ঢাকা, শনিবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

শিক্ষা : ২০২১ সালের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে স্বাস্থ্যবীমা প্রকল্পের আওতায় আনা হবে : উপাচার্য   |    জাতীয় সংবাদ : বিএনপি অপরাধীদের দলে ভিড়িয়ে সমাজে হালাল করার রাজনীতি করে : ইনু * শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয় : তোফায়েল * তথ্য প্রযুক্তি খাতে নারীর অংশগ্রহণ বাড়াতে সরকারের বিশেষ প্রকল্প   |   আবহাওয়া : রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের দুএক জায়গায় বৃষ্টি হতে পারে    |   খেলাধুলার সংবাদ : দশ বছর পরে জিম্বাবুয়ে দলে ডাক পেলেন জুওয়াও *দুবাইয়ে খেলছেন না ফেদেরার   |    বিভাগীয় সংবাদ : কেরানীগঞ্জে ট্রাক-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : মোগাদিশুতে বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮ *উ.কোরিয়ার বিরুদ্ধে এ যাবতকালের সবচেয়ে কঠিন অবরোধ আরোপের ঘোষণা ট্রাম্পের *মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রাজধানীতে ৩টি বোমা বিস্ফোরণ   |   

তৈরি পোশাকের সম্ভাবনাময় বাজার জর্জিয়া

ঢাকা, ১১ সেপ্টম্বর, ২০১৭ (বাসস) : বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের নতুন বাজার হবে ইউরোপের দেশ জর্জিয়া। ঢাকা সফররত দেশটির উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড জালাগানিয়ার সঙ্গে বিজিএমইএ নেতাদের অনুষ্ঠিত বৈঠকে এমন আশা প্রকাশ করা হয়।
সোমবার রাজধানীর হাতিরঝিলে বিজিএমইএ ভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিজিএমইএ ও জর্জিয়া সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। দুদিনের সফরে সোমবার ঢাকায় আসেন ডেভিড জালাগানিয়া।
বৈঠকে বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ দেশ জর্জিয়া। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক কারখানা ও পোশাকের বিষয়ে তাদের যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, জর্জিয়া সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের এ সফরের মাধ্যমে দেশটির সঙ্গে বিনিয়োগের পথ আরো প্রসারিত হবে।তারা আমাদের শুল্কমুক্ত সুবিধা দিচ্ছে। বর্তমানে দেশটিতে বাংলাদেশের মোট রফতানি এক মিলিয়ন মার্কিন ডলারের কাছাকাছি। আগামীতে রফতানি আরো বাড়বে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
বৈঠকে জর্জিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড জালাগানিয়া বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ তরি পোশাক রফতানিকারক বাংলাদেশ। জর্জিয়া ছোট দেশ হলেও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সহোযোগী সদস্য। আমাদের রয়েছে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ। তবে ওষুধ ও কৃষি খাতে আমাদের ঘাটতি আছে। বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন।
আনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত জর্জিয়ার রাষ্ট্রদূত আর্চিল ডি জুলিয়াস ভিলি বলেন, ডুয়িং বিজনেস সূচকে (ব্যবসায়িক পরিবেশ) জর্জিয়া এগিয়ে।আমাদের অভিজ্ঞতা নিয়ে কাজ করলে অনেক ক্ষেত্রে উপকার পাবে বাংলাদেশ।
বৈঠকের শুরুতে বাংলাদেশের গার্মেন্ট শিল্প সম্পর্কে একটি তথ্যচিত্র উপস্থাপন করা হয়। পরে বিজিএমইএ সভাপতি বাংলাদেশের অর্থনীতিতে তৈরি পোশাক শিল্পের অবদান তুলে ধরেন।