ঢাকা, সোমবার, জানুয়ারী ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে ২৫জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ   |   জাতীয় সংসদ : কৃষি কাজে ভূ-গর্ভস্থ পানি ব্যবস্থাপনা বিল-২০১৮ সংসদে পাস * সরকার ১৭৮টি নদী খনন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : শাজাহান খান * প্রত্যেক বিভাগীয় শহরে বিশেষায়িত হৃদরোগ হাসপাতাল স্থাপন করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা * ঢাকা ইউএইকে আরো বাংলাদেশী শ্রমিক নিয়োগের আহ্বান জানাবে * বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এডিবি বৃহৎ অংশীদার : খন্দকার মোশাররফ * আগামীকাল সরস্বতী পূজা   |    অর্থনীতি : দাম বেড়েছে ১৬৮টির, কমেছে ১১৩টির এবং অপরিবর্তিত ৫৪ কোম্পানির শেয়ার * রাশিয়ায় তৈরি পোশাক রপ্তানিতে ডিউটি ও কোটা ফ্রি সুবিধা চাইলেন বাণিজ্যমন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : জ্ঞানার্জনে ব্রতী হয়ে দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * এস এম আতিউর রহমানের ইন্তেকালে প্রধানমন্ত্রীর শোক * ভূমির মালিকানা পার্বত্য চট্টগ্রামবাসীরই থাকবে : প্রধানমন্ত্রী    |    বিভাগীয় সংবাদ : সরস্বতী পূজা উপলক্ষে জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট * মাগুরায় অস্বচ্ছল ও অসুস্থ ব্যক্তির মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ * রংপুরকে আধুনিক সিটি কর্পোরেশন হিসেবে গড়ে তুলতে চাই : নবনির্বাচিত মেয়র   |   রাষ্ট্রপতি : শিক্ষাবিদ নুরুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক * সম্প্রীতির ঐতিহ্যকে সুদৃঢ় করতে নিজ-নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি * বঙ্গভবন থেকে রাষ্ট্রপতির আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ    |    জাতীয় সংবাদ : নির্বাচন নিয়ে বিএনপি কী রূপরেখা দেয় সেটার অপেক্ষায় আছি : ওবায়দুল কাদের * সহায়ক সরকারের প্রস্তাব বিএনপির চক্রান্তের রাজনীতির অংশ : তথ্যমন্ত্রী * আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্ত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : আফগানিস্তানে অতর্কিত হামলায় সরকারপন্থী ১৮ মিলিশিয়া নিহত *যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের অর্থায়নে সোমবার ভোট *প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের এক বছর ॥ হাজারো নারীর বিক্ষোভ   |   খেলাধুলার সংবাদ : জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা * জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে হারালো শ্রীলংকা *আইপিএলে এলিট তালিকায় সাকিব *অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে রাফায়েল নাদাল   |   

নাটোরের নশরতপুর : লাউ চাষের সমৃদ্ধ জনপদ

নাটোর, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭ (বাসস) : বিগত এক দশকে নাটোরের কৃষিতে এসেছে ব্যাপক বৈচিত্র। সময় উপযোগী ও মুনাফা ভিত্তিক শস্য আবাদে কৃষকরা উদ্যোগী হয়েছেন,মজবুত হয়েছে তাদের আর্থিক বুনিয়াদ, সমৃদ্ধ হয়েছে জনপদ। নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার নশরতপুর গ্রামের কৃষকদের প্রধান অর্থকরী ফসল এখন লাউ। বাৎসরিক কোটি টাকার উৎপাদিত লাউ থেকে প্রতিদিন অন্তত তিন হাজার পিস লাউ যাচ্ছে বিভিন্ন কাঁচাবাজার ও আড়তে।
নলডাঙ্গা উপজেলা হলেও নাটোর শহরতলীর কাছাকাছি বিপ্রবেলঘড়িয়া ইউনিয়নের নশরতপুর গ্রাম। গ্রামের আনাচে-কানাচে সর্বত্রই লাউয়ের ছড়াছড়ি। মাঠ জুড়ে মাচায় মাচায় দুলছে লাউ আর লাউ। জমিতে তো বটেই, বাড়ির আঙ্গিনা, ঘরের চালায়, বিভিন্ন বড় বড় গাছে , রাস্তার দুই পাশে এমনকি ঘরের সামনে যেখানে একটু ফাঁকা জায়গা আছে সেখানেই লাউ গাছ। লাউকে ঘিরে গ্রাম জুড়ে যেন চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। এ গ্রামটি লাউ গ্রাম নামে পরিচিতি পেয়েছে। গ্রামের অন্তত একশ কৃষক বর্তমানে ৬০ বিঘা জমিতে লাউ চাষ করছেন। লাউ চাষ করে সমৃদ্ধি এসেছে তাদের আর্থিক অবস্থানে।
গ্রামের বাসিন্দারা জানান, ২০১০ সালে স্থানীয় কৃষক আব্দুর রাজ্জাক প্রথমে ২৫ শতক জমিতে লাউ চাষ করে সফল হন। তা দেখে শুরু করেন অনেকেই। ভালো ফলন হওয়ায় আস্তে আস্তে ঘটে বিস্তৃতি। তারা বলেন, আগে যেসব জমিতে আখ ও কলার চাষ হতো, এখন সেখানে বাণিজ্যিক ভাবে লাউ চাষ হচ্ছে। কারণ স্বল্প জমিতে আখ ও কলার তুলনায় লাউ চাষ লাভজনক।
এ গ্রামের লাউ চাষের আলাদা বৈশিষ্ট হচ্ছে- জৈব চাষ পদ্ধতি। এখানকার চাষিরা লাউ চাষে কীটনাশক ও রাসায়নিক সারের পরিবর্তে সেক্স ফেরোমন ও প্রাকৃতিক সার ব্যবহার করছেন। এতে লাউ রয়েছে বিষমুক্ত। তাই বাজারে নশরতপুরের লাউয়ের চাহিদাও বেশি।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানা যায়, চলতি মৌসুমে জেলায় ২০০ হেক্টর জমিতে লাউ চাষ হয়েছে। তবে জেলা সদর, নলডাঙ্গা ও লালপুর উপজেলায় লাউ চাষ বেশি হয়েছে। সাধারনত আর্শ্বিন মাসের শেষে বা মাঝামাঝি দিকে চারা রোপণ করতে হয়। রোপনের ৫০/৬০ দিনের মাথায় ফলন পাওয়া যায়। উন্নতজাতের বীজ রোপণ আর নিয়মিত গাছের পরিচর্যা করলে ভাল ফলন হয়।
কৃষক আব্দুর রশিদ জানান, প্রথমেই জমি তৈরির পর ভাল বীজ রোপণ করতে হবে। নিয়মিত পরিচর্যা করতে পারলে খুব সহজে লাউয়ের বাম্পার ফলন আশা করা সম্ভব। রাসায়নিক সার এবং কীটনাশক ছাড়া জৈব পদ্ধতিতে লাউ চাষ করছেন বলে জানান তিনি।
লাউ চাষি সাইফুল ইসলাম জানান, পাঁচ বছর ধরে তিনি লাউ চাষ করছেন। এক বিঘা জমিতে লাউ চাষে প্রায় ২০/২২ হাজার টাকা খরচ হয়। এবার এক বিঘা জমি থেকে এপর্যন্ত ৪০ হাজার টাকার লাউ বিক্রি করেছেন। এ মৌসুমেই অন্তত এক লাখ টাকার লাউ বিক্রির আশা করছেন তিনি।
কৃষক সোলেমান আলীসহ অন্যরা জানান, এবার লাউয়ের বাজার খুবই ভাল। মৌসুমের শুরুতে লাউয়ের বাজার ছিল খুবই উর্ধ্বমুখী। বর্তমানে প্রতিটি লাউ ২৫ থেকে ৩০ টাকায় পাইকারি দরে বিক্রি হচ্ছে। এ দাম অব্যাহত থাকলে বিঘায় খরচ বাদে ৪০/৫০ হাজার টাকা লাভ হবে।
নাটোর ষ্টেশন বাজারের সবজি আড়তের পাইকারি ক্রেতা দুলাল হোসেন জানান, নশরতপুরের চাষকৃত লাউয়ে বিষ নেই। ক্রেতাদের কাছে এ লাউয়ের চাহিদা বেশি। দামও পাওয়া যায় বেশি।
নলডাঙ্গা উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ আমিরুল ইসলাম জানান, লাউ উৎপাদনে সেচ, সার ও শ্রমিক খরচ কম হয় এবং পোকা-মাকড়ও খুব একটা ক্ষতি করতে পারেনা, তাই ফলনও ভাল হয়। এজন্য কৃষকরা লাউ চাষে ঝুঁকছেন। আমরা পোকা-মাকড় দমনে সেক্স ফেরোমেনসহ অন্যান্য প্রযুক্তি জ্ঞান কৃষকদের সরবরাহ করেছি।
কৃষি অফিসার আরো জানান, জৈব পদ্ধতিতে উৎপাদিত বলে নশরতপুর গ্রামের উৎপাদিত লাউ অনেক সুস্বাদু। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে যাচ্ছে এ গ্রামের লাউ।