ঢাকা, রবিবার, এপ্রিল ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : তারেক লন্ডনে বসে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছে : প্রধানমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে কমনওয়েলথের দৃঢ় অবস্থান * বাণিজ্য ও বিনিয়োগের জন্য যোগাযোগ এজেন্ডা গ্রহণ করলো কমনওয়েলথ * উন্নয়ন ও সুশাসনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দিন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরই মহার্ঘ্য ভাতা সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন : ইনু * বিসিএসআইআর মডেল রাস্তা নির্মাণে জাপানের টুইস্টার টেকনোলজি ব্যবহার করবে * জাতিসংঘের ৫৪টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩২৮ জন শান্তিরক্ষীর অংশ গ্রহণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : আইপিএল : গেইল-রাহুল ঝড়ে উড়ে গেল কলকাতা *ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে জয়ের ধারায় ফিরলো চেন্নাই *মিরপুরে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ভলিবল   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : টাঙ্গাইলে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু *দিনাজপুরে পৃথক ২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৯ জন আহত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় জাপান *সিনেট প্যানেলে প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন পম্পেও * অশালীন ভিডিও : সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হলো নারী শরীরচর্চা কেন্দ্র *পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে ইতিবাচক পদক্ষেপ উ.কোরিয়ার   |   

টরেন্টো ডিক্লারেশনে পূর্ব পাকিস্তানে সামরিক সরবরাহ বন্ধের আহ্বান জানানো হয়

॥ আশরাফুল হক ও মাহমুদুল হাসান রাজু ॥
ঢাকা, ২ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে চার মাসের অধিক সময় ধরে পূর্ব পাকিস্তানে (বর্তমান বাংলাদেশ) ভয়ঙ্কর ও নৃশংস সামরিক অভিযানের ঘটনায় ১৯৭১ সালের ২১ আগস্ট টরেন্টো ডিক্লারেশনে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে পশ্চিম পাকিস্তানকে অতি দ্রুত সামরিক সরবরাহ বন্ধ করার জন্য বিশ্বের সকল দেশকে আহবান জানানো হয়।
টরেন্টো ডিক্লারেশনে বলা হয়, পূর্ব পাকিস্তানে সাম্প্রতিক ঘটনায় আমরা আতঙ্কিত। এই ঘটনা মানব ইতিহাসের অন্যতম বিপর্যয়।
নির্মমতা ও সামরিক অভিযানে লাখ লাখ মানুষ উদ্বাস্তু হয়ে পালিয়েছে। সকল দেশের জনগণের প্রতি জরুরি আবেদন জানাচ্ছি তারা যেনো এই নির্মমতা বন্ধে পদক্ষেপ নিতে তাদের দেশের সরকারকে বাধ্য করে।
এতে পাকিস্তানে সকল অর্থনৈতিক সহযোগিতা বন্ধের অনুরোধ জানানো হয়। পূর্ব পাকিস্তানে জাতিসংঘের পরিচালিত দুর্ভিক্ষের জরুরি ত্রাণ কার্যক্রম স্থগিত করার আহবান জানানো হয়।
১৯৭১ সালের ১৯ আগস্ট থেকে ২১ আগস্ট টরেন্টোতে আন্তর্জাতিক সম্মেলনে (দক্ষিণ এশিয়া সম্মেলন) এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের সংসদ সদস্য, বিশেষজ্ঞ, প্রশাসক এই সম্মেলনে অংশ নেন।
বিশ্বের ২০ জনের বেশী বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের গৃহীত টরেন্টো ডিক্লারেশনে পাকিস্তানে সামরিক ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা বন্ধে সকল সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়।
ঘোষণায় স্বাক্ষরদাতারা হলেন- রেভ ই জনসন, এন সি দাহি, জি পাপানেক, জে টি থরসন, জেনারেল জে এন চৌধুরী, প্যাট্রিক পি ম্যাগডারম্যাট, নিয়াল ম্যাকডারমট, চেস্টার রোনিং, জেমস বেরিংটন, হাননা পাপানেক, বার্নার্ড ব্রেইন এমপি, জন হোলমেস, অজিত ভট্টাচার্য, নূরুল হোসেন, জন ই রোডি এমডি।
রেভ ইয়েইন এ ম্যাককে, গেরার্ড ল্যাচহেন, টমাস এ ডিন, হুগ এল কিনস্লেসাইড, রেভ আর্নেস্ট লঙ, জুডিথ হার্ট এমপি, কর্নেলিয়া রোডি, স্টান্টলে ওলপার্ট এবং রবার্ট ডর্ফম্যান, হরনার এ জ্যাক।
পূর্ব পাকিস্তানের পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্বের জন্য হুমকি হিসেবে বর্ণনা করে ঘোষণায় বলা হয়, বর্তমান পরিস্থিতি দক্ষিণ এশীয় উপমহাদেশ এবং গোটা বিশ্বের জন্য হুমকি। একইভাবে বিশ্বের বৃহৎ শক্তি জড়িয়ে পড়ার হুমকি সৃষ্টি হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ