ঢাকা, বুধবার, মে ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : চুয়েটে পিএইচডি এমফিল ও মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি শুরু   |    জাতীয় সংবাদ : সাংবাদিক কামাল উদ্দিনের ইন্তেকাল *বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত   |   প্রধানমন্ত্রী : ছাত্র বৃত্তি সঠিকভাবে বিতরণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী   |   খেলাধুলার সংবাদ : লিভারপুলের আক্রমণভাগকে সমীহ করলেও নিজেদেরই সেরা ভাবছেন রোনাল্ডো * ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখেন কেন * আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন মেসি   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : বিতর্কিত ভোটে নির্বাচিত মাদুরোকে এরদোগানের অভিনন্দন * ইরানের সরকার পরিবর্তেনের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র * স্কুলে বন্দুক হামলা প্রতিরোধে বিশেষজ্ঞ ও রাজনীতিবিদদের সঙ্গে টেক্সাস গভর্নরের বৈঠক   |    বিভাগীয় সংবাদ : সাতক্ষীরার মুক্তামণি আর নেই * কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক বন্দুুকযুদ্ধে দুই মাদক বিক্রেতা নিহত * জয়পুরহাটে বোরো ধান কাটা-মাড়াই উৎসব চলছে   |   

৫টি বাঁধ নির্মাণের কারণে ছাতকে নির্বিঘ্নে বোরো ফসল তুলছেন কৃষকরা

সিলেট, ২১ এপ্রিল, ২০১৮ (বাসস) : সুনামগঞ্জের ছাতকে বন্যা ও পাহাড়ি ঢল থেকে বোরো ধান রক্ষায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে অতিরিক্ত ৫টি বাঁধ নির্মাণের ফলে নির্বিঘ্নে ফসল তুলছেন কৃষকরা।
পূর্বের নির্ধারিত ৭টি বাঁধ ছাড়াও উপজেলার জাউয়াবাজার ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ফসল রক্ষায় ছোট-বড় ৫টি বাঁধ নির্মাণ করা হয়।
ইতিমধ্যেই বিশেষ প্রকল্পের ওই ৫টি বাঁধের নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়েছে।
ছাতক উপজেলার জাউয়াবাজার ইউনিয়নের কুড়িবিল ও এর আশপাশে রয়েছে সহস্রাধিক হেক্টর বোরো জমি। কুড়ি বিলের খাল, উগলীছড়া, তারাপুর খেলুর ঢালা, গনীর হাওরের ঢালা ও মৌ-আলুর খাল কুড়ি বিলের প্রবেশ মুখ। এসব খাল দিয়ে গত বছর বন্যার পানি প্রবেশ করে বোরো ফসল তলিয়ে যায়।
যার ফলে এসকল হাওরের ফসল তোলা থেকে বঞ্চিত হন কৃষকরা।
বিষয়টি অবগত হওয়ার পর স্থানীয় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হুসেন এসব স্থানে (ভাঙ্গায়) বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে বাঁধ নির্মাণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান সংশ্লিষ্ট দপ্তরে। গত ২৫ মার্চ পানি উন্নয়ন বোর্ড বরাবর খালসমূহের মুখ, ভাঙন ও ঝুঁকিপূর্ণ স্থান বন্ধকরনে উগলীছড়া মুখে ০.০৪৫ কি.মি বাঁধের বিপরীতে ৩ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা, কুড়ি বিল, গনীর ঢালা ও তারাপুর-সুড়িগাঁও ভাঙ্গায় ০.১ কি.মি বাঁধের বিপরীতে ৪ লক্ষ ৯৩ হাজার টাকা এবং মৌ-আলুর ভাঙ্গায় ০.০৭ কি.মি বাঁধের বিপরীতে ৩ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা বরাদ্ধ চেয়ে একটি প্রস্তাবনা পাঠানো হয়।
ওই প্রস্তাবনার প্রেক্ষিতে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বিশেষ প্রকল্পে বাঁধের নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ইতিমধ্যেই বিশেষ প্রকল্পের ওই ৫টি বাঁধের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ হুসেন জানান, এমপি মুহিবুর রহমান মানিকের প্রচেষ্টায় বিশেষ এসব বাঁধ নির্মাণ করায় জাউয়ার কুড়িবিলসহ দেখার হাওরের ফসল বন্যা থেকে অনেকাটাই নিরাপদ রয়েছে। স্থানীয় কৃষকরা অনেকটা চিন্তা মুক্ত থেকে এখন ফসল তোলার কাজে ব্যস্ত রয়েছেন।