ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে কমনওয়েলথের দৃঢ় অবস্থান   |    জাতীয় সংবাদ : প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরই মহার্ঘ্য ভাতা সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন : ইনু * বিসিএসআইআর মডেল রাস্তা নির্মাণে জাপানের টুইস্টার টেকনোলজি ব্যবহার করবে * জাতিসংঘের ৫৪টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩২৮ জন শান্তিরক্ষীর অংশ গ্রহণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : ইংল্যান্ডের নির্বাচক হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাবেক ব্যাটসম্যান স্মিথ *ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে না ভারত * ওয়েঙ্গারের উত্তরসূরী হিসেবে পাঁচজনকে বিবেচনা করা হচ্ছে * ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে জয়ের ধারায় ফিরলো চেন্নাই   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : মেহেরপুরের মোমিনুলের আর্সেনিকমুক্ত প্লান্ট আবিস্কার *পিরোজপুর আধুনিক কারাগারের নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে    |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় জাপান *সিনেট প্যানেলে প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন পম্পেও * অশালীন ভিডিও : সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হলো নারী শরীরচর্চা কেন্দ্র *পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে ইতিবাচক পদক্ষেপ উ.কোরিয়ার   |   

শরীয়তপুরে জাজিরায় জনপ্রিয় হয়ে উঠছে জৈব বালাই দমন পদ্ধতি

শরীয়তপুর, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : বাজারে বিষমুক্ত সবজির চাহিদা বৃদ্ধি ও দাম বেশি পাওয়ায় শরীয়তপুরের জাজিরায় জনপ্রিয় হয়ে উঠছে জৈব বালাই দমন পদ্ধতি বা সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপের ব্যবহার। জাজিরা ছাড়াও জেলার অন্যান্য এলাকার সবজি উৎপাদনকারী কৃষকরা জৈব বালাই দমন পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে নির্দিষ্ট সবজিতে প্রায় ৭ হাজার টাকার কীটনাশক সাশ্রয় হচ্ছে। ফলে কৃষকদের কাছে দিন দিন আরও জনপ্রিয় উঠছে সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপ পদ্ধতি।
সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপ বা জৈব বালাই দমন পদ্ধতি নিরাপদ ও বিষমুক্ত সবজি উৎপাদনে এটি একটি অত্যন্ত সহজ এবং কার্যকর পদ্ধতি। জমির পরিমাণ অনুযায়ী বিঘাপ্রতি প্লাটিকের কৌটা ও লিউর ৮-১০ টির প্রয়োজন হয়। প্লাটিকের কৌটার মূল্য ৩০ টাকা ও লিউরের দাম ৩০ টাকা। যাতে গড়ে বিঘাপ্রতি ব্যয় ৩০০-৩৫০ টাকা। সরেজমিনে দেখা গেছে কৃষি বিভাগসহ বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা নিরাপদ সবজি উৎপাদনে মাঠ পর্যায়ে অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা পালন করছে।
জৈব বালাই দমন পদ্ধতি বা সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপ পদ্ধতি ব্যবহার করে সবজি উৎপাদন করছেন শরীয়তপুরের জাজিরা সহ অন্যান্য উপজেলার সবাজি চাষিরা। এ পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে পোকা দমন সহ পোকার বংশ বিস্তার রোধ হওয়ায় সবজির প্রকার ভেদে বিঘাপ্রতি ৫ হাজার ৬০০ টাকা থেকে ৬ হাজার ৪০০ টাকা পর্যন্ত কীটনাশক ব্যয় সাশ্রয় হচ্ছে। কীটনাশকমুক্ত সবাজির বাজারে চাহিদা বাড়ার ফলে উৎপাদনকারীরা দামও পাচ্ছেন ভাল। জৈব বালাই দমন পদ্ধতিতে বেগুন ও করলায় সবচেয়ে বেশী কার্যকর। এছাড়াও লাউ, শশা, মিষ্টি কুমড়া, ঝিঙ্গা, চিচিংগা, ফুলকপি, বাধাকপি সহ নানা সবজি উৎপাদনে কৃষকরা এখন জৈব বালাই দমন পদ্ধতি ব্যবহার করছেন।
জাজিরা উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের কৃষক মো: সোহেল খান বলেন, জৈব বালাই দমন পদ্ধতি ব্যবহারের আগে আমার প্রতি বিঘা করলা আবাদে কীটনাশক লাগতো ৮ হাজার টাকা। কিন্তু গত বছর থেকে মাত্র ২ হাজার টাকা ব্যয়ে জৈব বালাই দমন পদ্ধতিতে পোকা দমন করে করলা আবাদ করছি। ফলে পোকা দমনের খরচ কমা ছাড়াও এখন করলার দামও পাচ্ছি কেজি প্রতি ৭-৮ টাকা বেশি।
একই উপজেলার মুলনার ইউনিয়নের কৃষক ফারুক হোসেন মোল্লা বলেন, সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপ ব্যবহারের আগে প্রতি বিঘা বেগুনের পোকা দমন করতে প্রায় ৭ হাজার টাকার কীটনাশক লাগত। কিন্তু এখন সেখানে মাত্র ১ হাজার ৫০০ টাকায় হয়ে যায়। তাছাড়া কীটনাশক ব্যবহারে শরীরের যে ক্ষতি হতো এখন আমি সেটা থেকেও রক্ষা পাচ্ছি। এ পদ্ধতিটি অত্যন্ত কার্যকর এবং স্বাস্থ্যসম্মত।
জাজিরা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো: হাবিবুর রহমান প্রতিবেদককে বলেন, বিষমুক্ত নিরাপদ সবজি উৎপাদনে সেক্স ফেরোমন ট্র্যাপ একটি যুগান্তকারী ও কার্যকর পদ্ধতি। তাছাড়া বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন নিশ্চিত করা গেলে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে সবজি রপ্তানি করে আমাদের কৃষকদের স্বাবলম্বী হওয়ার পথ অনেকটাই সুগম হবে। যা আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।