ঢাকা, শুক্রুবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স শেষপর্ব পরীক্ষা আগামীকাল থেকে শুরু   |    বিভাগীয় সংবাদ : গাজীপুরে ১৪তম স্কাউট সমাবেশের উদ্বোধন * দেশে দারিদ্র্যের হার শতকরা ১২ ভাগে নেমে এসেছে : মন্ত্রিপরিষদ সচিব * মাদারীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী-স্ত্রী নিহত   |    জাতীয় সংবাদ : আওয়ামী লীগকে পুনরায় নির্বাচিত করুন : ডেপুটি স্পিকার *এডিবির প্রেসিডেন্ট আসছেন ২৭ ফেব্রুয়ারি * প্রশ্ন ফাঁস রোধে সকলের সহযোগিতা চাইলেন শিক্ষামন্ত্রী   |   রাষ্ট্রপতি : রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সিঙ্গাপুরের সহযোগিতা চাইলেন রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : এ বছর আরও ১০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে : নাসিম * বিএনপি বিপর্যয়ের মুখে অপ্রাসঙ্গিক কথাবার্তা বলছে : হানিফ * সরকারের ভিত কারো কথায় নড়ে না : ইনু * ময়মনসিংহে বাস খাদে পড়ে ৪ জনের প্রাণহানি, আহত ২০   |   আবহাওয়া : সারাদেশে আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : আইসিসির অনুমোদন পেল কানাডার টি-২০ লীগ * কেনিয়া ক্রিকেট দলের অধিনায়ক, কোচ ও বোর্ড সভাপতির পদত্যাগ   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : পদত্যাগ করছেন অস্ট্রেলিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী * আর্জেন্টিনার রুশ দূতাবাস থেকে ৪০০ কিলো কোকেন উদ্ধার * মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রস্তাব প্রায় প্রস্তুত : জাতিসংঘে মার্কিন দূত   |   

দেশের বৃহত্তর চুয়াডাঙ্গার সরোজগঞ্জের খেজুর গুড়ের হাট জমে উঠেছে

চুয়াডাঙ্গা, ২৭ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : জেলার সরোজগঞ্জের খেজুর গুড়ের হাট জমে উঠেছে। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসছে ব্যাপারীরা। সপ্তাহে দুই দিন এ হাট বসে। হাট থেকে প্রায় ২০-৩০ ট্রাক গুড় ব্যাপারীরা ক্রয় করে দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করেন। প্রায় দুই কোটি টাকার গুড় কেনাবেচা হয় হাটে।
ব্যাপারীরা বলেছেন, এখানকার গুড়ের মান অন্য জেলার চেয়ে অনেক ভাল। হাটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অনেক ভালো থাকার ব্যাপারীরা হাটে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।
গাছিরা জানান, গত বছরের তুলনায় গুড়ের দাম এবার একটু বেশি। তবে লাভও হচ্ছে বেশি। হাটে কাজ করে এলাকার অনেক মানুষ এখন স্বাবলম্বী হয়েছে। গুড়ের হাট ঘিরে মাটির হাড়ির (ভাড়ের) হাটও বসে।
চুয়াডাঙ্গার ৪টি উপজেলায় রয়েছে খেজুর গাছ। গাছিরা শীত মৌসুমে খেজুর গাছ থেকে রস তৈরি করেন। রস জ্বালিয়ে তারা গুড় তৈরি করেন। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে গাছি (কৃষকরা) প্রতি সোমবার ও শুক্রবার সরোজগঞ্জ হাটে গুড় বিক্রির জন্য নিয়ে আসে। মাটির হাড়ির (ভাঁড়ের) আকার ভেদে গুড় বিক্রি হয়। গুড় ৭০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকায় প্রতি মাটির হাড়ি বিক্রয় করেন গাছিরা। প্রতি কেজি গুড় বিক্রি হচ্ছে ৭৫-৮০ টাকায়। ব্যাপারীরা গুড় ট্রাক বোঝাই করে দেশের বিভিন্ন জেলায় নিয়ে বিক্রি করেন।
গুড় রাখার জন্য পাত্র হিসাবে ব্যবহার করা হয় মাটির তৈরি হাড়ি (ভাড়)। কুমাররা হাটে নিয়ে বিক্রি করছেন মাটির হাড়ি। শীত মৌসুমে এ ব্যবসা তাদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
সিরাজগঞ্জ জেলার গুড়ের ব্যাপারী লিয়াকত আলি বলেন, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে সরোজগঞ্জ হাট থেকে গুড় কিনে নিয়ে যাই। এখানকার গুড়ের মান অনেক ভাল। হাটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভাল।
চুয়াডাঙ্গা ধুতুরহাট গ্রামের গাছি শফিকুল ইসলাম জানান, আমার ২৫০টি খেজুর গাছ আছে। দুই জন লোক গাছ কাটে ও রস তোলে। প্রতিদিন তিন হাড়ি গুড় হয় এসব রসে। এ হাটে দাম ভাল পাওয়া যায় বলে এখানে গুড় বিক্রি করি।
হাটের শ্রমিক লিয়াকত হোসেন জানান, আমরা ব্যাপারীদের গুড় টানার কাজ করি। প্রতি হাটে আয় হয় ৭০০-৮০০ টাকা মত। এ কাজ করে সংসার ভালই চলছে।