ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মে ২৪, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : জয়পুরহাটে প্রাথমিক পর্যায়ে ৫ কোটি ৭১ লাখ টাকা উপবৃত্তি বিতরণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : নেইমারের মাদ্রিদে আসার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন রোনাল্ডো *রোমেরোর ইনজুরি নিয়ে হতাশ মাশচেরানো   |   শিক্ষা : রোমেরোর ইনজুরি নিয়ে হতাশ মাশচেরানো *নেইমারের মাদ্রিদে আসার বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন রোনাল্ডো   |    বিভাগীয় সংবাদ : মেহেরপুরে এবার ১০ কোটি টাকার লিচু কেনা-বেচা হবে *সুনামগঞ্জে জুলাই মাসেই টেক্সটাইল ডিপ্লোমা ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজ শুরু * নাটোরে আম সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু আগামীকাল *কাজ করে যাচ্ছে কেরানীগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস   |   

কলকাতায় আর্ট উৎসবে শিল্পী সুজন মাহাবুবের অন্বেষণ প্রদর্শিত

ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : কলকাতায় আন্তর্জাতিক পারফরমেন্স আর্ট ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের শিল্পী সুজন মাহাবুবের অন্বেষণ প্রদর্শিত হলো।
শিল্পীর এই পারফরমেন্স প্রদশর্নী গতকাল শুক্রবার শেষ হয়। উৎসবে অংশ নেয়া অন্যান্য দেশের শিল্পীদের সঙ্গে শিল্পী সুজন মাহাবুব পদযাত্রা শুরু করেন কলকাতা নিউ মার্কেট থেকে। কলকাতার বিভিন্ন এলাকা হয়ে হাওড়া স্টেশনের কাছে গঙ্গানদী হয়ে পুনরায় নিউমার্কেট এসে পারফরমেন্স শেষ হয়। এতে সময় লেগেছে তিন দিন।
কলকাতায় আন্তর্জার্তিক পারফরমেন্স আর্ট ফেস্টিভ্যাল থেকে আজ ঢাকায় ফিরে শিল্পী সুজন মাহাবুব বাসসকে এই তথ্য জানান।
তিনি জানান, উৎসবের পারফরমেন্স ভেন্যু ছিল বিভিন্ন সড়ক, সড়কের মোড়, যেখানে লোকজন বেশি সেই সব স্থানে।
তিনি বলেন, বিভিন্ন শিল্পীর সঙ্গে ২৪ জানুয়ারি কলকাতার নিউমার্কেট থেকে আমরা পারফরমেন্স শুরু করি। পদযাত্রায় পথে পথে পারফরমেন্স চলতে থাকে। বিভিন্ন দেশের শিল্পীরা এতে অংশ নেন। আমি আমার অন্বেষণ প্রদর্শন করেছি। এই পদযাত্রা ২৬ জানুয়ারি হাওড়ায় গিয়ে শেষ হয়। তিন দিনের এই প্রদর্শনী কলকাতার শত শত লোক উপভোগ করেছে। আমার পারফরমেন্স অন্বেষণ নিউমার্কেট, বাবুঘাট, হাওড়া স্টেশন, সায়েন্স সিটি, হাওড়ায় গঙ্গাপারে প্রদর্শন করেছি। এই প্রদর্শনী হাওড়া থেকে আবার শুরু হয়ে পুনরায় নিউমার্কেটে এসে শেষ হয়।
কলকাতার পারফরমেন্স আর্টর সংগঠন কিফাপ এই উৎসবের আয়োজন করে। ২৩ থেকে ২৬ জানুয়ারি চার দিনব্যাপী এই ফেস্টিভ্যালের মূল কর্মসূচি ছিল এই আর্ট পারফরমেন্স প্রদর্শনী। কলকাতাসহ ভারতের মোট ১১টি প্রদেশের শিল্পী এবং জাপান, কোরিয়া ও বাংলাদেশসহ ১১টি দেশের শিল্পীরা এতে অংশগ্রহণ করেন। উৎসবে বিচারক তথা কিউরেটরের পাঁচ জনের প্যানেলের মধ্যে ছিলেন বাংলাদেশের সুমনা আক্তার। এতে বাংলাদেশের শিল্পীদের মধ্যে আরও পারফরমেন্স করেন এস এম রিয়াদ, আনোয়ারুল হক লিটু।
সুজব মাহবুব তার পারফরমেন্স আর্ট অন্বেষণ সম্পর্কে বলেন, স্থান-কাল-পাত্রের আলোকে দৃশ্য থেকে দৃশ্যান্তরে যা কিছু দৃশ্যমান এবং অদৃশ্যমান, যা কিছু চেতন-অবচেতন, যা কিছু জলে-স্থলে, অন্তরীক্ষে অতীত-বর্তমান ও ভবিতব্য রূপে বিরাজমান এসবকে নয়ন মানুষের কাছে শৈল্পিক উপস্থাপনাই হচ্ছে অন্বেষণ।