ঢাকা, মঙ্গলবার, মে ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ কক্ষপথের অবস্থানে পৌঁছেছে * মুক্তিযোদ্ধার অসম্মানজনক দাফনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : মোজাম্মেল হক * ৭১তম বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলন শুরু   |   শিক্ষা : জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স পরীক্ষার ফরম পূরণ ২৩ মে শুরু   |   প্রধানমন্ত্রী : বাগেরহাট-৩ আসনের উপনির্বাচনে হাবিবুন নাহার আওয়ামী লীগের প্রার্থী * যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, এতিম ও আলেম-ওলামাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ইফতার * এইচবিআরআই খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন   |    জাতীয় সংবাদ : রাজীবের পরিবারকে কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ : আপিলের আদেশ কাল * খালেদা জিয়ার মুক্তির সঙ্গে আগামী জাতীয় নির্বাচনের কোন সম্পর্ক নেই : ড. হাছান মাহমুদ * বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়ন যেকোনো দেশের জন্যই অনুসরণীয় : মুহিত   |   আবহাওয়া : নৌবন্দরসমূহে এক নম্বর সতর্কতা সংকেত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ভারতের দক্ষিণাঞ্চলে নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৯ জনের মৃত্যু * পুতিনের সাথে অনানুষ্ঠানিক বৈঠকের জন্য রাশিয়া সফরে মোদি * মাদুরো বিরোধীদের উচিত নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করা : ভেনিজুয়েলার বিরোধীদল * বাস-ট্রাকে সংঘর্ষে মধ্যপ্রদেশে নিহত ৯   |   খেলাধুলার সংবাদ : রোম মাস্টার্সের অষ্টম শিরোপা জিতে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ফিরলেন নাদাল * চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালের জন্য রিয়াল প্রস্তুত : জিদান   |   

নির্বাচনী বছরে ঋণ বিতরণে সতর্ক হোন : অর্থমন্ত্রী

ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : ২০১৮ সাল নির্বাচনী বছর হওয়ায় কালো টাকার ছড়াছড়ি হতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ব্যাংক ও নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে এ বছর ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।
তিনি বলেন, ব্যাংকের ক্ষেত্রে ঋণ ও আমানতের অনুপাত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বাংলাদেশে এই অনুপাত সাধারণ মাত্রার চেয়ে উচুঁতে আছে-এটা নিয়ন্ত্রণ করা দরকার। এটা দেখে বাংলাদেশ ব্যাংক। এবার তাদের বিশেষভাবে নজর দিতে হবে, কারণ আপনারা সবাই জানেন এবছর নির্বাচনী বছর। এবছর বাজারে টাকা পয়সা বেশি আসবে-কালো টাকার যথেষ্ট ছড়াছড়ি হতে পারে। তাই সাবধনতা অবলম্বন করতে হবে।
রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে রূপালী ব্যাংকের ব্যবসায়িক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই সতর্কবার্তা দেন।
রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মো. আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান,অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. ইউনুসুর রহমান,রূপালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্যদের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন,ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব অরিজিৎ চৌধুরী,বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক এস এম রবিউল হাসান প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।
রাষ্ট্রায়াত্ত্ব ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি মেটাতে আগামী বাজেটেও মূলধনের জন্য অর্থ বরাদ্দ রাখা হবে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন,মূলধন স্বল্পতা মোচনে আমরা মোটামুটিভাবে প্রতিবছর ব্যাংকগুলোকে অর্থ দিয়ে থাকি।কেউ কেউ মন্তব্য করেন-করের টাকা এভাবে দেওয়া ঠিক নয়।কিন্তু মূলধন ঘাটতি মেটাতে অর্থ দেওয়া ঠিক-কারন একটি ব্যাংকে সমস্যা হলে পুরো ব্যাংকিং খাতে সমস্যা হয়।আমরা ব্যাংকিং খাতকে ধ্বংস হতে দিতে পারিনা।
রাষ্ট্রায়াত্ত্ব ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি মেটাতে আগামী বাজেটেও অর্থ বরাদ্দ রাখা হবে বলে তিনি জানান।
ব্যাংক খাতের অবস্থা ভাল নয় বলে যারা মনে করেন-তাদের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে সরকারের জ্যেষ্ঠ এই মন্ত্রী বলেন,আমাদের দেশে ব্যাংকিং খাতের যাত্রার শুরু দিকে অবস্থা ভাল ছিল না।মোট ঋণের অর্ধেকই ছিল খেলাপী।সেখানে আমরা অনেক উন্নতি করেছি-এখন সেটা ১১ শতাংশে নেমে এসেছে।তিনি বলেন,বর্তমানে ব্যাংকিং খাতের অবস্থা খারাব নয়।মোটামুটি ভাল।ব্যাংকিং খাত দূর্বল হলে অর্থনীতির যে ভাল অবস্থা, সেটা থাকত না।
মুহিত রূপালী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্প খাতে (এসএমই) ঋণ প্রবাহ বাড়ানোর পরামর্শ দিয়ে বলেন,এসএমই শিল্পকে সম্মান দিতে হবে। তাদের হাত ধরে এগিয়ে নিতে হবে। কারণ এসএমই খাতে বেশি কর্মসংস্থান হয়।
অনুষ্ঠানে রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি মেটাতে সরকারের কাছে ৬০০ থেকে ৭০০ কোটি টাকার মূলধন চান। এর জবাবে অর্থমন্ত্রী আগামী বাজেটে এই ব্যাংককে মূলধন প্রদানের আশ্বাস দেন।
বর্তমানে রূপালী ব্যাংকে ৩৪৬ কোটি টাকা মূলধন রয়েছে। গতবছর ব্যাংকটি ৫৩৮ কোটি টাকার পরিচালন মুনাফা করেছে।