ঢাকা, বুধবার, মে ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : চুয়েটে পিএইচডি এমফিল ও মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি শুরু   |    জাতীয় সংবাদ : এসডিজি অর্জনে দেশকে জঙ্গি, মাদক ও জলদস্যু-বনদস্যু মুক্ত করতে হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী * সাংবাদিক কামাল উদ্দিনের ইন্তেকাল *বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত   |   প্রধানমন্ত্রী : বিচারপতি এবং কূটনীতিকদের সম্মানে প্রধানমন্ত্রীর ইফতার * ছাত্র বৃত্তি সঠিকভাবে বিতরণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী   |   খেলাধুলার সংবাদ : লিভারপুলের আক্রমণভাগকে সমীহ করলেও নিজেদেরই সেরা ভাবছেন রোনাল্ডো * ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখেন কেন * আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন মেসি   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : বিতর্কিত ভোটে নির্বাচিত মাদুরোকে এরদোগানের অভিনন্দন * ইরানের সরকার পরিবর্তেনের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র * স্কুলে বন্দুক হামলা প্রতিরোধে বিশেষজ্ঞ ও রাজনীতিবিদদের সঙ্গে টেক্সাস গভর্নরের বৈঠক   |    বিভাগীয় সংবাদ : সাতক্ষীরার মুক্তামণি আর নেই * কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক বন্দুুকযুদ্ধে দুই মাদক বিক্রেতা নিহত * জয়পুরহাটে বোরো ধান কাটা-মাড়াই উৎসব চলছে   |   

গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় নিহত ৩, আহত ৬

গোপালগঞ্জ, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : জেলায় যাত্রীবাহী বাসের চাপায় ৩ জন নিহত এবং অপর ৬ পথচারী আহত হয়েছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনগণ ঘাতক বাসটিতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল আগুন নিভাতে গিয়ে জনরোষের শিকার হন। বৃহস্পতিবার দুপুরে গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া সড়কের সদর উপজেলার কাঠি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, আবুল কালাম মোল্লা (৪৫), হামিম (৩৫) ও আল আমিন (৪০)। এদের সবার বাড়ি সদর উপজেলার কাঠি ও খানারপাড় গ্রামে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মায়ের দোয়া নামের একটি যাত্রীবাহী লোকাল বাস কোটালীপাড়া থেকে গোপালগঞ্জ আসার পথে দত্তডাঙ্গা নামক স্থানে দুই পথচারীকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাবার চেষ্টা করে। এসময় বাসটি সদর উপজেলার কাঠি এলাকায় এসে আরো ৭ যাত্রী বহনকারী একটি ভ্যানকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুইজন নিহত ও অপর ৫ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে গোপালগঞ্জে ৫ জন এবং ২জনকে কোটালীপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে আল আমিনের অবস্থার অবনতি ঘটলে ঢাকা নেওয়ার পথে বেলা আড়াইটার দিকে সে মারা যায়। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনগন ঘাতক বাসটি আটক করে আগুন দিয়ে পুড়িয় দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল আগুন নিভাতে গিয়ে জনরোষের শিকার হন।
গোপালগঞ্জ সদরের পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা জানান, ঘটনার পর রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে এলাকার ক্ষুব্ধ জনগণ যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। প্রায় এক ঘন্টা রাস্তায় যানবাহন বন্ধ থাকার পর পুলিশের আশ্বাসের ভিত্তিতে আবার যানবাহন চলাচল শুরু হয়।