ঢাকা, সোমবার, জানুয়ারী ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে ২৫জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ   |   জাতীয় সংসদ : কৃষি কাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা বিল-২০১৮ সংসদে পাস * সরকার ১৭৮টি নদী খনন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : শাজাহান খান * প্রত্যেক বিভাগীয় শহরে বিশেষায়িত হৃদরোগ হাসপাতাল স্থাপন করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা * ঢাকা ইউএইকে আরো বাংলাদেশী শ্রমিক নিয়োগের আহ্বান জানাবে * বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এডিবি বৃহৎ অংশীদার : খন্দকার মোশাররফ * আগামীকাল সরস্বতী পূজা   |    অর্থনীতি : দাম বেড়েছে ১৬৮টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত ৫৪ কোম্পানির শেয়ার * রাশিয়ায় তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ডিউটি ও কোটা ফ্রি সুবিধা চাইলেন বাণিজ্যমন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : জ্ঞানার্জনে ব্রতী হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * এস এম আতিউর রহমানের ইন্তেকালে প্রধানমন্ত্রীর শোক * ভূমির মালিকানা পার্বত্য চট্টগ্রামবাসীরই থাকবে : প্রধানমন্ত্রী    |    বিভাগীয় সংবাদ : সরস্বতী পূজা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট * মাগুরায় অস্বচ্ছল ও অসুস্থ ব্যক্তির মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ * রংপুরকে আধুনিক সিটি কর্পোরেশন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : নবনির্বাচিত মেয়র   |   রাষ্ট্রপতি : শিক্ষাবিদ নুরুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক * সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে সুদৃঢ় করতে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি * বঙ্গভবন থেকে রাষ্ট্রপতির আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ    |    জাতীয় সংবাদ : নির্বাচন নিয়ে বিএনপি কী রূপরেখা দেয় সেটার অপেক্ষায় আছি : ওবায়দুল কাদের * সহায়ক সরকারের প্রস্তাব বিএনপির চক্রান্তের রাজনীতির অংশ : তথ্যমন্ত্রী * আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : আফগানিস্তানে অতর্কিত হামলায় সরকারপন্থী ১৮ মিলিশিয়া নিহত *যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে সোমবার ভোট *প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের এক বছর ॥ হাজারো নারীর বিক্ষোভ   |   খেলাধুলার সংবাদ : জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা * জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা *আইপিএলে এলিট তালিকায় সাকিব *অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে রাফায়েল নাদাল   |   

বিদায়ী অর্থ বছরের চেয়ে নতুন বছরে অর্থনীতি আরো ভাল হবে

॥ গোলাম মঈন উদ্দিন ॥
ঢাকা, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : বিদায়ী বছর-২০১৭ সালে অর্থনীতির অধিকাংশ সূচকে সামান্য অগ্রগতি হওয়ায় আগামী বছর ২০১৮ সালে দেশের অর্থনীতি আরো ভাল হবে বলে সরকার ধারণা করছে। অর্থনীতি বিশ্লেষকরা দেশের অর্থনীতির উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।
অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এবং বিশিষ্ট অর্থনৈতিক বিশ্লেষক ও বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা ইনিস্টিটিউটের (বিআইডিসি) সাবেক মহাপরিচালক ড. মুস্তফা কে মুজেরি আগামী বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অজর্নে তাদের উচ্চাশা প্রকাশ করেছেন।
এম এ মান্নান বলেন, বিদায়ী বছর ২০১৭ সালে বাংলাদেশের অর্থনীতি খুবই ভাল ছিল। বিদায়ী বছরে অর্থনীতিতে অনেক অর্জন রয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ গত জুনে সমাপ্ত বিদায়ী অর্থ বছরে ৭.২৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অজর্ন করতে সক্ষম হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ছিল চমৎকার।
২০১৮ সালের জুনে সমাপ্ত অর্থ বছরে প্রত্যাশিত প্রবৃদ্ধি সম্পর্কে এক মন্তব্যে বলেন, চলতি অর্থ বছরে ৭.৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অজর্নের লক্ষ্যমাত্রা অজর্নের ব্যাপারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, আমরা লক্ষ্য অজর্নের ব্যাপারে অথবা লক্ষ্যের খুবই কাছাকাছি পৌঁছুতে আশাবাদি।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদায়ী বছরে অতিবৃষ্টি এবং আগাম বন্যার কারনে সৃষ্ট প্রাকৃতিক বৈরি আবহাওয়া সত্ত্বেও মূদ্রাস্ফীতি ছিল ৫.০ শতাংশ। তিনি মেঘা ও বড় প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়ন সম্পর্কে বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্প ও রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বাস্তবায়ন কাজ এখন দৃশ্যমান। আগামী বছরের মাঝামাঝি নাগাদ ঢাকা- চট্রগ্রাম ডাবল ট্র্যাক রেল লাইন স্থাপন কাজ সম্পন্ন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, খুব শিগগির বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে দেশের টেলিযোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্যাপক সম্ভাবনার দ্বার উম্মোচিত হবে। তিনি বলেন, অতি বৃষ্টি ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুযোর্গে এ বছরে খাদ্য শস্যের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়া সত্ত্বেও কোন খাদ্য সংকট তৈরি হয়নি।
এম এ মান্নান বলেন, ২০১৭ সালে বিদ্যুৎ সেক্টরে ব্যাপক সাফল্য অর্জিত হয়েছে। দেশের ৮৫ শতাংশ লোক এখন বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। ভিশন ২০২১ সালের আগেই ২০১৯ সালের মধ্যে প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে যাবে।