ঢাকা, রবিবার, জানুয়ারী ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

বিভাগীয় সংবাদ : মুকসুদপুরে একই যন্ত্রের সাহায্যে এক সাথে ধানের চারা রোপণ ও দানাদার ইউরিয়া সার প্রয়োগ * মাগুরায় উচ্চ ফলনশীল সরিষার চাষ বেড়েছে * ভোলায় স্বাধীনতা জাদুঘর উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে   |   রাষ্ট্রপতি : বঙ্গভবন থেকে রাষ্ট্রপতির আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ    |    জাতীয় সংবাদ : আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত * এ বছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ করতে পারবেন   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : চিলিতে ৬ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্প * কাবুলে হোটেলে হামলায় নিহত ৫ : আফগান গোয়েন্দা সংস্থা *যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে সোমবার ভোট *   |   খেলাধুলার সংবাদ : নেইমারকে নিয়ে জিদানের আশাবাদ * হ্যাজার্ডের দুই গোলে চেলসির জয় * আইপিএল নিলামে অংশ নিবেন ৫৭৮ জন খেলোয়াড়   |   

শুরু করলো নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা, শেষ করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা

ওয়েলিংটন, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস/এএফপি) : হ্যামিল্টনে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম দিনটা দারুনভাবে শুরু করেছিলো স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। তবে দিনের শেষ ভাগে অসাধারণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা। ১ উইকেটে ১৫৪ থেকে দিন শেষে ৭ উইকেটে ২৮৬ রান তুলে কিউইরা। চা-বিরতির কিছুক্ষণ আগ থেকে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের সামনে জ্বলে উঠেন ক্যারিবীয় বোলাররা। এক পর্যায়ে মিডল-অর্ডারের মাত্র ৩৫ রানে ৪ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।
সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের অনিয়মিত অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। উদ্বোধনী জুটিতে দলকে ৬৫ রানের সূচনা এনে দেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার জিত রাভাল ও টম লাথাম। ২২ রানে থাকা লাথামকে বিদায় দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রথম ব্রেক-থ্রু এনে দেন মিগুয়েল কামিন্স।
এরপর শক্ত হাতে দলের হাল ধরেন রাভাল ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। এ জুটির বদৌলতে দলের স্কোর দেড়শ ছাড়িয়ে যায়। রাভাল হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নিলেও, অর্ধশতকের অপেক্ষায় ছিলেন উইলিয়ামসন। কিন্তু তাকে সেটি করতে দেননি নিউজিল্যান্ডের প্রথম উইকেট শিকার করা কামিন্স। ৪৩ রানে বিদায় নেন উইলিয়ামসন।
দলীয় ১৫৪ রানে দ্বিতীয় উইকেট হিসেবে উইলিয়ামসন ফিরে যাবার পর মিনি ধস নামে নিউজিল্যান্ডের। ১৮৯ রানে পৌঁছাতে আরও ৩ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। রাভাল ৮৪, রস টেইলর ১৬ ও হেনরি নিকোলস ১৩ রান করে ফিরেন।
৩৫ রানে হঠাৎ ৪ উইকেট হারানোর ধাক্কা সামাল দেয়ার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেন মিচেল স্যান্টনার ও প্রথম টেস্টে দ্রুততম সেঞ্চুরি করা কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের সামনে প্রতিরোধ গড়ে তুলেন তারা। তাই দিন শেষে ভালো অবস্থায় থাকার স্বপ্ন দেখছিলো নিউজিল্যান্ড।
কিন্তু দিনের শেষভাগে নিউজিল্যান্ড শিবিরে জোড়া আঘাত হানেন রাভালকে শিকার করা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শ্যানন গাব্রিয়েল। স্যান্টনার ও গ্র্যান্ডহোমকে নিজের শিকার বানান তিনি। স্যান্টনার ২৪ রানে ফিরলেও, টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরি তুলে আউট হন গ্র্যান্ডহোম। ৫টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৬৩ বলে ৫৮ রান করেন তিনি। প্রথম টেস্টে ৭৪ বলে ১০৫ রান করেছিলেন গ্র্যান্ডহোম।
১০ রানের ব্যবধানে স্যান্টনার ও গ্র্যান্ডহোমকে হারানোর পর দিনের বাকী ১৭ বলে আর কোন বিপদ ঘটতে দেননি নিউজিল্যান্ডের উইকেটরক্ষক টম ব্লান্ডেল ও নিল ওয়াগনার। ব্লানডেল ১২ ও ওয়াগনার ১ রানে অপরাজিত থাকেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের গাব্রিয়েল ৩টি উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
নিউজিল্যান্ড : ২৮৬/৭, ৮৭ ওভার (রাভাল ৮৪, গ্র্যান্ডহোম ৫৮, গ্যাব্রিয়েল ৩/৭৯)।