ঢাকা, মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৬, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : ঝড়-বৃষ্টির মৌসুমে স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ৫ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শিশু : ইউনিসেফ   |   জাতীয় সংসদ : শিগগিরই তিস্তা নদীর পানি বন্টন চুক্তি সম্পাদন : পানি সম্পদ মন্ত্রী * বিচারাধীন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে : আইনমন্ত্রী * সরকারি শূন্য পদ দ্রুত পূরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে : জন প্রশাসন মন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : একনেকে ১৪ প্রকল্প অনুমোদন : তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে * আবুল খায়েরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ঢাকা শহরের ছাদ ব্যবহার করে ১ হাজার মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব : নসরুল হামিদ   |    অর্থনীতি : নওগাঁয় রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ৬ মাসে ৯২ কোটি ৩০ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ    |    জাতীয় সংবাদ : ২ বছরের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন সম্পন্নে রূপরেখা চূড়ান্ত * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা : আরো দুই আসামীর পক্ষে যুক্তিতর্ক পেশ * পীরগঞ্জের শীতার্তদের জন্য কম্বল হস্তান্তর করেছেন স্পিকার * জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা আগামীকাল   |   খেলাধুলার সংবাদ : পুলিশ বর্ষসেরা খেলোয়াড় দ্বীন ইসলাম, লতা পারভীন ও আকলিমা *মাঠে খারাপ আচরণের জন্য কোহলিকে জরিমানা   |   শিক্ষা : বাংলাদেশের জন্মের পেছনে ঢাবির অবদান রয়েছে : ঢাবি উপাচার্য   |    বিভাগীয় সংবাদ : জয়পুরহাটে বোরো ধানের চারা রক্ষা করতে পলিথিনে ঢেকে রাখার পরামর্শ * নীলফামারীতে কৃষক নেমেছে বোরো আবাদের মাঠে : লক্ষ্যমাত্রা ৮৪ হাজার হেক্টর জমি   |   আবহাওয়া : আগামীকাল থেকে দক্ষিণাঞ্চলের শৈতপ্রবাহ কেটে যেতে পারে   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ট্রানজিট বিষয়ে সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর * আফগানিস্তানে আইএসের ২১ যোদ্ধা নিহত * জাপানের জলসীমায় ভেসে আসা নৌকা থেকে ৮ জনের লাশ উদ্ধার * লিবিয়ার পশ্চিম উপকূল থেকে অবৈধ ৩৬০ শরণার্থী উদ্ধার   |   

স্মিথের সেঞ্চুরিতে ড্র হলো বক্সিং-ডে টেস্ট

মেলবোর্ন, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ (বাসস/এএফপি) : অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বক্সিং-ডে টেস্ট ড্র করলো স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। ১৬৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংসে পিছিয়ে থেকে খেলতে নেমে পঞ্চম ও শেষ দিন স্মিথের অপরাজিত ১০২ রানের সুবাদে ৪ উইকেটে ২৬৩ রান সংগ্রহ করে অসিরা। ফলে দিনের খেলা শেষ হবার ৯ ওভার আগেই অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ ম্যাচটি ড্র ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। প্রথম তিন টেস্ট জয়ে আগেই পাঁচ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজ নিশ্চিত করে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। তাই চতুর্থ টেস্ট শেষেও ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে স্মিথের দল।
প্রথম ইনিংসে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনই নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। দিন শেষে ২ উইকেটে ১০৩ রান তুলেছিলো স্বাগতিকরা। ৩টি চারে ১৪০ বলে ৪০ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়ার্নার। অন্যপ্রান্তে স্মিথ অপরাজিত ছিলেন ৬৭ বলে ২৫ রান নিয়ে।
পঞ্চম ও শেষ দিনও ব্যাট হাতে অবিচল ছিলেন ওয়ার্নার ও স্মিথ। এই জুটি ভাঙ্গতে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছেন ইংল্যান্ডের বোলাররা। কিন্তু উইকেটের সাথে সন্ধি করে সেঞ্চুরির পথেই হাঁটচ্ছিলেন ওয়ার্নার ও স্মিথ।
কিন্তু ৮৬ রানেই থেমে যেতে হয় প্রথম ইনিংসে ১০৩ রান করা ওয়ার্নারকে। সপ্তম বোলার হিসেবে আক্রমণে এসে নিজের দ্বিতীয় ডেলিভারিতেই ওয়ার্নারের বিদায় ঘন্টা বাজান ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ও অকেশনাল অফ-স্পিনার জো রুট। ৮টি চারে ২২৭ বলে নিজের ইনিংস সাজানোর পাশাপাশি স্মিথের সাথে তৃতীয় উইকেটে ১০৭ রান যোগ করেন ওয়ার্নার।
ওয়ার্নার বিদায়ের পর ক্রিজে স্মিথের সঙ্গী হন শন মার্শ। কিন্তু মার্শকে ২৮ মিনিটের বেশি ক্রিজে থাকতে দেননি ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। নামের পাশে ৪ রান রেখে থামেন মার্শ। এতে ম্যাচে কিছুটা উত্তেজনা ছড়িয়েছিলো। ৬ রানের ব্যবধানে দুই উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার উপর প্রাধান্য বিস্তার করার স্বপ্ন দেখছিলো ইংল্যান্ড।
কিন্তু সেটি হতে দেননি স্মিথ ও মিচেল মার্শ। পঞ্চম উইকেটে ৮৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন তারা। এরমধ্যে ৬০ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৩তম সেঞ্চুরির স্বাদ পান স্মিথ। চলতি বছর ১টি ডাবল-সেঞ্চুরিসহ ছয়টি সেঞ্চুরির করেছেন স্মিথ। তাই এ বছরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও তিনি। ১১ ম্যাচের ২০ ইনিংসে ১৩০৫ রান করেন স্মিথ।
তিন অংকে পা দেয়ার বেশ কিছুক্ষণ পরই রুটের সাথে সম্মতিতে ম্যাচটি ড্র মেনে নেন স্মিথ। ২৭৫ বলে ৬টি চারে ১০২ রানে অপরাজিত থাকেন স্মিথ। অন্যপ্রান্তে ২৯ রানে অপরাজিত থাকেন মার্শ। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের অ্যালিস্টার কুক।
আগামী ৪ জানুয়ারি থেকে সিডনিতে শুরু হবে সিরিজের চতুর্থ টেস্ট।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
অস্ট্রেলিয়া : ৩২৭ ও ২৬৩/৪ডি, ১২৪.২ ওভার (স্মিথ ১০২*, ওয়ার্নার ৮৬, রুট ১/১)।
ইংল্যান্ড : ৪৯১/১০, ১৪৪.১ ওভার (কুক ২৪৪*, রুট ৬১, কামিন্স ৪/১১৭)।
ফল : ড্র।
ম্যাচ সেরা : অ্যালিস্টার কুক (ইংল্যান্ড)।
সিরিজ : পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে ইংল্যান্ড।