ * পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্টের হাসপাতাল ত্যাগ * মেক্সিকোয় গণকবর থেকে ৩২টি লাশ উদ্ধার    |   

বিদায়ী অর্থ বছরের চেয়ে নতুন বছরে অর্থনীতি আরো ভাল হবে

॥ গোলাম মঈন উদ্দিন ॥
ঢাকা, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : বিদায়ী বছর-২০১৭ সালে অর্থনীতির অধিকাংশ সূচকে সামান্য অগ্রগতি হওয়ায় আগামী বছর ২০১৮ সালে দেশের অর্থনীতি আরো ভাল হবে বলে সরকার ধারণা করছে। অর্থনীতি বিশ্লেষকরা দেশের অর্থনীতির উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এবং বিশিষ্ট অর্থনৈতিক বিশ্লেষক ও বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা ইনিস্টিটিউটের (বিআইডিসি) সাবেক মহাপরিচালক ড. মুস্তফা কে মুজেরি আগামী বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অজর্নে তাদের উচ্চাশা প্রকাশ করেছেন।
এম এ মান্নান বলেন, বিদায়ী বছর ২০১৭ সালে বাংলাদেশের অর্থনীতি খুবই ভাল ছিল। বিদায়ী বছরে অর্থনীতিতে অনেক অর্জন রয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ গত জুনে সমাপ্ত বিদায়ী অর্থ বছরে ৭.২৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অজর্ন করতে সক্ষম হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল চমৎকার।
২০১৮ সালের জুনে সমাপ্ত অর্থ বছরে প্রত্যাশিত প্রবৃদ্ধি সম্পর্কে এক মন্তব্যে বলেন, চলতি অর্থ বছরে ৭.৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অজর্নের লক্ষ্যমাত্রা অজর্নের ব্যাপারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আমরা লক্ষ্য অজর্নের ব্যাপারে অথবা লক্ষ্যের খুবই কাছাকাছি পৌঁছুতে আশাবাদি।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদায়ী বছরে অতিবৃষ্টি এবং আগাম বন্যার কারনে সৃষ্ট প্রাকৃতিক বৈরি আবহাওয়া সত্ত্বেও মূদ্রাস্ফীতি ছিল ৫.০ শতাংশ। তিনি মেঘা ও বড় প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন সম্পর্কে বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্প ও রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বাস্তবায়ন কাজ এখন দৃশ্যমান। আগামী বছরের মাঝামাঝি নাগাদ ঢাকা- চট্রগ্রাম ডাবল ট্র্যাক রেল লাইন স্থাপন কাজ সম্পন্ন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, খুব শিগগির বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে দেশের টেলিযোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্যাপক সম্ভাবনার দ্বার উম্মোচিত হবে। তিনি বলেন, অতি বৃষ্টি ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুযোর্গে এ বছরে খাদ্য শস্যের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়া সত্ত্বেও কোন খাদ্য সংকট তৈরি হয়নি।
এম এ মান্নান বলেন, ২০১৭ সালে বিদ্যুৎ সেক্টরে ব্যাপক সাফল্য অর্জিত হয়েছে। দেশের ৮৫ শতাংশ লোক এখন বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। ভিশন ২০২১ সালের আগেই ২০১৯ সালের মধ্যে প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে যাবে।

সম্পর্কিত সংবাদ