ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মে ২৪, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : প্রতিটি বাড়ি উৎপাদনের কেন্দ্রবিন্দু করা হবে : এলজিআরডি মন্ত্রী * শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ আবারো গণতন্ত্র ও বিস্ময়কর উন্নয়নের পথে হাঁটছে : তথ্যমন্ত্রী   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ইয়েমেনী দ্বীপে ঘূর্ণিঝড় মেকেনুর আঘাত, ৭ জন নিখোঁজ * ভেনিজুয়েলার ২ কূটনীতিককে বহিষ্কারের নির্দেশ যুক্তরাষ্ট্রের * মালয়েশিয়ায় দ্বিতীয়বারের মতো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুর্নীতি দমন সংস্থায় নাজিব   |    জাতীয় সংবাদ : মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক অবস্থান সুদৃঢ় করতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর * ঢাকায় বিধবা ভাতা প্রদান করা হবে : সমাজকল্যাণমন্ত্রী * ঈদ উপলক্ষে রেলের সার্বিক প্রস্তুতি : অগ্রিম টিকেট বিক্রি ১ জুন শুরু * বার কাউন্সিল নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফল শনিবার    |   শিক্ষা : জয়পুরহাটে প্রাথমিক পর্যায়ে ৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা উপবৃত্তি বিতরণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : নেইমারের মাদ্রিদে আসার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন রোনাল্ডো *রোমেরোর ইনজুরি নিয়ে হতাশ মাশচেরানো   |   শিক্ষা : রোমেরোর ইনজুরি নিয়ে হতাশ মাশচেরানো *নেইমারের মাদ্রিদে আসার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন রোনাল্ডো   |    বিভাগীয় সংবাদ : মেহেরপুরে এবার ১০ কোটি টাকার লিচু কেনা-বেচা হবে *সুনামগঞ্জে জুলাই মাসেই টেক্সটাইল ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজ শুরু * নাটোরে আম সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু আগামীকাল *কাজ করে যাচ্ছে কেরানীগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস   |   

আল-কায়েদার সাথে সম্পর্কযুক্ত সৌদি নাগরিককে গ্রেফতার যুক্তরাষ্ট্রের

ওয়াশিংটন, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ (বাসস ডেস্ক): মার্কিন কর্তৃপক্ষ মঙ্গলবার জানিয়েছে, ওকলাহোমায় অনেকদিন ধরে বসবাস করা এক সৌদি নাগরিককে সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে। আল কায়েদার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এই নাগরিক যুক্তরাষ্ট্রে বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ নিয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ভিসা জালিয়াতির দুটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। খবর এএফপির।
বিচার বিভাগ জানায়, ৩৪ বছর বয়সী নায়েফ আব্দুলাজিজ আলফালাজ আফগানিস্তানে আল-কায়েদা জিহাদি ক্যাম্পে অংশ নিতে ২০০০ সালে আবেদন করে। আফগানিস্তানের কথাকথিত আল-ফারুক জিহাদি ক্যাম্পে ১১ সেপ্টেম্বরের হামলাকারীদের কয়েকজন প্রশিক্ষণ নিয়েছিল।
বিচার বিভাগ আরো জানায়, নন-ইমিগ্রেশন ভিসায় ২০১১ সালে সে সস্ত্রীক যুক্তরাষ্ট্রে আসে। ২০১৬ সালে সে ওকলাহোমা ফ্লাইট স্কুল থেকে বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ নেয়।
২০০১ সালে আফগানিস্তানে আল-কায়েদার গোপন আস্তানা থেকে মার্কিন সামরিক বাহিনীর উদ্ধার করা কাগজপত্রের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি রেকর্ডবুকে থাকা আঙ্গুলের ছাপ মিলানোর পর সম্প্রতি তাকে সনাক্ত করা হয়।
এসবের মধ্যে সৌদি আরবে যোগাযোগের একটি জরুরি নম্বরসহ আল-ফারুক ক্যাম্পে আবেদনের প্রমাণ ছিল। আর এ জরুরি নম্বরের সাথে আল-ফালাজের বাবার যোগসূত্র ছিল।
তবে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের হামলার সাথে আলফালাজের কোন সংশ্লিষ্টতা রয়েছে কিনা সে ব্যাপারে কর্মকর্তারা জোর দিয়ে কিছু বলেননি। ওই হামলার সাথে জড়িত ১৯ বিমান ছিনতাইকারীর ১৫ জনই সৌদি আরবের ছিল।
এদের মধ্যে কয়েকজন তাদের হামলা চালানোর আগে যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরে বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ নেয়।
আলফালাজের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রতিটির ক্ষেত্রে তার সর্বোচ্চ ১০ বছরের সাজা হতে পারে।