ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

আন্তর্জাতিক সংবাদ : নির্ধারিত সময়ে কম্বোডিয়ার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে : কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী   |   

শ্রীলংকার বিপক্ষে আরেকটি সিরিজ জয়ের দ্বার প্রান্তে ভারত

ইন্দোর, ২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : উপমহাদেশের দল শ্রীলংকার বিপক্ষে আরেকটি সিরিজ জয়ের দ্বার প্রান্তে ভারতীয় ক্রিকেট দল। চলতি সফরে এর আগে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজে শ্রীলংকাকে হারিয়েছে ভারত। এরপর কটকে দাপট দেখিয়ে টুয়েন্টি টুয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে নেয় স্বাগতিক ভারত। ফলে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে টিম ইন্ডিয়া। আগামীকাল দ্বিতীয় টি-২০ জিতলেই সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের। এক ম্যাচ হাতে রেখেই ইন্দোরে সিরিজ জয় নিশ্চিত করতে চায় রোহিত শর্মার দল। তবে সিরিজে সমতা আনার লক্ষ্য নিয়ে আগামীকাল খেলতে নামবে শ্রীলংকা। ইন্দোরে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।
সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে ভারত। দলীয় ১৭ রানে অধিনায়ক রোহিত শর্মা ফিরে গেলেও, আরেক ওপেনার লোকেশ রাহুলের ৪৮ বলে ৬১, সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ২২ বলে অপরাজিত ৩৯ ও মনিষ পান্ডের ১৮ বলে অপরাজিত ৩২ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৮০ রানের বড় সংগ্রহ পায় ভারত।
দলীয় ১১২ রানে তৃতীয় উইকেট হারানোর পর ভারতের রান তোলায় ভাটা পড়ে। কিন্তু চতুর্থ উইকেটে ৩৩ বলে অবিচ্ছিন্ন ৬৮ রান করেন ধোনি ও পান্ডে। এসময় ধোনি ৪টি চার ও ১টি ছক্কা এবং পান্ডে ২টি করে চার ও ছক্কা মারেন। দুজনের দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুন্যে শ্রীলংকার সামনে চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছুড়ে দেয় ভারত।
জয়ের জন্য ১৮১ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে শ্রীলংকানরা। মিডিয়াম পেসার হার্ডিক পান্ডিয়া ও ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হওয়া ডান-হাতি লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্রা চাহালের স্পিন বিষে মাত্র ৮৭ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলংকার ইনিংস। ফলে ৯৩ রানে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত। নিজেদের টি-২০ ইতিহাসে এটি ভারতের সবচেয়ে বড় জয়। ২০১২ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৯০ রানের জয়টি এতোদিন ভারতের বড় জয় ছিলো।
ব্যাটসম্যান ও বোলারদের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে খুশী ভারতের অধিনায়ক রোহিত। দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচেও এমন পারফরমেন্স দেখতে চান তিনি। এমন পারফরমেন্স দিয়ে ইন্দোরেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করার কথাও বললেন রোহিত, প্রথম ম্যাচে আমরা খুবই ভালো পারফরমেন্স করেছি। ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব নিয়ে খেলেছে এবং বোলাররা লাইন-লেন্থ ও পরিকল্পনা অনুযায়ী বোলিং করেছে। এতে আমাদের জয়টা সহজ হয়ে গেছে। তবে আমরা ভেবেছিলাম, ভালো লড়াই হবে। কিন্তু শ্রীলংকারা লড়াই করতে পারেনি আমাদের বোলারদের কারনে। ইন্দোরেও সেরা পারফরমেন্স উজার করে দেবো আমরা। আমাদের লক্ষ্য সিরিজ জয়। আর এই কাজটি দ্বিতীয় ম্যাচেই সম্পন্ন করতে চাই । এ ম্যাচেও আক্রমনাত্মক এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী ক্রিকেট খেলবো আমরা।
প্রথম ম্যাচ হেরে সিরিজে পিছিয়ে পড়েছে শ্রীলংকা। এখন সিরিজ হারের মুখে তারা। তাই এ ম্যাচ দিয়েই ঘুড়ে দাঁড়াতে চায় লংকানরা। এমনটাই বললেন শ্রীলংকার অধিনায়ক থিসারা পেরেরা, আমাদের সামনে জয় ছাড়া আর কোন পথ খোলা নেই। সিরিজে টিকে থাকতে হলে ইন্দোরের ম্যাচে আমাদের জিততেই হবে। আশা করছি ভালো ফল করতে পারবো। তবে আমাদের ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিয়ে বড় ইনিংস খেলতে হবে। টি-২০ ফরম্যাটে বোলাররা রান দেবেই, কিন্তু ব্যাটসম্যানদের তো বড় ইনিংস খেলার সুযোগ থাকে। একই দিন বোলার ও ব্যাটসম্যানরা ভালো কিছু করতে না পারলে ম্যাচ হারা ছাড়া অন্য কোন উপায় থাকে না। আশা করছি, পরের ম্যাচে ভালো কিছু করতে পারবো।