ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

বিনোদন ও শিল্পকলা : ঝিনাইদহে ১৫ দিনব্যাপী যাত্রা উৎসব শুরু   |    বিভাগীয় সংবাদ : বরগুনায় দুদকর আয়োজনে শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ *জয়পুরহাটে প্রবীণদের কম্বল, বয়স্ক ভাতা, উপকরণ প্রদান *হবিগঞ্জে ১১ জন আসামি গ্রেফতার * ভোলায় ৫টি বদ্ধভূমির সংস্কার ও উন্নয়ন করা হচ্ছে   |   খেলাধুলার সংবাদ : পিএসজির আট গোলের বিশাল জয়ে নেইমারের চার গোল * রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে আরো তিনটি প্রীতি ম্যাচের ঘোষণা দিল নাইজেরিয়া   |   আবহাওয়া : দেশের কিছু স্থানে শৈত্যপ্রবাহ কেটে যেতে পারে   |    জাতীয় সংবাদ : বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আগামীকাল থেকে শুরু * নির্বাচন বন্ধের জন্য বিএনপিকে অভিযুক্ত করা উচিত   |   প্রধানমন্ত্রী : রংপুর সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ * প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে ২০ প্রতিষ্ঠানের অনুদান প্রদান   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : কাজাখস্তানে বাস দুর্ঘটনায় ৫২ জন নিহত * নির্ধারিত সময়ে কম্বোডিয়ার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে : কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী * কান্দাহারে অনলাইনে শিক্ষা নিচ্ছে আফগান তরুণীরা   |   

চুয়াডাঙ্গায় গরুর খামার বৃদ্ধি পাওয়ায় বৃদ্ধি পাচ্ছে ঘাষের চাষ

চুয়াডাঙ্গা, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : জেলায় দিন দিন বাড়ছে গরুর খামার। খামার বাড়ার সাথে সাথে বাড়ছে গো খাদ্যর চাহিদা। বৃদ্ধি পাচ্ছে নেপিয়ার ও পাকচং-১ ঘাসের চাষ।
চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রণীসম্পদ অফিস সুত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলায় গত বছর ঘাসের চাষ হয়েছিল ১২ একরের মত জমিতে। চলতি বছরে এই ঘাসের আবাদ বৃদ্ধি পেয়ে ১৫ একর ৭৯ শতক জমিতে। গরুর আবাদ বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে বাড়ছে ঘাসের চাহিদা। এই জেলায় ৪১৭টি রেজিস্ট্রেশন ভুক্ত গরুর খামার রয়েছে। এছাড়াও ছোট বড় বেশ কিছু খামার গড়ে উঠা ছাড়াও গ্রামগঞ্জে প্রায় বাড়ী বাড়ী শুরু হয়েছে গরু মোটাতাজাকরণ। এবার প্রায় জেলায় বেশ কিছু ঘাসের হাট চালু হয়েছে। এসব হাটে মেলে বিভিন্ন ধরনের ঘাস।
জেলায়, ১৫ একর ৭৯ শতক জমিতে নেপিয়ার ঘাসের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা ৩ একর ৮০ শতাংশ আলমডাঙ্গা উপজেলায় ১ একর ৭৫ শতাংশ দামুড়হুদায় ১ একর ৯৪ শতাংশ ও সবচেয়ে জীবননগর উপজেলায় ৮একর ৩০ শতাংশ জমিতে। পাকচং ঘাসের আবাদ আমাদের জেলায় শুরু না হলেও কয়েকজন খামারি সামান্য পরিমাণ জমিতে এই নতুন ঘাসের চাষ শুরু করেছে।
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা সদরের মাদ্রাসা পাড়ার আঃ মমিনের ছেলে মাহামুদ হাসান মাসুদ একটি ছোট গরুর খামার রয়েছে। খামারে রয়েছে ছোট বড় ৮টি গরু। এ গরুর জন্য সে ২৩ কাঠা জমিতে পাকচং -১ জাতের ঘাসে আবাদ করেছে।
মাহামুদ হাসান মাসুদ জানান, তার বাড়ীতে টিনের সেড দিয়ে ৩ বছর আগে গরুর চাষ শুরু করে। বর্তমানে তার ৩টি গাভি, ২টি ছোট এড়ে বাছুর ও ৩টি গরু রয়েছে। সে গরুগুলোকে প্রতিদিন ৫ কেজি শুকনা খড় (বিচালি) ও ২০ কেজির উর্ধ্বে পাকচং-১ জাতের ঘাস খাওয়ায়। এতে তার গরু গুলো ভালো হৃষ্ট পুষ্ট হয়েছে। তবে সে কোন সময় গরুর মোটাতাজাকরনের জন্য ভ্যাকসিন বা কোন রকম ওষুধ খাওয়ায় না। ২টা গাভী গরু প্রতিটি গাভী ১৭ থেকে ২০ কেজি পর্যন্ত দুধ দিয়ে থাকে।
ঘাষের চাহিদা বাড়ায় জেলা সদরসহ দামুড়হুদা, জীবননগর, আলমডাঙ্গার বিভিন্ন স্থানে ঘাসের হাট বসেছে। এসব হাট সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চলে। ভোর থেকে বিভিন্ন গ্রামগঞ্জ থেকে ব্যবসায়ীরা স্যালোইজ্ঞিন চালিত আলোমসাধু, করিমন, ব্যাটারী চালিত পাখিভ্যন যোগে বিভিন্ন ধরনের ঘাস এনে হাটে জড়ো করে। ক্রেতারা এসব হাট থেকে নিজেদের চাহিদা মত পছন্দের ঘাস ১৫/২০/ টাকা আটি দরে কিনে নিয়ে যায়।
জেলার দামুড়হুদা উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসার মশিউর রহমান জানান, দীর্ঘ দিন ধরে এ এলাকায় নেপিয়ার ঘাসের আবাদ হলেও সম্প্রতি থাইল্যান্ড থেকে আমদানীকৃত পাকচং ঘাসের আবাদ শুরু হয়েছে। নেপিয়ার ঘাস সাধারনত উচু জমিতে হয়ে থাকে। এই ঘাস বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে শক্ত হতে থাকে। নেপিয়ার ঘাস ছোট অবস্থায় গরুর খাওয়ানো যায় বড় হয়ে গেলে গরুর খাওয়া সমস্যা হয়। এই ঘাসে মাটি বিশেষ ৮ থেকে ১২ % প্রোটিন থাকে। পাকচং ঘাস সাধানত উচু নিচু সকল জমিতে ভালো হয়। এই ঘাষের মেয়দ কাল ৬ থেকে ৭বছর হয়ে থাকে। পাকচং ঘাসে মাটি বিশেষ প্রোটিন থাকে ১৮ থেকে ২৪% এই ঘাস সাধারনত নরম থাকে এতে করে ঘাসের বয়স বেশি হলেও শক্ত হয় না একারনে গরুর খাওয়াতে ও কোন ঝামেলা হয় না।