ঢাকা, মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ৬ মে থেকে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু * ২০১৮ সালের হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধনের চূড়ান্ত ক্রম প্রকাশ * যুদ্ধাপরাধ মামলায় এনএসআইয়ের সাবেক ডিজি গ্রেফতার   |   প্রধানমন্ত্রী : চট্টগ্রামবন্দর দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে : প্রধানমন্ত্রী * বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক * গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ এওয়ার্ড পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী   |   রাষ্ট্রপতি : দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ * ভূ-রাজনৈতিক বিবেচনায় চট্টগ্রাম বন্দরের গুরুত্ব আজ বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি : রাষ্ট্রপতি * কবি বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক   |    জাতীয় সংবাদ : আগামী জাতীয় নির্বাচনে বহিঃবিশ্বের হস্তক্ষেপ আশা করে না আওয়ামী লীগ : ওবায়দুল কাদের * রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ২৬১.৮৮ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে * ১৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে এএসইউ প্ল্যান্টের উদ্বাধন    |   খেলাধুলার সংবাদ : চেলসিকে হারিয়ে ইউয়েফা ইয়ুথ লীগের শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা * তিন বছরের জন্য রোমার জার্সির পৃষ্ঠপোষক হলো কাতার এয়ারওয়েজ * আরেকটি ট্রেবল জয়ের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হেইঙ্কেস   |    জাতীয় সংবাদ : বাংলাদেশের সাবলিল উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতার আহ্বান অর্থমন্ত্রীর * বিশিষ্ট কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই * বাংলাদেশের পর্যটন খাতে বিনিয়োগে বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী আহ্বান   |   আবহাওয়া : সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুস্ক থাকতে পারে    |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : মেক্সিকোতে নিখোঁজ ৩ ছাত্র বেঁচে নেই * চীনে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু *কাবুলে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের * টরেন্টোতে পথচারীদের ওপর গাড়ি তুলে দেয়ার ঘটনায় নিহত ১০   |   

১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে দেশ চলেছে এবং তাঁর নির্দেশেই মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে : সংস্কৃতি মন্ত্রী

ঢাকা, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, ১৯৭১ সালের মার্চ মাস থেকেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে দেশ চলেছে এবং তাঁর নির্দেশেই মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে।
১৯৭১ সালের ১৪ মার্চ পুলিশের অস্ত্র কেড়ে নেয়ার মধ্যদিয়ে নীলফামারী জেলায় (তৎকালীন মহকুমা) মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, তখন তারা কালুঘাটের কোন ঘোষণার জন্য অপেক্ষা করেননি।
তাহলে সেদিন কার নির্দেশে তারা মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পরেছিলেন (?) এমন এক প্রশ্ন তুলে, মন্ত্রী নিজেই আবার এর উত্তরে বলেন, সে নির্দেশ এসেছিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ থেকে, আর সে নির্দেশ দিয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু। সেদিন তিনি বলেছিলেন-প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তোল। যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে শত্রুর মোকাবেলা করতে হবে..। বঙ্গবন্ধুর ওই নির্দেশেই বাঙালী সেদিন মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পরেছিল, কালুঘাটের ঘোষণায় নয়।
আজ দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মোবাইল কোম্পানী রবির বিজয় ইতিহাস অ্যাপ চালুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বরেণ্য চিত্রশিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার, শেরেবাংলা একে ফজলুল হকের নাতি একে ফায়াজুল হক। আরো বক্তৃতা করেন রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মাহতার উদ্দিন আহমেদ ও অ্যাপের তত্ত্বাবধায়ক খন্দকার আশরাফুল হক।
অনুষ্ঠানে মহান মুক্তিযুদ্ধের ১৫ বীরাঙ্গণা উপস্থিত ছিলেন। তাদের পক্ষে বীরাঙ্গণা ও মুক্তিযোদ্ধা হনুফা ৭১এ তার উপর ঘটে যাওয়া লোমহর্ষক নির্যাতনের ঘটনা অশ্রুসিক্ত নয়নে বর্ণনা করেন। রবির পক্ষ থেকে এ অনুষ্টানে উপস্থিত প্রত্যেক বীরাঙ্গণাকে ২৫ হাজার টাকা করে সম্মানী প্রদান করা হয়।
১৩ বছরের শিশুরাও ৭১এ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল উল্লেখ করে সংস্কৃতি মন্ত্রী বলেন, তখন ওই শিশু মুক্তিযোদ্ধাদের জিজ্ঞাসা করেছিলাম, তোরা কেন যুদ্ধে এসেছিস, কার নির্দেশে এসেছিস? উত্তরে তারা দেশ স্বাধীন করার কথা, ভালো থাকার কথা বলেছিল এবং বঙ্গবন্ধু নির্দেশে যুদ্ধে এসেছে এ কথাও তারা বলেছিল।
নূর বলেন, এতেই বোঝা যায়, ওই সময় একমাত্র বঙ্গবন্ধুর নির্দেশেই বাংলাদেশে সবকিছু ঘটেছে। অন্য কারো কোন নির্দেশে কেউ কিছুই করেনি।
রবির কর্মকর্তাগণ জানান, বিজয় ইতিহাস অ্যাপএর মাধ্যমে রবি ১৯৭১ সালে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পেছনের গৌরবময় ইতিহাসকে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছে। এই অ্যাপের মাধ্যমে ২, ৫, ১০, ২০, ৫০, ১০০ ও ৫০০ টাকার নোট স্ক্যান করলে যথাক্রমে ১৯৫২র ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪র যুক্তফ্রন্টের নির্বাচন, ১৯৫৮র সামরিক শাসন জারি, ১৯৬২র শিক্ষা আন্দোলন, ১৯৬৬র ৬ দফা আন্দোলন, ১৯৬৯এর গণঅভ্যূত্থান এবং ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের অডিও-ভিজ্যুয়াল ইতিহাস জানান যাবে। তবে এ জন্য অ্যাপটি মোবাইল, লেপটপ বা কম্পিউটারে আপলোড করতে হবে। এ অ্যাপে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের প্রতিটি স্তম্ভের অর্থকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।
এ অ্যাপের জন্য দেশের প্রচলিত টাকাকে বেছে নেয়ার কারণ প্রসঙ্গে রবি জানায়, সব টাকাতেই জাতীয় স্মৃতিসৌধের ছবি আছে, আর ধনী-গরীব সবার কাছেই টাকা থাকে। এ জন্য টাকাকে বেছে নেয়া হয়েছে। এছাড়া স্বাধীনতা অর্জনের গৌরবময় ইতিহাসকে তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতেও রবি টাকাকে বেছে নিয়েছে বলে জানায়। তবে অ্যাপটি মোবাইলে আপলোড করা থাকলে, তরুণ প্রজন্ম তাদের মোবাইল দিয়ে উল্লেখিত যে কোন টাকা স্ক্যান করলেই স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস জানতে পারবে।