ঢাকা, রবিবার, জানুয়ারী ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে ২৫জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ   |   জাতীয় সংসদ : কৃষি কাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা বিল-২০১৮ সংসদে পাস * সরকার ১৭৮টি নদী খনন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : শাজাহান খান * প্রত্যেক বিভাগীয় শহরে বিশেষায়িত হৃদরোগ হাসপাতাল স্থাপন করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : ঢাকা ইউএইকে আরো বাংলাদেশী শ্রমিক নিয়োগের আহ্বান জানাবে * বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এডিবি বৃহৎ অংশীদার : খন্দকার মোশাররফ * আগামীকাল সরস্বতী পূজা   |    অর্থনীতি : দাম বেড়েছে ১৬৮টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত ৫৪ কোম্পানির শেয়ার * রাশিয়ায় তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ডিউটি ও কোটা ফ্রি সুবিধা চাইলেন বাণিজ্যমন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : জ্ঞানার্জনে ব্রতী হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * এস এম আতিউর রহমানের ইন্তেকালে প্রধানমন্ত্রীর শোক * ভূমির মালিকানা পার্বত্য চট্টগ্রামবাসীরই থাকবে : প্রধানমন্ত্রী    |    বিভাগীয় সংবাদ : সরস্বতী পূজা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট * মাগুরায় অস্বচ্ছল ও অসুস্থ ব্যক্তির মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ * রংপুরকে আধুনিক সিটি কর্পোরেশন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : নবনির্বাচিত মেয়র   |   রাষ্ট্রপতি : শিক্ষাবিদ নুরুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক * সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে সুদৃঢ় করতে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি * বঙ্গভবন থেকে রাষ্ট্রপতির আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ    |    জাতীয় সংবাদ : নির্বাচন নিয়ে বিএনপি কী রূপরেখা দেয় সেটার অপেক্ষায় আছি : ওবায়দুল কাদের * সহায়ক সরকারের প্রস্তাব বিএনপির চক্রান্তের রাজনীতির অংশ : তথ্যমন্ত্রী * আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : আফগানিস্তানে অতর্কিত হামলায় সরকারপন্থী ১৮ মিলিশিয়া নিহত *যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে সোমবার ভোট *প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের এক বছর ॥ হাজারো নারীর বিক্ষোভ   |   খেলাধুলার সংবাদ : জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা * জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা *আইপিএলে এলিট তালিকায় সাকিব *অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে রাফায়েল নাদাল   |   

শেষ সময়ে ভ্যাট নিবন্ধনের হিড়িক

ঢাকা, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৭ (বাসস) : ব্যবসা পরিচালনার জন্য নতুন মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট নিবন্ধন ইলেকট্রনিক বিজনেস আইডেনটিফিকেশন নম্বর (ই-বিআইএন) গ্রহণের সময় আগামী ৩১ ডিসেম্বর শেষ হচ্ছে। এখন শেষ সময়ে এসে ইবিআইএন নেওয়ার হিড়িক পড়েছে। চলতি সপ্তাহে দৈনিক গড়ে এক হাজার প্রতিষ্ঠান ইবিআইএন গ্রহণ করছে। আজ বুধবার পর্যন্ত প্রায় ৭৪ হাজার প্রতিষ্ঠান ইবিআইএন নিয়েছে।
সব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে করজালের আওতায় আনা,অস্তিত্বহীন বা ভুয়া নিবন্ধন বন্ধ এবং নিবন্ধন গ্রহণের প্রক্রিয়াকে স্বচ্ছ, দ্রুততর ও হয়রানিমুক্ত করার লক্ষ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) গত ২৩ মার্চ অনলাইন নিবন্ধন ব্যবস্থা চালু করে। ১১ ডিজিটের পুরনো ভ্যাট নিবন্ধন বাতিল করে সব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের জন্য অনলাইনে ইবিআইএন গ্রহণ বাধ্যতামুলক করা হয়।
এ বিষয়ে ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও এনবিআর সদস্য (কাস্টমস্ ও ভ্যাট প্রশাসন) মো. রেজাউল হাসান বাসসকে বলেন, নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন ২ বছর পিছিয়ে গেলেও ব্যবসা পরিচালনার জন্য পুরনো বিআইএন বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় সব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের এখন ইবিআইএন থাকা বাধ্যতামূলক। এ কারণে অনলাইনে ভ্যাট নিবন্ধনের শেষ সময়ে ইবিআইএন গ্রহণের হিড়িক পড়েছে।
তিনি জানান, চলতি সপ্তাহে দৈনিক প্রায় ১ হাজার ইবিআইএন গ্রহণ করছে ব্যবসায়ীরা। আজ পর্যন্ত প্রায় ৭৪ হাজার ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ই-বিআইএন গ্রহণ করেছে।
এনবিআরের এই কর্মকর্তা বলেন, যে ৭৪ হাজার ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ই-বিআইএন গ্রহণ করেছে, তাদের কাছ থেকে মোট ভ্যাট রাজস্ব আয়ের ৯৫ শতাংশেরও বেশি রাজস্ব পাওয়া যায়। শেষ সময়ের আগেই বাকী প্রতিষ্ঠানসমূহ ইবিআইএন গ্রহণ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
ভ্যাট কমিশনারেট পূর্ব, ঢাকা এর অতিরিক্ত কমিশনার মো. জাকির হোসেন বলেন, ভ্যাট আইন-১৯৯১ এর আওতায় সাড়ে ৮ লাখের বেশি নিবন্ধন রয়েছে। তবে অনলাইনে নিবন্ধন পদ্ধতি চালু হওয়ায় এর সংখ্যা বিপুল পরিমাণ কমে আসছে। কারণ আগে যে কোন প্রতিষ্ঠান ইচ্ছা করলেই আলাদা আলাদাভাবে নিবন্ধন নিতে পারত। এছাড়া অনলাইনে নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম না থাকায় অনেক ভুয়া প্রতিষ্ঠানও বিআইএন গ্রহণ করতো। এখন অনলাইন পদ্ধতি চালু হওয়ায় সেই সুযোগ আর কেউ পাচ্ছে না। ফলে স্বাভাবিকভাবে ইবিআইএনের সংখ্যা কমে আসছে।
তিনি বলেন, ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ১ লাখ ইবিআইএন প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ ছিল। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৯০ হাজার ইবিআইএন প্রদান করা সম্ভব হবে।
উল্লেখ্য, এনবিআর গত ৩০ জুন পর্যন্ত ই-বিআইএন নিবন্ধন বা পুন:নিবন্ধনের সময়সীমা নির্ধারণ করে। পরে তা ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়।
জাকির হোসেন বলেন, বিদ্যমান সনাতনী ভ্যাট ব্যবস্থায় প্রায় সাড়ে ৮ লাখ বিআইএন নম্বর গ্রহণকারী ব্যবসায়িক সত্তা থাকলেও প্রতি মাসে মাত্র ৩৬ হাজার করদাতা নিয়মিত দাখিলপত্র প্রদান করেন। ফলে অনেক অস্তিত্বহীন নিবন্ধিত করদাতা যেমন রয়েছেন, তেমনি ব্যবসায়িক কার্যক্রম চলমান থাকা সত্ত্বেও অনেক করদাতা নিয়মিত দাখিলপত্র প্রদান করেন না বা করজালের বাইরে অবস্থান করছেন। সার্বিকভাবে এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ এবং নিবন্ধন গ্রহণের প্রক্রিয়াকে স্বচ্ছ, দ্রুততর ও হয়রানিমুক্ত করার লক্ষ্যে মুলত অনলাইন নিবন্ধন ব্যবস্থা চালু করা হয়।
তিনি বলেন, যেহেতু আমরা ইতোমধ্যে অনলাইন অবকাঠামো তৈরি করেছি, সুতরাং রিটার্ন দাখিলসহ আরো কিছু কার্যক্রম অনলাইনে পরিচালনা করা যাবে। এছাড়া ই-বিআইএন বাধ্যতামূলক হওয়ায় দেশে মোট ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের প্রকৃত সংখ্যা নিরূপণ করা সম্ভব হবে।
উল্লেখ্য, অনলাইনে সেবা নেওয়ার জন্য ভ্যাট নিবন্ধন বা ই-বিআইএন নেওয়ার বিষয়টি অনেকটা অনলাইনে কর শনাক্তকরণ নম্বর বা ই-টিআইএনের মতো। ভ্যাট নিবন্ধন ওয়েবসাইটের ঠিকানা Vat.gov.bd।