ঢাকা, শুক্রুবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সিঙ্গাপুরের সহযোগিতা চাইলেন রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : বিএনপি বিপর্যয়ের মুখে অপ্রাসঙ্গিক কথাবার্তা বলছে : হানিফ * সরকারের ভিত কারো কথায় নড়ে না : ইনু * ময়মনসিংহে বাস খাদে পড়ে ৪ জনের প্রাণহানি, আহত ২০   |   আবহাওয়া : সারাদেশে আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : আইসিসির অনুমোদন পেল কানাডার টি-২০ লীগ * কেনিয়া ক্রিকেট দলের অধিনায়ক, কোচ ও বোর্ড সভাপতির পদত্যাগ   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : পদত্যাগ করছেন অস্ট্রেলিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী * আর্জেন্টিনার রুশ দূতাবাস থেকে ৪০০ কিলো কোকেন উদ্ধার * মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রস্তাব প্রায় প্রস্তুত : জাতিসংঘে মার্কিন দূত   |   

তিন ইপিজেডে বিদেশীদের জন্য কমিশারিয়েট হচ্ছে

ঢাকা, ২১ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : মোংলা, উত্তরা ও ঈশ্বরদী রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল (ইপিজেড)-এ কর্মরত বিদেশি নাগরিকদের জন্য পৃথক তিনটি কমিশারিয়েট স্থাপন করতে যাচ্ছে সরকার।
এই কমিশারিয়েটগুলো রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা)র তত্ত্বাবধানে স্থাপিত হবে। এজন্য শিগগিরই বাংলাদেশ রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা)কে এই তিন ইপিেিজডে কমিশারিয়েট স্থাপনের অনুমতি প্রদানে সংশ্লিষ্ট কমিশনারদের নির্দেশ দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।
সম্প্রতি এনবিআর ও ইপিজেডের বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত এক পর্যালোচনা সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
এনবিআর সূত্র জানায়, কমিশারিয়েটগুলো হল দোকানের মত। বিদেশী নাগরিকদের জন্য শুল্কমুক্ত সুবিধায় বিভিন্ন ব্র্যান্ডের অ্যালকোহলসহ প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি যোগান দিয়ে থাকে। মংলা, উত্তরা ও ঈশ্বরদী ইপিজেডে কমিশারিয়েট স্থাপিত হলে এই তিন ইপিজেডে কর্মরত বিদেশি নাগরকিরা অ্যালকোহলসহ আরো কিছু দ্রব্য এখান থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ক্রয় করতে পারবেন।
বেপজার জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক নাজমা বিনতে আলমগীর বাসসকে বলেন, এই তিন ইপিজেডে বিদেশী বলতে মূলত চীন, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ানরা কর্মরত আছেন। অ্যালকোহলসহ তাদের পছন্দের আরো কিছু খাদ্যদ্রব্য আছে যা তারা কর্মস্থলের কাছাকাছি পাচ্ছেন না। এ কারণে এই তিন ইপিজেডে শুল্কমুক্ত কমিশারিয়েট স্থাপনের অনুমতি চাওয়া হয়েছে।
এনবিআর ইতোমধ্যে কমিশারিয়েট স্থাপনের সম্মতি প্রদান করেছে বলে তিনি জানান।
উল্লেখ্য, মংলা, উত্তরা ও ঈশ্বরদী ইপিজেডে প্রায় ৪ শতাধিক বিদেশী নাগরিক কর্মরত আছেন।
বর্তমানে দেশের তথ্য-প্রযুক্তি, গার্মেন্টস ও টেক্সটাইল কারখানা, বায়িং হাউজ, এনজিও, বহুজাতিক কোম্পানি, অবকাঠামো নির্মাণকারীসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কয়েক লাখ বিদেশী নাগরিক কাজ করেন। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)র কাছ থেকে প্রতিবছর গড়ে ১২ হাজার বিদেশী ওয়ার্ক পারমিট নেন। এর বাইরে বেপজা ও এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর কাছেও কয়েক হাজার বিদেশি কর্মীর নিবন্ধন রয়েছে।