ঢাকা, বুধবার, জানুয়ারী ১৭, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

বিনোদন ও শিল্পকলা : বাচ্চাদের বই পড়ায় আগ্রহী করে তুলতে হবে : সংস্কৃতি মন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : আতিকুল ইসলাম ঢাকা উত্তর সিটি কার্পোরেশন উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী * বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী শাম্মী আক্তার আর নেই   |    জাতীয় সংবাদ : বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় উচ্চ শিক্ষায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে : শিক্ষামন্ত্রী * সুন্দরবন অঞ্চল নিরাপদ রাখতে আরো ৪টি র‌্যাব ক্যাম্প স্থাপন করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী * ঝড়-বৃষ্টির মৌসুমে স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ৫ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শিশু : ইউনিসেফ   |   জাতীয় সংসদ : একই পরিবারের চারজন পরিচালক রাখার বিধান করে সংসদে ব্যাংক কোম্পানী সংশোধন বিল পাস * বিচারাধীন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে : আইনমন্ত্রী * সরকারি শূন্য পদ দ্রুত পূরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে : জন প্রশাসন মন্ত্রী   |   প্রধানমন্ত্রী : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ উন্নয়ন ফোরামের উদ্বোধন করবেন আগামীকাল * একনেকে ১৪ প্রকল্প অনুমোদন : তিন হাজার বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হবে * আবুল খায়েরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ঢাকা শহরের ছাদ ব্যবহার করে ১ হাজার মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব : নসরুল হামিদ   |    অর্থনীতি : নওগাঁয় রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ৬ মাসে ৯২ কোটি ৩০ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ    |    জাতীয় সংবাদ : এই অঞ্চলের স্বাধীনতার নেতাদের হত্যার কারণ খুুঁজে বের করতে হবে : প্রণব মুখোপাধ্যায় * ২ বছরের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন সম্পন্নে রূপরেখা চূড়ান্ত * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা : আরো দুই আসামীর পক্ষে যুক্তিতর্ক পেশ    |   খেলাধুলার সংবাদ : পুলিশ বর্ষসেরা খেলোয়াড় দ্বীন ইসলাম, লতা পারভীন ও আকলিমা *মাঠে খারাপ আচরণের জন্য কোহলিকে জরিমানা   |   শিক্ষা : বাংলাদেশের জন্মের পেছনে ঢাবির অবদান রয়েছে : ঢাবি উপাচার্য   |    বিভাগীয় সংবাদ : জয়পুরহাটে বোরো ধানের চারা রক্ষা করতে পলিথিনে ঢেকে রাখার পরামর্শ * নীলফামারীতে কৃষক নেমেছে বোরো আবাদের মাঠে : লক্ষ্যমাত্রা ৮৪ হাজার হেক্টর জমি   |   আবহাওয়া : আগামীকাল থেকে দক্ষিণাঞ্চলের শৈতপ্রবাহ কেটে যেতে পারে   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ট্রানজিট বিষয়ে সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর * আফগানিস্তানে আইএসের ২১ যোদ্ধা নিহত * জাপানের জলসীমায় ভেসে আসা নৌকা থেকে ৮ জনের লাশ উদ্ধার * লিবিয়ার পশ্চিম উপকূল থেকে অবৈধ ৩৬০ শরণার্থী উদ্ধার   |   

মা ভাবতেই পারেননি, আমি জীবিত ফিরে আসবো : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

॥ সৈয়দ সোহরাব ॥
ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬ (বাসস) : মা ভাবতেই পারেননি, আমি জীবিত ফিরে আসবো। দেশ স্বাধীন করে যখন বাড়ি ফিরে আসি, মা-বাবা আমাকে দেখে বুকে জরিয়ে ধরে কেঁদে ফেলেন।
যুদ্ধ শেষে বাড়ি ফেরার পর সেদিনের স্মৃতিচারণ করে এই বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সংগঠক জানান, মার সে কান্না আর থামে না। জিজ্ঞেস করি তুমি এতো কাঁদো কেন ? এর উত্তরে মা বলেন-তুই সেটা বুঝবি না। এটা খুশির কান্না।
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম মোজাম্মেল হক মহান বিজয় দিবসের স্মৃতিচারণ করে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ে তার কার্যালয়ে এক সাক্ষাৎকারে বাসসকে আজ এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, মা আরো বলেন- আমার ছেলে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছে এবং সুস্থ অবস্থায় বাড়ি ফিরে এসেছে, এটা যে একজন মায়ের জন্য কতটা গর্বের ও আনন্দের সেটা তোকে বলে বুঝানো যাবে না। আল্লাহর দরবারে এ জন্য হাজারো শুকরিয়া।
মোজাম্মেল হক বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী আত্মসমপর্ণের কথা যখন প্রথম শুনি, তখন যে আত্মতৃপ্তি ও সন্তুষ্টি লাভ করেছি, বাকি জীবনে আর কখনোই, কোন প্রাপ্তিতে এতটা তৃপ্তি বা সন্তুষ্টি লাভ করিনি।
তিনি বলেন, জেনারেল নিয়াজীর আত্মসমপর্ণের কথা শোনার পর আমি ও আমার দলের সবাই আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানাই। খুশিতে আমাদের চোখ পানি এসে যায়। আমরা সবাই স্বাধীন বাংলাদেশের জমিনে চুমু খাই, আনন্দে নিজেদের মধ্যে কোলাকুলি করি।
বীর মুক্তিযোদ্ধা এই মন্ত্রী জানান, পাকিস্তান আত্মসমপর্ণ করতে পারে এটা শুনে আমরা ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর সকালে আমাদের দল ঢাকামুখী হয়। এ সময় গাজীপুর ৬ দনা এলাকায় মালেকের বাড়ির সামনে পৌঁছলে পাকিস্তান হানাদার বাহিনী আক্রমণ করে বসে। সেখানে আমাদের ফোর্সের সাথে পাকিস্তান বাহিনীর তুমুল লড়াই হয়।
পাক বাহনীর সাথে তার গ্রুপের যোদ্ধাদের লাড়াইয়ের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ সম্মুখ যুদ্ধে আমাদের ফোর্সের সাথে মিত্রবাহিনীও ছিল। তুমুল লড়াই শেষে মিত্রবাহিনীরই জয় হয়। ওই লড়াইয়ে তারা ২শর অধিক পাকিস্তানী সৈন্য হত্যা করেছিল। পরে ট্রাক নিয়ে তার দল ঢাকা অভিমুখে রওনা দেয়।
মন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে ১৯৭১ সালের ১৯ মার্চ গাজীপুরে সর্বপ্রথম প্রতিরোধ যুদ্ধে তিনি সশস্ত্র প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক হিসেবে ব্রিগেডিয়ার জাহান জেবের বিরুদ্ধেও সম্মুখে যুদ্ধে নেতৃত্ব দেন।