ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২০, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : আসাদের আত্মত্যাগে স্বাধীনতা আন্দোলন আরো গতিশীল হয় : প্রধানমন্ত্রী * মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের আকাশে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র : প্রধানমন্ত্রী * সাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়তে প্রাণিসম্পদ খাতের গুরুত্ব অপরিসীম : শেখ হাসিনা   |   রাষ্ট্রপতি : শহীদ আসাদের সর্বোচ্চ অবদান তরুণ প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে : রাষ্ট্রপতি * প্রাণিস্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে ২০৩০ সালে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে : রাষ্ট্রপতি * মধুসূদন দত্ত বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন : রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : শহীদ আসাদ দিবস কাল * বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে : আসাদুজ্জামান খাঁন * এমপিও ভূক্তির জন্য শিক্ষকদের আন্দোলনের প্রয়োজন নেই : আইনমন্ত্রী   |    বিভাগীয় সংবাদ : যশোরের সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা * মাগুরায় ১০ কিলোমিটার মহাসড়কে চার লেনের কাজ এগিয়ে চলছে   |   শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে ঢাকা কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ আগামীকাল   |    জাতীয় সংবাদ : বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্ব শুরু, লাখো মুসুল্লির জুমার নামাজ আদায় * নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিএনপি জনপ্রিয়তা যাচাই করতে পারে : হানিফ * তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন * আইভীকে দেখতে হাসপাতালে ওবায়দুল কাদের   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহারে উড়োজাহাজ তৈরি করেছে গোপালগঞ্জের কিশোর আরমানুল ইসলাম   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : দ.কোরিয়ায় অগ্রবর্তী বাদকদল পাঠাবে উ.কোরিয়া * আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর অভিযানে ৮ জঙ্গি নিহত * ইরানের পারমাণু চুক্তির শর্ত কঠিন করাই মার্কিন আইনপ্রণেতাদের লক্ষ্য   |   আবহাওয়া : আবহাওয়া শুষ্ক এবং রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : রেকর্ড ব্যবধানে শ্রীলংকাকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ *তামিমের ১১, সাকিবের ১০ ও সাব্বিরের ১ হাজার রান *৩শ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মুশফিকুর রহিম   |   

নেপালে বিধিনিষেধ সত্ত্বেও খ্রিষ্টান মিশনারীদের তৎপরতা বেড়েছে

রিচেত (নেপাল), ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস ডেস্ক) : নেপালে ধর্মান্তরণের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও দেশটিতে খ্রিষ্টান মিশনারীদের তৎপরতা বেড়েছে। প্রলয়ঙ্করী ভূমিকম্পে দেশটির রিচেত গ্রামের সবকিছু লণ্ডভণ্ড হয়ে যাওয়ার দুই বছর পর শুধু গ্রামের চার্চটি পুনরায় নির্মাণ করা হয়েছে। হিন্দু প্রধান দেশটিতে খ্রিষ্টান মিশনারীদের প্রভাব বেড়ে যাচ্ছে।
ধর্মান্তরণের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও নেপালে বিগত দুই দশক ধরে খ্রিষ্টান ধর্মের মানুষের সংখ্যা দ্রুত বেড়ে যাচ্ছে।
খবর এএফপির।
এই ধর্মান্তরণকে অনেকেই হিন্দু ধর্মের কঠোর জাত প্রথা থেকে নিষ্কৃতির উপায় হিসেবে দেখছে।
দুই শতাব্দী ধরে হিমালয়ের পাদদেশের এই দেশটি হিন্দু রাজতন্ত্রের অধীনে ছিল। নেপালে ২০০৮ সালে রাজতন্ত্রের অবসান ঘটে। দেশটিতে বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলে বৌদ্ধ ঐতিহ্যের জোরালো প্রভাব রয়েছে।
কিন্তু প্রত্যন্ত লাপা উপত্যকায় এখন খ্রিষ্টানদের প্রাধান্য চলছে। এই অঞ্চলেই রিচেত অবস্থিত।
এখানকার অনেক বাসিন্দাই হিন্দু থেকে ধমান্তরিত হয়ে খ্রিষ্ট ধর্ম গ্রহণ করেছেন।
রিকা তামাং হিন্দু থেকে খ্রিষ্ট ধর্ম গ্রহণ করেছেন। তার মা একবার অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় এক ধর্মগুরু তাদের পশু বলি দিতে বলেন। দরিদ্র হওয়ায় তাদের কাছে পশু কেনার অর্থ ছিল না।
তিনি বলেন, আমার কাছে যাই থাকত, দেবতার নামে তাকে উৎসর্গ করতে হতো।
এখন তিনি লাপা উপত্যাকায় অবস্থিত তার গ্রামের একজন খ্রিষ্টান যাজক।
তামাং বলেন, আমি খ্রিষ্ট ধর্ম গ্রহণ করার পর আমাকে কোন উৎসর্গ করতে হয়নি। আমি ওই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেয়েছি।
২০১১ সালের সরকারি আদমশুমারী অনুযায়ী নেপালে খ্রিষ্ট ধর্মের লোকের সংখ্যা ১ দশমিক ৫ শতাংশ।
কিন্তু খ্রিষ্টান গ্রুপগুলোর ধারণা নেপালে ত্রিশ লাখ খ্রিষ্ট ধর্মের অনুসারী রয়েছে।