ঢাকা, বুধবার, মে ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : চুয়েটে পিএইচডি এমফিল ও মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি শুরু   |    জাতীয় সংবাদ : সাংবাদিক কামাল উদ্দিনের ইন্তেকাল *বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ জন নিহত   |   প্রধানমন্ত্রী : ছাত্র বৃত্তি সঠিকভাবে বিতরণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী   |   খেলাধুলার সংবাদ : লিভারপুলের আক্রমণভাগকে সমীহ করলেও নিজেদেরই সেরা ভাবছেন রোনাল্ডো * ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখেন কেন * আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন মেসি   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : বিতর্কিত ভোটে নির্বাচিত মাদুরোকে এরদোগানের অভিনন্দন * ইরানের সরকার পরিবর্তেনের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র * স্কুলে বন্দুক হামলা প্রতিরোধে বিশেষজ্ঞ ও রাজনীতিবিদদের সঙ্গে টেক্সাস গভর্নরের বৈঠক   |    বিভাগীয় সংবাদ : সাতক্ষীরার মুক্তামণি আর নেই * কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক বন্দুুকযুদ্ধে দুই মাদক বিক্রেতা নিহত * জয়পুরহাটে বোরো ধান কাটা-মাড়াই উৎসব চলছে   |   

রাবিতে আর্সেনিক গবেষণার এক দশক পূর্তি উদযাপন

ঢাকা, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : জাপানের টকুশিমা বুরনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মলিকুলার নিউট্রিয়েশন অ্যান্ড টক্সিকোলজি বিভাগ এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের যৌথ গবেষণার এক দশক পূর্তি উদযাপন করা হয়েছে।
এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার হেলথ ইফেক্টস অফ ক্রনিক একপোসিউর টু আর্সেনিক শিরোনামে একটি সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করা হয়।
জাপানের টকুশিমা বুরনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সেইসিরো হিমনুর সঙ্গে রাবি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও পরিবেশ স্বাস্থ্য বিজ্ঞান গবেষণাগারের প্রধান গবেষক ড. খালেদ হোসেন যৌথভাবে আর্সেনিকের স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে এই গবেষণা করেন।
বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান অনুষদ ডিন কনফারেন্স রুমে সকালে শুরু হয়ে দুপুর পর্যন্ত চলে সিম্পোজিয়াম।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. অরুণ কুমার বসাক ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আক্তার ফারুক প্রমুখ বক্তব্য দেন।
রাবি অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে সিম্পোজিয়াম বক্তব্য দেন জাপানি অধ্যাপক ড. হিমনু।